শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামছে সেনাবাহিনী, থাকবেন ম্যাজিস্ট্রেটও  » «   ইন্টারনেটে ধীর গতি ও মোবাইল ব্যাংকিং বন্ধ চায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী  » «   প্রার্থিতা নিয়ে শুনানি: আদালতের প্রতি খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের অনাস্থা  » «   আওয়ামী লীগ ১৬৮ থেকে ২২০ আসনে জিতবে: জয়  » «   সিলেট-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী তাহসিনা রুশদীর লুনার মনোনয়ন স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট  » «   আম্বানি কন্যার বিয়েতে নাচলেন হিলারি ক্লিনটন [ভিডিও ]  » «   সিলেট-১ আসনে ধানের শীষের প্রচারণার একসঙ্গে মুক্তাদির-আরিফ  » «   সহিংসতার ঘটনা খতিয়ে দেখতে সিইসির নির্দেশ  » «   ‘ইডিয়ট’ লিখে গুগলে সার্চ দিলে কেনো আসে ট্রাম্পের ছবি?  » «   বিশ্ব ভ্রমণ করবে বাংলাদেশের প্রথম বিদ্যুৎচালিত গাড়ি  » «   খাশোগি হত্যাকাণ্ডে সৌদি আরব ছাড়পত্র পাবে না: নিক্কি হ্যালি  » «   গুগলে সবচেয়ে বেশি খোঁজ খালেদা ও হিরো আলম  » «   আস্থা ভোট, নেতৃত্বের পরীক্ষায় উতরে গেলেন তেরেসা মে  » «   ফোনালাপ ফাঁস: খন্দকার মোশাররফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ  » «   নির্বাচনে এজেন্ট পাওয়া নিয়ে চিন্তায় বিএনপি  » «  

হাতির সমান সরীসৃপ!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: এক সময় পৃথিবী দাপিয়ে বেড়ানো ডাইনোসরের কথা সবারই জানা। কিন্তু সেই সময়ের একটি বিশাল সরীসৃপের কথা জানতেন না কেউ। কিছুদিন আগে এমনই এক প্রাণির ফসিল খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ডাইনোসরের সমসাময়িক এই তৃণভোজী সরীসৃপটির আকার প্রায় একটি হাতির সমান।

সম্প্রতি ‘সায়েন্স’ পত্রিকায় এই আবিষ্কারের খবর প্রকাশিত হয়েছে। এ থেকে জানা যায়, ডাইনোসর ছাড়াও ‘ট্রায়াসিক যুগ’-এ ছিল হাতির সমান একটি সরীসৃপও, যা দেখতে অনেকটা গণ্ডারের মতো।চারপেয়ে এই প্রাণিটির ফসিল বা জীবাশ্ম পাওয়া গেছে পোল্যান্ডের লিসোভিৎসে শহরের পাশে। তাই শহরের নামের সাথে মিলিয়ে প্রাণিটির নাম রাখা হয়েছে ‘লিসোভিৎসিয়া বোজানি’।

সুইডেন ও পোল্যান্ডের বিজ্ঞানীদের এই দলটি জানিয়েছে, মূলত তৃণভোজী এই প্রাণিটির শরীর গণ্ডারের মতো হলেও ঠোঁট অবিকল কচ্ছপের মতো।

এর আগে, ‘ডাইসাইনোডন্ট’ প্রজাতির প্রাণীদের কথা বৈজ্ঞানিক মহলে আলোচিত হয়েছে। লিসোভিৎসিয়ার মতো ডাইসাইনোডন্ট প্রজাতির সরীসৃপও তৃণভোজী ও অন্যান্য দিক দিয়ে স্তন্যপায়ী জীবের কাছাকাছি। কিন্তু আকারের হিসাবে লিসোভিৎসিয়া ডাইসাইনোডন্টের চেয়ে কয়েকগুণ বড়।

বিজ্ঞানীরা বলেন, হাতির সমান লিসোভিৎসিয়া দৈর্ঘ্যে সাড়ে চার মিটার ও দশ টন ওজনের। বিপরীতে ডাইসাইনোডন্টের আকার ইঁদুর বা বড়জোর ষাঁড়ের সমান ছিল বলে বিজ্ঞানীদের ধারণা।

বিজ্ঞানী টমাস সুলেজের মতে, ‘এই আবিষ্কার নিঃসন্দেহে যুগান্তকারী, কারণ, ডাইসাইনোডন্ট বিষয়ে বর্তমান গবেষণার ধারা বদলাতে পারে এই আবিষ্কার।’ ডাইনোসরের বিশাল আকার নিয়েও অনেক অজানা তথ্য জানাবে এই লিসোভিৎসিয়া, জানান সুলেজ।

২৫০ মিলিয়ন বছর আগের একটি মহামারী পৃথিবীর প্রায় ৯০ শতাংশ প্রজাতিকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়। কিন্ত নতুন এই ফসিল থেকে জানা গেছে যে, লিসোভিৎসিয়া প্রাণিটি এই মহামারীর বেশ পরে, আনুমানিক ২০৫ থেকে ২১০ মিলিয়ন বছর আগে ডাইনোসরের সাথেই পৃথিবীতে আসে।

সুতরাং, এতদিন ইতিহাসের যে অধ্যায়কে বিজ্ঞানীরা চিনতেন শুধু ডাইনোসরের সময় হিসাবেই, সেই ধারণাকে আমূল বদলাতে পারে পূর্ব ইউরোপের পোল্যান্ডে খুঁজে পাওয়া এই আশ্চর্য প্রাণির ফসিল।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: