শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
যমুনা নদীতে বিলীন হচ্ছে বসত বাড়ি, দেখার কেউ নেই!  » «   নতুন চলচ্চিত্রের জন্য ইরানে অনন্ত  » «   নেইমারের জার্সি গায়ে অপু ও জয়  » «   সিসিক নির্বাচন: আ.লীগ মেয়র প্রার্থী হলেন কামরান  » «   বাসায় ঢুকে অভিনেত্রীকে শ্লীলতাহানি!  » «   আর্জেন্টিনার হার, বেরিয়ে এলো বিস্ফোরক তথ্য!  » «   দুর্ঘটনা সড়কে মৃত্যুর মিছিল, নিহত ৩০, আহত ৪৭  » «   ‘নির্বাচনে জয়ী হতে গিয়ে যেন দলের বদনাম না হয়’  » «   হাসপাতালে পরীমনি  » «   আর্জেন্টিনার হার, ‘সুইসাইড নোট’ লিখে নিখোঁজ মেসি ভক্ত  » «   সাপাহারে ট্রাক ও ভ্যানের মুখো-মুখি সংঘর্ষে নিহত-২  » «   দুর্ঘটনার দিন ঢাকাতেই ছিলাম না’  » «   ভক্তদের হতাশ করেনি ব্রাজিল : অতিরিক্ত সময়ই বিশ্বকাপে টিকিয়ে রাখল নেইমারদের  » «   হাসপাতালের এক্সরে রুমে রোগীর মাকে ধর্ষণের চেষ্টা!  » «   গজারী বনে যুবতীর অর্ধগলিত লাশ  » «  

হরতাল-সমর্থকদের মিছিলে পুলিশের টিয়ার শেল



রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ ও বিদ্যুৎ-গ্যাস সমস্যা সমাধানে সাত দফা বাস্তবায়নের দাবিতে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ডাকা অর্ধদিবস হরতাল ও বিক্ষোভ আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীতে সকাল ৬টা থেকে শুরু হয়েছে।

হরতালে শাহবাগে পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। পুলিশের টিয়ার শেল ও লাঠিচার্জে ২০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে নাসির উদ্দিন প্রিন্স (২৮), ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লাকী আক্তার (২৬), উম্মে হাবিবা বেনজির (২৫), কাকন বিশ্বাস (২৪), লাবনী মণ্ডল (২৪) ও ফারজানাকে (২২) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হরতালের সমর্থনে আজ সকাল আটটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলার সামনে থেকে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির একটি মিছিল বের হয়। মিছিলটি জাতীয় জাদুঘরের সামনে আসলে পুলিশের ব্যারিকেডের মুখোমুখি হয়। পুলিশ মিছিলটি শাহবাগ অতিক্রম করতে না দিলে নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি ও ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে নেতাকর্মীরা পুুলিশের বাধা উপেক্ষা করে যেতে চাইল পুলিশ টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে। এ সময় পুলিশ নেতাকর্মীদের লাঠিচার্জ করে। মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ জলকামান দিয়ে গরম পানি নিক্ষেপ করে।

শাহবাগ থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক জানান, টিয়ার সেল নিক্ষেপ ও জলকামান ব্যবহার করে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে কোনো লাঠিচার্জের ঘটনা ঘটেনি। এ ঘটনায় কাউকে আটকও করা হয়নি।

রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ ও বিদ্যুৎ-গ্যাস সমস্যা সমাধানে সাত দফা বাস্তবায়নের দাবিতে মিছিলে উপস্থিত ছিলেন তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ, সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: