বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বরখাস্তকৃত ন্যানগ্যাগওয়াই হচ্ছেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট  » «   খালেদার গাড়িবহরে হামলা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পরিকল্পনার অংশ  » «   এক মোটরসাইকেলেই বিশ্ব রেকর্ড  » «   কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া, ১শ শিশুর ঠোঁটের অস্ত্রোপচারে খরচ দিবেন  » «   কাল থেকে পুনরায় চালু হচ্ছে চুয়েট বাস  » «   বলি একটা লেখেন আরেকটা: সাংবাদিকদের রোনালদো  » «   এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১ ফেব্রুয়ারি  » «   মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হবে ছাত্রলীগের স্কুল কমিটি  » «   এগিয়ে থাকুন সৃজনশীলতায়  » «   সংসদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ১ বছরে সাড়ে ৩ কোটি ইয়াবা জব্দ  » «   শ্রীমঙ্গলে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন  » «   দখলমুক্ত হচ্ছে খাল ও নদী  » «   কুমিল্লায় হানিফ‘আ’লীগকে হুংকার দিয়ে লাভ নেই’  » «   কমলগঞ্জে প্রতিহিংসায় বিনষ্ট কৃষকের শিম বাগান  » «   অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ  » «  

স্বামীকে আটকে রেখে নববধূকে ধর্ষণ ধর্ষণের দায় স্বীকার করলেন ছাত্রলীগ নেতা



নিউজ ডেস্ক::স্বামীকে আটকে রেখে নববধূকে ধর্ষণ করার ঘটনায় আটক হওয়া বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সুমন হোসেন মোল্লা সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারক মো. শিহাবুল ইসলামের কাছে ধর্ষণের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে তাকে কারাগারে প্রেরণ করেছেন আদালত।

আজ সোমবার বিকালে তাকে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারকের কাছে নেওয়া হয়।

বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, চট্টগ্রামে অটোরিকশা চালাতে গিয়ে পরিচয় হয় সেলিম মিয়ার সাথে ওই নববধূর। আট থেকে নয় মাস আগে দু’জনার বিয়ে হয়। দিন কয়েক আগে সেলিম তার স্ত্রীকে নিয়ে নানা বাড়ি সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের বেতাল গ্রামে বেড়াতে আসেন। এসময় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সুমন মোল্লা দলবল নিয়ে চাঁদা দাবি করেন।

গত শনিবার সন্ধ্যায় সেলিম তার স্ত্রীকে নিয়ে ঘুরতে বের হলে ছাত্রলীগ সভাপতি সুমন মোল্লা ও তার সহযোগীরা দু’জনকে ধরে নিয়ে স্বামীকে আটকে রেখে তাদের কাছে বিয়ের কাবিননামা দেখতে চান। এসময় তাদের কাছে চাঁদা দাবিও করা হয়। পরবর্তীতে পার্শ্ববর্তী এক বাড়িতে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন ছাত্রলীগ নেতা সুমন মোল্লা।

স্থানীয় চেয়ারম্যান বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ গিয়ে পরদিন রোববার বেলা ১১টার সময় তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

ওইদিন বিকালে গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রোববার রাতে সুমন মোল্লাকে বরিশাল নগরী থেকে আটক করে।

উজিরপুর থানার সার্কেল এসপি মো. শাহাবুদ্দিন জানিয়েছেন, মামলা দায়েরের পরপরই আসামিকে গ্রেপ্তারে সফলতা পেয়েছেন।

এদিকে গৃহবধূ ধর্ষণের মামলা দায়ের হওয়ার পর সুমন মোল্লাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশাল জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক।

বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আদালতের বিচারক মো. শিহাবুল ইসলামের কাছে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন সুমন মোল্লা। পরবর্তীতে তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

এসময় ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর স্বামী ও ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীর সাক্ষ্য নেন বিচারক। পরে ওই গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: