বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পত্নীতলায় বিজয় দিবস আন্ত:ইউনিয়ন ভলিবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন  » «   পত্নীতলার প্রিয় মুখ বিএফডিসি, এর তরুন কমেডিয়ান ইমরান হাসোর আজ জন্মদিন  » «   পত্নীতলায় বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত  » «   রাজশাহীতে ৩ সাংবাদিককে পেটাল ছাত্রলীগ  » «   খালেদার দুর্নীতি নিয়ে ইনুর ওপেন চ্যালেঞ্জ  » «   ফেসবুকে আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে নগ্ন ভিডিও-ছবি  » «   অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি ১২৮ কর্মকর্তার  » «   প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটি : সব আসামির জামিন  » «   ভরিতে স্বর্ণের দাম কমলো ১২৮২ টাকা  » «   ১৪ ও ১৬ ডিসেম্বর উপলক্ষে আওয়ামী লীগের কর্মসূচি  » «   এপির অনুসন্ধান: ধর্ষণ থেকে রেহাই মেলেনি ৯ বছরের রোহিঙ্গা শিশুরও  » «   সীতাকুণ্ডে বিরল প্রজাতির পেঁচা ধরা পড়ল  » «   ‘ভয় পাওয়ার কিছু নেই’  » «   হাইকোর্টের রুল বৈবাহিক অবস্থা লিখতে বাধ্য করা কেন অবৈধ নয়  » «   অবশেষে ফাইনালে রংপুর  » «  

স্বামীকে মেরে ১৩ বছর ধরে সেপটিক ট্যাংকে রেখেছে স্ত্রী!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::সেক্স র‍্যাকেট ফাঁস করার জন্য ফরিদা ভারতী নামে এক মহিলার বাড়িতে তল্লাশি চালায় পুলিশ। কিন্তু সেই বাড়িতে ঢুকে যে এই দৃশ্য দেখা যাবে সেটা দুঃস্বপ্নেও ভাবেনি পুলিশ। সেপটিক ট্যাংক ভিতর থেকে বেরোল একটা আস্ত কঙ্কাল।

ওই মধুচক্র থেকে চার মহিলাকে উদ্ধার করার পর পুলিশ দ্বিতীয়বার ওই বাড়িতে তল্লাশি চালাতে যায়। তখনই দেখে তার স্বামীর দেহ রয়েছে সেপটিক ট্যাংকের ভিতর। ১৩ বছর আগে ওই মহিলা তার স্বামীকে খুন করে সেপটিক ট্যাংকে দেহটি ফেলে দিয়েছিল বলে প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ।

গত সোমবার প্রথম ওই বাড়িতে যায় পুলিশ। মুম্বইয়ের গান্ধীপাড়ার নিজের বাড়িতে মধুচক্র চালায় ফরিদা। গোপন সূত্রে এই খবর পেয়েই পুলিশ তল্লাশি চালাতে যায়। সেইসময়েই চার মহিলাকে উদ্ধার করা হয় ওই ফরিদা সহ দু’জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে পুলিশ জানতে পারে শুধুমাত্র মধুচক্র চালানোই নয়, স্বামী সহ একাধিক ব্যাক্তিকে খুনও করেছে সে।

জেরায় স্বামীকে খুন করার কথা স্বীকার করে নেয় ফরিদা। ১৩ বছর আগে স্বামী সহদেবকে হত্যা করে বাথরুমের নিচে সেপটিক ট্যাংকে দেহ ফেলে দিয়েছে বলে জানায়। এরপর বুধবার সেই দেহ খুঁড়ে বের করা হয়। মাথায় আঘাত করে স্বামীকে মেরেছিল বলে জানায় ফরিদা। খুনের কারণ এখনও জানা যায়নি। তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: