শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
কাশ্মীর বিদ্রোহী নেতার নামে পাকিস্তানের ডাকটিকিটি প্রকাশ  » «   সংসদ নির্বাচনে হুমকি ‘সাইবার ক্রাইম’, গুজব ঠেকাতে সজাগ পুলিশ  » «   তাঞ্জানিয়ায় ফেরি ডুবি, নিহত বেড়ে ১৩৬  » «   আইনগত অনুমোদন পেলেই সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার: সিইসি  » «   সরকারি চাকরিজীবীদের কার জন্য কত টাকা গৃহঋণ  » «   গণেশের ছবি দিয়ে বিজ্ঞাপন: হিন্দুদের কাছে ট্রাম্পের দলের দুঃখ প্রকাশ  » «   প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেলো কোটা বাতিলের সুপারিশ  » «   রেলের আধুনিকায়নে দুই হাজার কোটি টাকার প্রকল্প  » «   কেন মুনকে বিশেষ সেই ‘পবিত্র পর্বতে’ নিয়ে গেলেন কিম?  » «   সুখোই কিনলে ভারতকেও নিষেধাজ্ঞায় পড়তে হবে!  » «   প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্কের পথে লন্ডন পৌঁছেছেন  » «   তাঁতশিল্প আধুনিকায়নে বিশেষ উদ্যোগ, বাড়ছে ঋণ  » «   আফগানিস্তানে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ১৫  » «   রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়ে দুই পুরস্কার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী  » «   ডিজিটাল পাঠ্যবই শিক্ষার্থী ও শিক্ষক উভয়ের জন্য সহায়ক হবে: শিক্ষামন্ত্রী  » «  

হবিগঞ্জে চুরির অপরাধে ৩ শিশুকে নির্যাতন : আটক ৩



2016_07_28_11_38_48_klXTkCQ1hfRLknwJXzGuo1qiPdjaUJ_originalহবিগঞ্জ সংবাদদাতা : হবিগঞ্জ শহরের গরুর বাজার এলাকায় মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে ৩ শিশুকে হাতে-পায়ে বেঁধে অমানুসিক নির্যাতন করেছে শাহ আলম নামে এক ব্যক্তি।

এ ঘটনার পর অভিযুক্ত শাহ আলমকে থানায় আটক ও দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে সদর মডেল থানার এসআই রাজ কুমারকে ক্লোজড করা হয়েছে।

নির্যাতিত শিশুরা হল- যশোরআব্দা এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে রনি (১২), বাচ্চু মিয়ার ছেলে রুবেল (১৩) ও অভিযুক্ত শাহ আলমের ভাড়াটিয়া পরিবারের ছেলে মাহিন (১২)।

আটককৃতরা হলো-যশোরআব্দা এলাকার আব্দুল আলীর ছেলে শাহ আলম, রিপন মিয়া (১৮) ও তার মা শাহেদা বেগম (৩৫)।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার সকালে পৌর এলাকার ৩ শিশুকে আটক করেন একই এলাকার শাহ আলম নামে এক ব্যক্তি। এ সময় তিনি ওই কলোনির একটি ঘর থেকে মোবাইল ফোন চুরির অপরাধে তাদের হাত-পা বেঁধে নির্মমভাবে মারধোর করেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে জানানো হলে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার এসআই রাজ কুমারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আইনি কোনো ব্যবস্থা না নিয়েই অজ্ঞাত কারণে ফিরে যায়।
ঘটনার পর রাত ৯টায় হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত শিশুদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত শাহ আলমকে গ্রেপ্তার করে।

এদিকে, নির্যাতনে আহত শিশুদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়েছে পুলিশ। এছাড়া দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে রাত সাড়ে ১১টার দিকে সদর মডেল থানার এসআই রাজ কুমারকে ক্লোজড করেন পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র।

অপরদিকে, রাত ১টায় নির্যাতনের শিকার শিশু রুবেলের মা সুলতানা রিজিয়া বাদী হয়ে শাহ আলমকে অভিযুক্ত করে শিশু নির্যাতন আইনে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

জানা যায়, গভীর রাতে নির্যাতনের শিকার শিশুদের নিজ নিজ অভিভাবকদের জিম্মায় দেয়া হয়েছে। ঘটনাটি নিয়ে শহরজুড়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়।

এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) রাসেলুর রহমান হবিগঞ্জ সদর মডেল থানায় উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, শিশু নির্যাতনের ঘটনার পর দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে এসআই রাজ কুমারকে ‘ক্লোজড’ করা হয়েছে।

এদিকে, রাত সোয়া ১টার দিকে পুলিশ যশোরআব্দা এলাকায় অভিযান চালিয়ে রিপন ও তার মাকে আটক করেছে পুলিশ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: