সোমবার, ১৫ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
টিকটক ভিডিও বানাতে গিয়ে নদীতে ঝাঁপ, ৪৮ ঘণ্টা পর লাশ উদ্ধার  » «   ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে সিলেট পিজিএস’র মানববন্ধন  » «   সিলেটে হোমিও শিক্ষায় বেড়েছে আগ্রহ,সহযোগিতায় সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা  » «   ভারী বৃষ্টিপাতে সিলেটের পাহাড়ি এলাকায় ধসের পূর্বাভাস  » «   জীবন দিয়ে হলেও এরশাদের মরদেহ রংপুরে আটকে দেয়ার ঘোষণা  » «   শেষ মুহূর্তে থেমে গেল ভারতের চন্দ্রযান ২-এর অভিযান  » «   এবার সংবাদ সম্মেলনে মুখ খুললেন মিন্নি  » «   হজ নিয়ে সৌদি-কাতার পাল্টাপাল্টি অভিযোগ  » «   এরশাদের সন্তানরা কে কোথায়  » «   ওবামার সঙ্গে জেদের কারণেই ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি বাতিল!  » «   প্রধানমন্ত্রী সময় দিলে জুলাইয়েই ই-পাসপোর্ট উদ্বোধন  » «   লাইফ জ্যাকেট ছাড়াই পাঁচদিন বঙ্গোপসাগরে ভারতীয় জেলে! উদ্ধার চট্রগ্রামে  » «   বাংলাদেশের আর্থিক অন্তর্ভুক্তির প্রশংসায় রানী ম্যাক্সিমা  » «   অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানে ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলা  » «   পদোন্নতি পেয়ে মন্ত্রী হচ্ছেন সিলেটের ইমরান আহমদ  » «  

সিলেট ওসমানী হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার



নিউজ ডেস্ক:: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত চিকিৎসক হলেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. হাবিব উল্লাহ খাঁন।

তিনি মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার বাঘড়া গ্রামের মৃত মো. জাফর উল্লাহ খাঁনের ছেলে। সোমবার (৮ জুলাই ) সন্ধ্যায় শামিমাবাদ এলাকার একটি ফ্লাটবাসা থেকে ঐ চিকিৎসকের মৃতদেহ উদ্ধার করে এসএমপি’র কোতয়ালি থানা পুলিশ সূত্র।

সূত্র জানায়, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. হাবিব উল্লাহ খাঁন ভাড়া বাসা নিয়ে শামিমাবাদ এলাকার একটি ফ্লাট বাসায় একা থাকতেন।

প্রতিদিনের মতো তিনি রাতে তার ফ্লাটের বাসার দরজা বন্ধ করে ঘুমাতে যান। কিন্তু পরদিন সকালে হাসপাতালে তার ডিউটি থাকার পরও তিনি হাসপাতালে না যাওয়ায়, তার ব্যক্তিগত মোবাইলে বার বার যোগাযোগ করা হলেও পাওয়া যায়নি।

পরবর্তিতে সোমবার সন্ধ্যা ৭ টায় ওসমানী হাসপাতালের চিকিৎসক ও কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ এবং স্থানিয়রা মিলে শামিমাবাদের ফ্লাটে গিয়ে দরজা ভেঙ্গে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার করেন। লাশটি ওসমনী হাসপাতালের নিয়ে আসা হয় । বর্তমানে চিকিৎসকের লাশটি হাসপাতালের হিমাঘরে রাখা হয়েছে।

মৃত হাবিবুল্লার দুই ছেলে সন্তান ও স্ত্রী রয়েছেন। স্ত্রী একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। তিনি ঢাকায় একটি হাসপাতালে দ্বায়িত্ব পালন করছেন।লাশ উদ্ধারের সময় সাথে থাকা কোতয়ালি থানার এসআই দিবাংশু পাল জানান, তারা খবর পেয়ে শামিমাবাদ এলাকায় গিয়ে চিকিৎসক হাবিব উল্লার বাসার দরজা ভেঙ্গে মৃতদেহ বিছানায় শোয়াবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

এসএমপি’র কোতয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সেলিম মিঞা জানান,ওসমানী হাসপাতালের চিকিৎসক মারা যাওয়ার খবর শোনে ফোর্সসহ শামিমাবাদ এলাকায় গিয়ে ফ্লাট দরজা ভেঙ্গে লাশ উদ্ধার করা হয়।এসময় ওসমানী হাসপাতালের চিকিৎসকরা, ফ্লাট বাসার মালিক ও স্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন। তিনি আরো জানান, মৃতদেহ দেখে মনে হয়েছে এটি স্বাভাবিক মৃত্যু।

উল্লেখ্য, ডা. মো. হাবিব উল্লাহ খাঁন সুনামগঞ্জের ছাতক সিমেন্ট ফ্যাক্টরী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি , সিলেট মুরারী চাঁদ (এমসি) কলেজ থেকে এইচএসসি ও সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ থেকে এম বি এস পাশ করেন। পরবর্তিতে তিনি ওসমানী মেডিকেল থেকে শিশু সার্জারীর উপর এমএস অর্জন করেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: