মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বুধবার সিলেটে সংস্কারকৃত শিশু আদালতের উদ্বোধন  » «   আজ হবিগঞ্জের লাখাই কৃষ্ণপুর গণহত্যা দিবস  » «   বুধবার মৌলভীবাজারে অর্ধদিবস হরতালের ডাক, প্রতিহতের ঘোষণা আ. লীগের  » «   গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র উপ-নির্বাচন: প্রতীক বরাদ্দ আজ  » «   কারগারে মালির কাজ করছেন রাগীব আলী, ডিভিশনের আবেদন  » «   ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ১০ অক্টোবর  » «   কোটা ইস্যুতে আন্দোলনকারী ও ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি মিছিল  » «   আশুরা উপলক্ষে সুনির্দিষ্ট হুমকি নেই: ডিএমপি কমিশনার  » «   একনেকে অনুমোদন পেলো ইভিএম কেনা প্রকল্প  » «   জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে রিট  » «   ৫৬৮ কেজির লাড্ডু দিয়ে পালিত হল মোদির জন্মদিন  » «   দেশের সব নাগরিককে অধিকার রক্ষায় সক্রিয় হতে হবে-ড. কামাল  » «   ঐতিহাসিক পিয়ংইয়ং সফরে সস্ত্রীক প্রেসিডেন্ট মুন  » «   ২০১৭-১৮ অর্থবছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধি ৭.৮৬%  » «   মাদরাসা শিক্ষকের স্ত্রী ও ছাত্রকে গলাকেটে হত্যা  » «  

‘সোনালি ব্যাগের’ মালিকানা স্বত্ব বাংলাদেশে রাখার সুপারিশ



নিউজ ডেস্ক:: পাটজাত পলিথিন ‘সোনালি ব্যাগ’ এর মালিকানা স্বত্ব যাতে বাংলাদেশে থাকে সেই বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার তাগিদ দিয়েছে সংসদীয় কমিটি। এছাড়া কারিগরি, আর্থিক ও আইনগত দিক বিবেচনা করে বাণিজ্যিকভাবে পণ্যটি বাজারজাত করার লক্ষ্যে একটি টাস্কফোর্স গঠনেরও সুপারিশ করে কমিটি।

সোমবার বিকেলে জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ২৯তম বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা ও সাবিনা আক্তার তুহিন অংশ নেন।

সূত্র জানায়, বৈঠকে পাটজাত পলিথিন ‘সোনালি ব্যাগ’ প্রকল্পের কারিগরি ও আর্থিক সম্ভাব্যতা বিষয়ে আলোচনা করা হয়। পাট থেকে পলিথিনের বিকল্প হিসেবে পচনশীল পলিব্যাগ উৎপাদনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনে‘সোনালি ব্যাগ’ প্রকল্পের পাইলট উৎপাদন বর্তমানে চলমান রয়েছে। প্রতিদিন প্রায় তিনশ’ পিস ব্যাগ উৎপাদন করা সম্ভব হচ্ছে বলে বৈঠকে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া ভবিষ্যতে প্রতিদিন প্রায় ১০ টন অর্থাৎ ৫ লাখ পিস ‘সোনালি ব্যাগ’ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর ফলে প্রশাসনিক ব্যয় এবং মেশিনের অবচয় মূল্য ইউনিট প্রতি কমে যাবে এবং ব্যাগের বাজার মূল্য ৭ থেকে ৮ টাকা নির্ধারণ করা সম্ভব হবে বলে বৈঠকে উল্লেখ করা হয়।

বৈঠকে পাট চাষিদের প্রত্যাশা অনুযায়ী সমগ্র দেশের পাট চাষিদের একটি পূর্ণাঙ্গ ডাটাবেজ তৈরির কাজ দ্রুত শেষ করার সুপারিশ করা হয়। এ সময় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের চেয়ারম্যান, পাট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, জেডিপিসির নির্বাহী পরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: