বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবলিক পরীক্ষার সব ফি দেবে সরকার  » «   বাচ্চারা সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে ইভিএম, দাবি লালুপুত্রের  » «   আগামীকাল প্রাথমিকের প্রথম ধাপের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা  » «   পরাজিত হওয়া মানেই হার নয়: মমতা  » «   কুলাউড়ায় ওজন বাড়াতে চিংড়িতে বিষাক্ত জেলি!  » «   শতবর্ষী বৃদ্ধাকে ধর্ষণ: ‘আমাকে ছেড়ে দাও, আমি রোজা রাখছি’  » «   কিছুটা সময় লাগলেও ইসরাইল-আমেরিকার পতন অনিবার্য: ধর্মীয় নেতা  » «   মেয়াদোত্তীর্ণ সেমাই ও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার তৈরি: সিলেটে ওয়েল ফুডকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   একক দল হিসেবেই ম্যাজিক ফিগারে মোদির বিজেপি!  » «   পারিবারিক কলহে সৎ মাকে কুপিয়ে জখম করেছে ছেলে  » «   রাজস্ব কর্মকর্তা হিসেবে ১০ হাজার শিক্ষার্থীকে নিয়োগ দেয়া হবে: অর্থমন্ত্রী  » «   পবিত্র কোরআন কেটে ভেতরে ইয়াবা পাচার, ৩ রোহিঙ্গা আটক  » «   গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের চার জন নিহত  » «   খালেদার কারামুক্তি, এবারও ‘হ্যান্ডল’ করতে পারেনি বিএনপি!  » «   বালিশ মাসুদের খোলা চিঠি  » «  

সুধীরের খেলা দেখার ব্যবস্থা করলেন পাকিস্তানের সেই ‘চাচা’



স্পোর্টস ডেস্ক:: ভারত-পাকিস্তানের মহারণের বাকি কয়েক ঘণ্টা। কিন্তু তার আগেই মাঠের বাইরে ম্যাচের বিজয় নির্ধারিত হয়ে গেল। ভারত ও পাকিস্তান দু’দলই সেখানে জয়ী। সৌজন্য ও সম্প্রীতির মোড়কে বাঁধা পড়ে গেল দুই প্রতিবেশী দেশই।

শচীন টেন্ডুলকারের অঘোষিত ‘ফ্যান নম্বর ওয়ান’ সুধীর গৌতমের কাছে টাকাই ছিল না আরব আমিরাতে গিয়ে ভারত-পাকিস্তানের ক্রিকেট ম্যাচ উপভোগ করার। তবে শেষ পর্যন্ত সুধীরকে ম্যাচ দেখতে যাওয়ার সমস্ত বন্দোবস্ত করে দিচ্ছেন পাকিস্তানের ‘চাচা’।

ওয়াসিম আকরাম থেকে সরফরাজ খানের হাত ধরে পাকিস্তান ক্রিকেট পেরিয়ে এসেছে বহু পথ। মাঠে সবুজ জার্সিতে চির পরিচিত ক্রিকেটাররা নামলেই গ্যালারিতে হিল্লোল তোলেন বশির ‘চাচা’। ‘চাচা’ই হয়ে উঠেছিলেন পাকিস্তানি সমর্থকদের মুখ, ঠিক সুধীর গৌতমের মতোই। ক্রিকেট ময়দানে তিনি পরিচিত আবার ‘চাচা চিকাগো’ নামেও।

সেই চাচা-র সৌজন্যেই এবার দুবাইয়ের বিমানে উঠলেন সুধীর। অর্থের কোনও সংস্থানই ছিল না সুধীরের কাছে। প্রায় সমস্ত আশা যখন শেষ হতে চলেছে, তখনই সুধীরকে ফোন করেন বশির চাচা। জানতে চান প্রিয় বন্ধুর অবস্থা। সুধীর নিজের আর্থিক দুরবস্থার কথা জানান পাকিস্তানি বন্ধুকে।

বন্ধুর আর্থিক অবস্থার কথা শুনে আর দেরি করেননি। সরাসরি বিমানের টিকিট আর প্রয়োজনীয় অর্থের বন্দোবস্ত করে দেন। ভারতের এক প্রচার মাধ্যমে চাচা জানান, ভালোবাসার জন্যই এমন সাহায্য। আল্লার দোয়ায় টাকা আসবে, যাবে। আমি সবকিছু শুনে সুধীরকে বললাম, টাকার সংস্থান হয়ে যাবে। তুমি শুধু এখানে এসো। আমি খুব ধনী নই। তবে আমার হৃদয় সমুদ্রের মতোই বড়। যদি সুধীরকে সাহায্য করি, তাহলে সর্বশক্তিমানই খুশি হবেন।

পরে সুধীর জানান, ভিসা’র বিষয়টি মিটিয়ে ফেলেছি। চাচা’ই আমাকে সমস্ত টিকিটের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। হোটেল, খাবার সমস্ত খরচ চাচাই দিচ্ছেন। জাতীয় দলকে যাতে গ্যালারি থেকে সমর্থন জানাতে পারি, তাই উনি সবকিছু করেছেন।দু’দেশের রাজনৈতিক উত্তাপ থাকতে পারে, মতানৈক্য থাকতে পারে। তবে দু’দেশের মানুষের হৃদয়ও রয়েছে। সুধীর-চাচা এপিসোডেই প্রমাণ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: