সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
খালেদাকে যথাযথ চিকিৎসা দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ  » «   খালেদা জিয়া নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন: মির্জা ফখরুল  » «   সিরিয়ায় তুর্কিপন্থী বিদ্রোহীদের সংঘর্ষে নিহত ২৫  » «   ফাঁস হলো খাশোগির লাশ টুকরো করার ছবি!  » «   ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য অশনি সংকেত: রিজভী  » «   সংসদ নির্বাচন: তথ্য সংগ্রহে পুলিশ ও ইসির লুকোচুরি  » «   কামাল আউট, তারেক ইন!  » «   তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ফ্রান্সে বিক্ষোভ: নিহত ১, আহত ৪০৯  » «   দ্বিতীয় দিনের সাক্ষাৎকার চলছে: ভিডিও কনফারেন্সে আছেন তারেক রহমান  » «   নির্বাচনে রোহিঙ্গাদের সম্পৃক্ততা প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ইসির নির্দেশনা  » «   চিকিৎসা বিষয়ে খালেদার রিটের আদেশ আজ  » «   তারেক রহমান মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কাছে যা জানতে চাচ্ছেন  » «   চ্যারিটেবল মামলায় দণ্ডের বিরুদ্ধে খালেদার আপিল  » «   সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলা; শিশু ও নারীসহ নিহত ৪৩  » «   থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা  » «  

স্কুল থেকে ৭৮ শিক্ষার্থী অপহরণ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ক্যামেরুনের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় নেকওয়েন গ্রামের এক স্কুল থেকে ৭৮ জন শিক্ষার্থী ও প্রিন্সিপালসহ মোট একাশি জনকে অপহরণ করেছে বন্দুকধারী ব্যক্তিরা।রোববার রাতে দেশটির ইংলিশভাষী অঞ্চলের রাজধানী বামেন্ডার নিকটবর্তী এক স্কুলে এ অপহরণের ঘটনা ঘটে।

ক্যামেরুন সরকার জানিয়েছে, রাজধানীর ‘প্রেসবিটারিয়ান সেকেন্ডারি স্কুল’থেকে অন্তত ৭৮ শিক্ষার্থীকে অপহরণ করা হয়েছে।তাদের প্রত্যেকের বয়স ১০ থেকে ১৪ বছরের মধ্যে। স্কুলের অধ্যক্ষ-সহ আরও তিনজনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিচ্ছিন্নতাবাদীদের উপর গোটা ঘটনার দায় চাপিয়েছেন সেখানকার গভর্নর অ্যাডল্ফ লেলে লা’ফ্রিক। তবে কোনও সংগঠনই এখনও পর্যন্ত এ ঘটনার দায় স্বীকার করেনি।

মধ্য আফ্রিকার অন্তর্গত ক্যামেরুনের উত্তর-পশ্চিম এবং দক্ষিণ-পশ্চিম অংশটি বিদ্রোহী উপদ্রুত বলে পরিচিত। সাম্প্রতিক সময়ে একাধিকবার সরকারের বিরুদ্ধে সক্রিয় হয়েছে তারা।ওই দুই অংশের সংখ্যালঘু বাসিন্দারা মূলত ইংরেজিতেই কথা বলেন। কিন্তু ক্যামেরুন সরকারের তরফে ইংরেজি ভাষাকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি সেখানে। বরং শিক্ষা এবং আইন ব্যবস্থায় ফরাসি ভাষাকেই আধিপত্য দেওয়া হয়েছে।

তাতেই আপত্তি বিদ্রোহীদের। ‘অ্যাম্বাজনিয়া’ নামে নতুন দেশ গড়তে চায় তারা। যেখানে ইংরেজি হবে রাষ্ট্রভাষা। সেই দাবিতে কয়েক বছর ধরেই তারা প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। যাতে সামিল হয়েছেন আইনজীবী এবং ওই এলাকার শিক্ষাকর্মীরা। ২০১৭ সালে সরকার তা দমন করতে গেলে আন্দোলন সশস্ত্র আকার ধারণ করে।

শিক্ষার্থীদের অপহরণের পিছনে ওই বিদ্রোহীদের কোনও হাত রয়েছে কিনা তা এখনও পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি।তবে সন্দেহ উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।এর আগে, গত ১৯ অক্টোবরই ‘আটিয়েলা বাইলিঙ্গুয়াল হাইস্কুল’থেকে পাঁচ শিক্ষার্থীকে অপহরণ করেছিল বন্দুকধারীরা। এখনও পর্যন্ত অপহৃতদের খোঁজ মেলেনি।

সূত্র: আনন্দবাজার

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: