বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২৭ জুলাই খালেদার মুক্তি দাবিতে জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ  » «   মৌসুমি বায়ু দুর্বল, বর্ষার বর্ষণ নেই  » «   সিলেটে দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু  » «   হরিণাকুণ্ডুতে র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সদস্য নিহত  » «   পুলিশের সোর্স মামুন মাদক ব্যবসায়ীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও  » «   ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরি, সালিসে জরিমানার টাকা ভাগাভাগি!  » «   আইনমন্ত্রীর বাসায় প্রধানমন্ত্রী  » «   ‘এদেরকে নিয়েই মান্না সাহেব দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করিবেন’  » «   রাশিয়ায় বিশ্বকাপ দেখতে গিয়ে পুলিশের জালে বাংলাদেশী যুবক  » «   বিদেশ ও জেল থেকে আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণ করছে শীর্ষ সন্ত্রাসীরা  » «   বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত মনোনীত রবার্ট মিলার  » «   বেবী নাজনীন অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি  » «   কোটা আন্দোলন: ছাত্রলীগের হুমকিতে ক্যাম্পাস ছাড়া চবি শিক্ষক  » «   ভেবেই ক্লাব বদল করেছেন রোনালদো  » «   ভারতে নিষিদ্ধ, অন্য দেশে পুরস্কৃত যেসব ছবি  » «  

স্বাস্থ্যমন্ত্রী হলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে তার মন্ত্রিসভার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেরেমি হান্টকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন। আগামী বছর ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরও ওই ইউনিয়নের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ বাণিজ্যিক সম্পর্ক বজায় রাখার যে সিদ্ধান্ত থেরেসা মে নিয়েছেন তার প্রতিবাদ জানিয়ে বরিস জনসন সোমবার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দেন।

প্রধানমন্ত্রী মে’র দপ্তর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ব্রিটিশ রানি এলিজাবেথ নয়া পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নিয়োগে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। মে’র নীতির প্রতি অনুগত হিসেবে পরিচিত নয়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী হান্ট সাবেক প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেছিলেন।

ব্রেক্সিটের গণভোটের জের ধরে ক্যামেরন পদত্যাগ করার পর মে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে হান্টকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদে বহাল রেখেছিলেন। ফলে গত সাড়ে পাঁচ বছর টানা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি। তাকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দিয়ে ম্যাট হ্যানকককে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

হান্টের নিয়োগের ফলে প্রধানমন্ত্রী মে’র ব্রেক্সিট পরিকল্পনায় ভারসাম্য আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। হান্ট ২০১৬ সালের ব্রেক্সিট গণভোটের সময় ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে থেকে যাওয়ার পক্ষে প্রচার চালিয়েছিলেন।

তবে ২০১৭ সালের অক্টোবরে কনজারভেটিভ পার্টির এই নেতা বলেছিলেন, তিনি বিষয়টিতে তার মত পাল্টেছেন। তিনি ব্রেক্সিট আলোচনায় ইইউ ‘ঔদ্ধত্ব’ দেখাচ্ছে বলেও অসন্তোষ প্রকাশ করেন। পার্সটুডে

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: