রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
মডেল থেকে জঙ্গি : ল্যাপটপে চাঞ্চল্যকর তথ্য!  » «   ‘উত্তর কোরিয়ার পাগলকে শিক্ষা দিতে যাচ্ছি’  » «   বাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১, দগ্ধ ২  » «   সাপাহারে দূর্গা পূজার প্রতিমা তৈরীর কাজ শেষ: বাঁকী প্রতিমার সাজ সজ্জা  » «   দিনাজপুরে বজ্রপাতে ৮ জনের মৃত্যু  » «   এবার ধর্ষণের অভিযোগে ফলপ্রিয় ‘ফলাহারি বাবা’ গ্রেফতার  » «   ‘হালে পানি না পেয়ে প্রধানমন্ত্রীর নিখুঁত প্রচেষ্টায় খুঁত ধরার অপচেষ্টা বিএনপির’  » «   মেক্সিকোয় ভূমিকম্পে ৮ বিদেশি নাগরিক নিহত  » «   আবেগ লুকিয়ে রাখা মোটেও বুদ্ধিমানের কাজ নয়  » «   খুলনায় ‘চিংড়িতে জেলি’ পুশের অভিযোগ  » «   আমেরিকায় একই ফ্রেমে বাংলাদেশের ৮ তারকা  » «   পাকিস্তানি ব্যাংকে দুর্নীতি: কয়েকজন বাংলাদেশি জড়িত  » «   তথ্য প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে: ড. জাফর ইকবাল  » «   উ. কোরিয়ায় কম্পন, ফের পারমাণবিক পরীক্ষা!  » «   পানিতে ডুবে স্বামী পরিত্যক্তার মৃত্যু  » «  

সেলাই কাটার পর কেমন আছে জোড়া শিশু?



নিউজ ডেস্ক::অস্ত্রোপচারে পৃথক করা গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের ১০ মাস বয়সি জোড়া শিশু তোফা ও তহুরা এখন ভাল আছে।

বুধবার (১৬ আগস্ট) তাদের সেলাই কাটা হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার অথবা শুক্রবার তাদের প্রস্রাবের রাস্তার নলও খুলে দেয়া হতে পারে।

শিশু দুটির বর্তমান অবস্থা সম্পের্ক জানতে চাইলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাহনূর ইসলাম বলেন, ওরা এখন ভাল আছে। আজ ওদের সেলাই কাটা হয়েছে। খাবার দাবার ঠিকমত চলছে। অন্য কোন সমস্যাও নেই। তবে আরো কয়েকদিন ওদের হাসপাতালে থাকা লাগবে।

পরবর্তী চিকিৎসা সম্পর্কে তিনি বলেন, ক্যাথেটার আছে, ক্যাথেটার খোলা হবে। প্রস্রাবের রাস্তায় নল দেয়া আছে ওটা খুলতে হবে। নল খোলার আগে গ্লাপ করা হয়। আমরা গ্লাপ করা শুরু করেছি। অবস্থা বুঝে আগামীকাল বা পরশু নল খোলা হবে হয়তো।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর তোফা ও তহুরার জন্ম হয়। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দহবন্দ ইউনিয়নের ঝিনিয়া গ্রামের রাজু মিয়া ও শাহিদা বেগমের জোড়া সন্তান তোফা ও তহুরা। গত ৭ অক্টোবর ৯ দিন বয়সে জোড়া শিশু দুটিকে চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করে জোড়া শিশু দুটির প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করা হয়।
তখন ছোট একটি অপারেশনের মাধ্যমে তাদের পায়খানার রাস্তা আলাদা করে দেয়া হয়। এরপর তাদেরকে শুধু প্রাথমিক চিকিৎসা ও পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। দীর্ঘ ১০ মাস প্রাথমিক চিকিৎসা ও পর্যবেক্ষণে রাখার পর গত ২ আগস্ট তৌফা ও তহুরার অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকরা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: