মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
এমডিকে ‘ওয়াসার সুপেয় পানির শরবত’ খাওয়াতে এসেছেন জুরাইনবাসী  » «   শ্রীমঙ্গলে থামছে না অসাধু ব্যবসায়ীদের অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, নিশ্চুপ প্রশাসন!  » «   জাজিরা প্রান্তে বসল ১১তম স্প্যান, দৃশ্যমান ১৬৫০ মিটার  » «   দক্ষিণ সুরমায় ইজতেমার অনুমোদন এখনো মেলেনি  » «   সিলেটের ৯টি উপজেলায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু  » «   শোকে স্তব্ধ শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১১  » «   জিন তাড়ানোর বাহানায় যৌন সম্পর্ক গড়তো সেই পিয়ার  » «   ভারতের মিডিয়া ও বিজেপির প্রতি ক্ষুব্ধ শ্রীলঙ্কার নেটিজেনরা  » «   পড়াশোনা না করলে জীবনের অর্থ সংকীর্ণ হয়ে ওঠে: শিক্ষামন্ত্রী  » «   এমডিকে ‘ওয়াসার সুপেয় পানির’ শরবত খাওয়াবেন জুরাইনবাসী  » «   হুমকি না থাকলেও সতর্ক আছে বাংলাদেশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   নকল তামাক পণ্য : হুমকিতে জনস্বাস্থ্য, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার  » «   ৬ দিনের সফরে সিলেটে পৌঁছেছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ  » «   শাহজালাল বিমানবন্দরের টয়লেট থেকে ৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার  » «   ফেঞ্চুগঞ্জে ঘরে ঢুকে হত্যাচেষ্টা, ছুরিসহ আটক  » «  

হকারদের দখলে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক,যানজটে অতিষ্ঠ নগরবাসী



নিউজ ডেস্ক:: সিলেট নগরীর প্রধান প্রধান সড়কের দিকে লক্ষ করলে দেখা যাবে ফুটপাত দখলের প্রতিযোগিতায় নেমেছেন হকাররা। বিভিন্ন স্থানে ফুটপাত ছেড়ে সড়কের অর্ধেক হকারদের দখলে চলে গেছে।বারবার ফুটপাত বেদখলে চলে যাওয়ার পেছনে পুলিশ প্রশাসন এবং সিটি করপোরেশন একে অপরকে দায়ী করছে।ফলে আদৌ এই সমস্যা নিরসন হচ্ছে না বলে মন্তব্য সংশ্লিষ্টদের।

নগর কর্তৃপক্ষ বলছেন, পুনর্বাসন ব্যবস্থা না থাকায় বারবার ফুটপাত দখল করে সড়কের পাশে পসরা সাজিয়ে বসছে হকাররা।এতে তাদের উচ্ছেদ করলেও পরবর্তীতে পুনরায় তারা সেখানে চলে আসছে।

নগরীর সুরমা মার্কেট পয়েন্ট, সিটি পয়েন্ট, বন্দর বাজার,কোর্ট পয়েন্ট থেকে জিন্দাবাজার হয়ে আম্বরখানা পয়েন্ট পর্যন্ত এবং কোর্ট পয়েন্ট থেকে পেপার পয়েন্ট হয়ে সুবহানীঘাট পয়েন্ট, জেল রোড সড়ক পর্যন্ত ফুটপাত হকারদের দখলে রয়েছে।

এছাড়া পোস্ট অফিসের পাশ থেকে সিটি করপোরেশন ভবনের সামনে পর্যন্ত পথচারীদের চলাচলের সুবিধার্তে নির্মিত রেলিং ঘেরা ফুটপাতও রয়েছে হকারদের দখলে। শুধু তাই নয় ওখানের সড়ক প্রায় অর্ধেক দখল করে বাজার বসিয়েছেন হকাররা। এসব ফুটপাত দখল করে বসছে অস্থায়ী ফলমূল, সবজি-বাজার, তৈজসপত্র, চশমা, নকল চাবি তৈরি এবং কাপড়সহ অসংখ্য ভ্রাম্যমাণ দোকান।

একারণে ফুটপাত দিয়ে পথচারীদের চলাচল নির্বিঘ্ন হচ্ছে না।পথচারীদের হাঁটতে হচ্ছে মূল সড়ক দিয়ে। এতে অনেক সময় ছোটখাটো দুর্ঘটনায়ও ঘটছে। আবার রাস্তার পাশ জুড়ে রয়েছে অবৈধ পার্কিং। যে কারণে সহসাই যানজট লেগে থাকে।

এ ব্যাপারে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) আব্দুল ওয়াহাব বলেন, পুলিশ নগরীর বিভিন্ন স্থানে ফুটপাত থেকে হকারদের সরাতে উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে। এরপরও পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ভ্রাম্যমাণ হিসেবে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে হকাররা। এক্ষেত্রে অনেক সময় তাদের মালামাল জব্দ করে নিয়ে আসা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সিলেট সিটি করপোরেশন প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজ বলেন,হকার উচ্ছেদে সিটি করপোরেশন বারবার অভিযান চালিয়েছে।তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: