বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দেশে ফিরছেন সাগরে ভাসা আরও ২৪ বাংলাদেশি  » «   অস্ট্রেলিয়ায় আগুনে পুড়ে ৩ ভাই-বোন নিহত  » «   অবশেষে বরখাস্ত ডিআইজি মিজান  » «   সরকারি চাকরিতে ডোপটেস্ট বাধ্যতামূলক করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   ঘুষ নেয়ার ভিডিও করায় সাংবাদিককে পেটাল পুলিশ, ৪ পুলিশ সদস্য ক্লোজড  » «   শেষ বয়সে খেলোয়াড়দের সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা ‍নিতে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়কে প্রধানমন্ত্রীর নির্দে  » «   বিএনপির নেতৃত্বে আসছেন তারেকের কন্যা!  » «   সরকারি নিয়োগের স্বাস্থ্য পরীক্ষা বেসরকারিতে!  » «   তিন বাংলাদেশিসহ চার নব্য জেএমবি জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছে কলকাতা পুলিশ  » «   ‘শহীদ’ জিয়াকে নিয়ে সংসদে মমতাজের হাস্যরস  » «   বগুড়া-৬ উপনির্বাচনে বিপুল ব্যবধানে বিএনপি প্রার্থীর জয়  » «   প্রথমবার সিলেট-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে উড়বে ইউএস-বাংলা  » «   ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ইন্দোনেশিয়ায়-জাপান-অস্ট্রেলিয়া  » «   ভোটকেন্দ্রেই ঘুমিয়ে পড়লেন কর্মকর্তা  » «   ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় পিটিয়ে মুসলিম যুবককে হত্যা  » «  

স্ত্রীকে খুন করে ৭ মাস ধরে অনলাইনে জীবিত দেখান স্বামী



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সাবেক স্ত্রীকে হত্যা করে জীবিত দেখানোর জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিয়মিত পোস্ট দিতেন এক স্বামী। স্ত্রীর সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে ব্লাকমেইল করতে এমন কাজ করেন তিনি। সম্প্রতি এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতে।

ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে জানা যায়, অভিযুক্ত ওই চিকিতসকের নাম ড. ধর্মেন্দ্র প্রতাপ সিংহ। ভারতের গোরাকপুরের এলাকায় বেশ সুনামও আছে তার।পুলিশ জানান, তিনি তার সাবেক স্ত্রী রাখি শ্রীভাস্তাভা প্রায় ৭ মাস আগে হত্যা করেন। কিন্তু বেঁচে রেখেছিলেন সামাজিক মাধ্যমে। কেননা স্ত্রীকে খুন করার পর স্ত্রীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিয়মিত আপডেট দিতেন তিনি।

তবে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে ওই চিকিৎসককে ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এছাড়া তার দুই সহযোগীকে প্রমোদ কুমার ও দেশ দীপক নিসাদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদেরকে শনিবার জেলে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানান, চলতি বছরের জুন মাস থেকে নিখোঁজ হন রাখি শ্রীভাস্তাভা।এজন্য রাখি শ্রীভাস্তাভার পরিবার থানায় মামলা দায়ের করেন তার দ্বিতীয় স্বামী মনিষ সিংহের বিরুদ্ধে।পুলিশ পরে তাকে আটক করে।শুরু করে জেরা।একপর্যায়ে তদন্ত করতে গিয়ে দেখতে পান রহস্যের জাল।পুলিশ জানায়, তদন্ত করতে গিয়ে দেখি ঘটনা বেশ জটিল।একপর্যায়ে একটি সূত্র পাই।দেখা যায় তার প্রথম স্বামী এতে জড়িত।

রাখির সঙ্গে তার দ্বিতীয় স্বামী গত ১ জুন নেপালে যায়। কিন্তু তার স্বামী ফিরলেও নেপালে থেকে যায় রাখি। কিন্তু কোন খোঁজ না পেয়ে তার ভাই জুনের ২৪ জুন থানায় মামলা করেন।পুলিশ তদন্তের জন্য এসময় তার প্রথম স্বামীর ফোন চেক করে দেখেন একই সময়ে নেপালে যান ধর্মেন্দ্র প্রতাপ সিংহ। নেপালে তার ফোন ১-৪ জুন পর্যন্ত খোলা পাওয়া যায়।

এসময় তদন্তকারী দল নেপালে গেলে সেখানকার স্থানীয় পুলিশ জানায় তারা একটি মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। আর সেটি ছিল রাখির।পরে তদন্তকারীর কাছে রাখিকে হত্যার কথা স্বীকার করে ধর্মেন্দ্র। তিনি বলেন, স্ত্রীর সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়ার জন্য তাকে হত্যা করেন। আর এজন্য তাকে জীবিত দেখানোর জন্য তার সামাজিক মাধ্যমে নিয়মিত পোস্ট করতো।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: