সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
একসঙ্গে ৩ মুসলিম দেশে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল!  » «   অবশেষে প্লট চাওয়া নিয়ে মুখ খুললেন রুমিন ফারহানা  » «   দালালদের দেখানো ‘সোনার হরিণ’ থেকে সতর্ক থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী  » «   পানি ছেড়ে ভারতকে ডোবাচ্ছে পাকিস্তান  » «   শুধু ডিসি নয় ওই নারীকেও আইনের আওতায় আনা হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী  » «   রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের ওপর চাপ সহ্য করবে না চীন  » «   ছাতকে ছুরিকাঘাতে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র নিহত, আটক ১  » «   সৌদিতে আরো এক হাজির মৃত্যু, মৃতের সংখ্যা ১০০ ছাড়াল  » «   মহানবীর নামে ইউরোপে সবচেয়ে বড় মসজিদ উদ্বোধন  » «   সিন্ডিকেটে লোপাট হচ্ছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোটি কোটি টাকা  » «   খাসদবিরে আবাসিক হোটেল থেকে মাদ্রাসা শিক্ষকের লাশ উদ্ধার  » «   হঠাৎ রুমিন ফারহানাকে নিয়ে বিএনপিতে সমালোচনার ঝড়  » «   সৌদিতে সড়কে ঝরলো ৪ বাংলাদেশির প্রাণ  » «   অ্যামাজন বন পুড়ছে কেন! নেপথ্যে যে রহস্য  » «   দেশে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের উল্টো কাজ হচ্ছে: ড. কামাল  » «  

স্টেশনে যাত্রীদের পথ-পরামর্শ দিচ্ছে কৃত্রিম বুদ্ধির দুই রোবট



তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক:: জাপানের টোকিও স্টেশনে যাত্রীদের গাইড করতে পরীক্ষামূলক কাজ শুরু করেছে দুই কৃত্রিম বুদ্ধির রোবট। দেশটির ইস্ট জাপান রেলওয়ে কম্পানি পরীক্ষামূলক কাজটি পরিচালনা করছে।

কৃত্রিম বুদ্ধির রোবট দুটি হলো জাপানের সফটব্যাঙ্ক রোবোটিক্স করপোরেশনের ‘পিপার’ এবং জার্মান রেলওয়ে কম্পানির ‘সেমি’ (এসইএমএমআই)। রোবট দুটি স্টেশনের বেসমেন্ট শপিং-এর ইনফরমেশন ডেস্ক এবং গ্রানস্টা নামের ডাইনিং সেন্টারে স্থাপন করা হয়েছে।

জাপানি, ইংরেজি ও চীনাসহ বিভিন্ন ভাষায় ভিজিটররা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার দুই রোবটের কাছ থেকে নির্দেশনা নিতে পারবে। আগামী ৩১ মে পর্যন্ত এই পরীক্ষামূলক কাজ চলবে। এই সময় রোবট মেশিনের সক্ষমতা এবং সাহায্য প্রার্থী যাত্রীদের প্রতিক্রিয়া পর্যবেক্ষণ করবেন সংশ্লিষ্টরা।

পিপার জাপানে বহুল ব্যবহৃত একটি আধা মানবগুণ সম্পন্ন রোবট, আর সিএমএমআই বা সেমি হচ্ছে একটি রোবট প্রহরী যা মানুষের মতো দেখতে এবং মানুষের মতো আচরণের অধিকারী।

চিসা উনো (৪৪) একজন জাপানি গৃহবধূ। শপিংয়ের বাইরে এসে থেকে গেলেন তিনি। তারপর টোকিও টাওয়ারের নির্দেশনা পেতে সেমিকে জিজ্ঞেস করলেন। জবাবে বিনত ভঙ্গিমায় মাথা নামিয়ে সেমি বললেন, ‘ক্ষমা করবেন, আমি বলতে পারবো না। কারণ এ বিষয়ে আমার যথেষ্ট জানাশোনা নেই।’

কথোপকথন সম্পর্কে উনো বলেন, ‘বিষয়টি লজ্জাজনক, কিন্তু আমার মনে হয়েছে যে এটি কথোপকথন চালিয়ে যেতে সর্বোচ্চ কাজ করছে।’ টোকিও স্টেশনে প্রতিদিন সাড়ে চার লাখ যাত্রী আসা-যাওয়া করে।

সূত্র : জাপান টুডে

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: