বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ভারতীয় বিমানে ‘বোমা হুমকি’, লন্ডনে জরুরি অবতরণ  » «   যেভাবে আরবদের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা হয়ে উঠেছেন এরদোগান  » «   উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় নার্সকে মেরে ফেলল বখাটে  » «   সড়কে নামাজ ঠেকাতে রাস্তায় বসে বিজেপির মন্ত্র পাঠ  » «   খুনির সঙ্গে রিফাতের স্ত্রী মিন্নির ‘সম্পর্কের তথ্য’ ফাঁস  » «   প্রাথমিকের শিক্ষক বদলির নীতিমালায় ফের পরিবর্তন।  » «   রিফাতের হত্যাকারীদের গ্রেফতারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর  » «   মুসলিম যুবককে হত্যার ঘটনায় উত্তাল ভারত, বিচারের আশ্বাস দিলেন মোদী  » «   টিম ইন্ডিয়ার কমলা জার্সি নিয়ে চলছে রাজনীতি  » «   ভারতীয় এমপির যে ভাষণে উত্তাল স্যোশাল মিডিয়া  » «   দুই প্রকৌশলীকে পেটালেন আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগ নেতারা  » «   সিলেটে বিদেশী মদসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার  » «   রেল লাইন সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে সিলেটি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধবন  » «   আসামে নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়লেন আরও এক লাখ  » «   বিশ্বনাথে ডাকাতের সঙ্গে গোলাগুলি, ৫ পুলিশ গুলিবিদ্ধ  » «  

হাউজিং এস্টেটে চাঁদের হাসি স্বাস্থ্য ক্লিনিকে ৫ কোটি টাকার প্রতারণা : আটক ৭



imagesনিউজ ডেস্ক :: সিলেটের চাঁদের হাসি চিহ্নিত পারিবারিক স্বাস্থ্য ক্লিনিকের টেন্ডারবাজী, চাকুরী বানিজ্য ও পুষ্টি প্রকল্পের নামে ৫ কোটি ৮ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
বুধবার দুপুরে প্রতারনার স্বীকার ভুক্তভোগিরা ক্লিনিকে তালা দিয়ে বিক্ষোভ শুরু করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এ ৭ জনকে আটক করে।
ভূক্তভোগীরা জানান, ইউএনডিপি ও ইরোপিয়ন ইউনিয়নের ভূয়া প্রকল্পের মাধ্যমে ৫০০ জন মাঠ কর্মী প্রতারনার স্বীকার হয়েছেন। জানুয়ারী মাসে এই ক্লিনিকের মালিক পলাতক ডাক্তার জুবায়ের পুষ্টি প্রকল্পের ৫০০ জন মাঠ কর্মী নিয়োগ দেন। শর্ত অনুযায়ী প্রতিটি পরিবারকে ২০০ টাকা মূল্য দিয়ে একটি কার্ড কিনতে হয়। আর প্রতিজন মাঠ কর্মীকে দেয়া হয় ৫০০টি করে কার্ড। সে হিসাবে তাদের কাছ থেকে পুষ্টি সামগ্রী বিতরনের নামে প্রায় ৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় এই ভূয়া প্রতিষ্ঠানটি। এর আগে গ্রাম আদালতের প্রজেক্টে নিয়োগের নামে ২০০ জনের কাছ থেকে ৪ হাজার টাকা করে ৮ লক্ষ টাকা নেন ডা. জুবায়ের। তারাও গত কয়েকদিন ধরে আন্দোলন করে আসছিল। এ ঘটনায় ভূক্তভোগীরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
বুধবার দুপুরে প্রতারিত মাঠ কর্মী ও চাকুরী বানিজ্যের ভূক্তভোগিরা ক্লিনিকে এসে তালা দিলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্য ঘটনাস্থলে আসেন। এসময় স্থানীয় কাউন্সিলর রেজওয়ান হাসান কয়েস লোদীর উপস্থিতিতে সকল মালামালের তালিকা করে ক্লিনিকে তালা দিয়ে হাউজিং এস্টেটে এসোসিয়েশন কাছে হস্তান্তর করা হয়। এবং এয়ারপোর্ট থানার উপ পরিদর্শক বোরহান উদ্দিন ক্লিনিকের সকল কর্মীকে বের করে দিয়ে প্রকল্প পরিচালক সহ ৭ জনকে আটক করে।
সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার রহমত উল্লাহ জানান, চাঁদের হাসি ক্লিনিক থেকে ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। মামলা দেয়া হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও পুলিশ ঘটনার তদন্তে কাজ করছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: