বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বরখাস্তকৃত ন্যানগ্যাগওয়াই হচ্ছেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট  » «   খালেদার গাড়িবহরে হামলা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পরিকল্পনার অংশ  » «   এক মোটরসাইকেলেই বিশ্ব রেকর্ড  » «   কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া, ১শ শিশুর ঠোঁটের অস্ত্রোপচারে খরচ দিবেন  » «   কাল থেকে পুনরায় চালু হচ্ছে চুয়েট বাস  » «   বলি একটা লেখেন আরেকটা: সাংবাদিকদের রোনালদো  » «   এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১ ফেব্রুয়ারি  » «   মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হবে ছাত্রলীগের স্কুল কমিটি  » «   এগিয়ে থাকুন সৃজনশীলতায়  » «   সংসদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ১ বছরে সাড়ে ৩ কোটি ইয়াবা জব্দ  » «   শ্রীমঙ্গলে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন  » «   দখলমুক্ত হচ্ছে খাল ও নদী  » «   কুমিল্লায় হানিফ‘আ’লীগকে হুংকার দিয়ে লাভ নেই’  » «   কমলগঞ্জে প্রতিহিংসায় বিনষ্ট কৃষকের শিম বাগান  » «   অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ  » «  

স্বামীর দাবি নিয়ে মেয়ের বাড়িতে ছেলের অনশন!



নিউজ ডেস্ক::ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দুওসুও ইউনিয়নের আলোকছিপি গ্রামের ৮ম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে স্ত্রী দাবি করে অনশন শুরু করেছে রুবেল (২২) নামে যুবক।

২৬ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা থেকে রুবেল ওই স্কুল ছাত্রীকে স্ত্রী দাবি করে অনশন শুরু করে। রুবেল একই উপেজলার ভানোর ইউনিয়নের কাচকালি এলাকার আসিরউদ্দিন (কালুর) ছেলে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উক্ত এলাকার আসিরউদ্দিনের (কালুর) ছেলে অর্নাস পড়ুয়া রুবেল সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল ওই ছাত্রীর। সম্প্রতি মেয়েটি ছেলেটিকে বিয়ে করতে চাইলে মেয়ের বাবা ‘বিয়ের বয়স হয়নি’ বলে নিজ মেয়েকে শাসন করেন। কয়েকদিন পর অভিমানে ওই স্কুল ছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরবর্তীতে পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে চিকিৎসা শেষে সে সুস্থ হয়। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার পর ওই স্কুলছাত্রী রুবেলের সঙ্গে যোগাোযোগ অব্যাহত রাখে বলে অনেকেই জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রুবেল ওই স্কুলছাত্রীকে স্ত্রী দাবী করে ওহাব আলীর বাড়িতে অনশন শুরু করে। ওহাব আলী রুবেলের কাছে বিয়ের প্রমান চাইলে অনশন থাকা অবস্থা পর্যন্ত বিয়ের কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেনি।
অনশনরত যুবক রুবেল জানান, স্কুল পড়ুয়া ওই মেয়ের সঙ্গে দীর্ঘদিন যাবত প্রেমের সম্পর্কের পর কিছুদিন আগে কোর্টের মাধ্যমে বিয়ে করেন তারা। তাই নিজ স্ত্রীকে নিয়ে যাওয়ার জন্য এসেছেন। কিন্তু তার বাবা এ বিয়ে মানতে নারাজ। ওই যুবক জানিয়েছেন, তিনি আদালতের কাগজপত্র আনার ব্যবস্থা করেছেন। স্ত্রীকে না নিয়ে যাওয়া পর্যন্ত তার এই অনশন অব্যাহত রাখবেন।

মেয়ের বাবা ওহাব আলী বলেন, আমার মেয়ে মাত্র অষ্টম শ্রেণীতে পড়ে। এখনো সে নাবালিকা, বিয়ের বয়স হয়নি। রুবেল নামে ছেলেটি আমার মেয়েকে স্ত্রী দাবী করছে কিন্তু কোন প্রমান দেখাতে পারছে না। রুবেলের পরিবারের সাথে যোগাযোগ চলছে। তারা এলে বিষয়টি সুরাহা করা হবে।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দুওসুও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম জানান, অনশনের বিষয়টি জেনেছি। কিন্তু এখনো পর্যন্ত কারো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তাছাড়া মেয়েটি যেহেতু নাবালিকা সেখানে আদালতের মাধ্যমে বিবাহ বিষয়টি সন্দেহজনক।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: