বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রধানমন্ত্রী অষ্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন বৃহস্পতিবার  » «   রুয়েট বাস চালককে হত্যা  » «   কান চলচ্চিত্র উৎসবে ‘পোড়ামন ২’  » «   ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতির মূলহোতা গ্রেফতার  » «   বিএনপির মানববন্ধনে নেতাকর্মীরর ঢল  » «   সমকামী তরুণীকে বিয়ে করলেন সাবেক মিস আমেরিকা!  » «   আতঙ্কিত হয়েই খালেদা জিয়াকে জেলে বন্দি  » «   পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিজেই গর্তে পড়েছেন  » «   ময়মনসিংহ-৩ গৌরীপুরআসন ধরে রাখতে মরিয়া আ.লীগ, পুনঃরুদ্ধার চায় বিএনপি  » «   বিডি জবসের সিইও ফাহিম মাশরুর গ্রেফতার  » «   চেকপোস্ট বসিয়ে : রোহিঙ্গা তল্লাশির নামে স্থানীয়দের হয়রানি, সড়ক অবরোধ  » «   বিএনপির হুঁশিয়ারি : খালেদাকে মুক্তি না দিলে দেশে নির্বাচন হবে না  » «   তারেক জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক  » «   পতাকা অবমাননা ও ভুয়া জন্মদিন পালন : খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি ১৭ মে  » «   সিনেমায় এসে নাম বদলেছেন যেসব নায়ক-নায়িকা  » «  

সিরিয়ায় হামলার পরিণতি ভোগ করতে হবে: আমেরিকায় নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::আমেরিকায় নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আনাতোলি অ্যান্তানভ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, সিরিয়ায় সমন্বিত হামলার জন্য আমেরিকা ও তার মিত্রদের পরিণতি ভোগ করতে হবে। এ খবর দিয়েছে পার্সটুডে।

তিনি গতকাল (শুক্রবার) রাতে এক বিবৃতিতে বলেছেন, সিরিয়ায় হামলার জন্য রাশিয়া হুমকি অনুভব করছে এবং মস্কো মনে করে সিরিয়ায় যে রাসায়নিক হামলার কথা বলে সামরিক আগ্রাসন চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা ছিল সাজানো নাটক। তিনি জোর দিয়ে বলেন, “পূর্ব-পরিকল্পিত চিত্রের বাস্তবায়ন করা হয়েছে এবং আমরা এতে হুমকি অনুভব করছি। আমরা সতর্ক করছি যে, এ ধরনের হামলার জন্য পরিণতি ভোগ করতে হবে।” অ্যান্তানভ বলেন, “এ হামলার সমস্ত দায়-দায়িত্ব নিতে হবে ওয়াশিংটন, লন্ডন ও প্যারিসকে।”

রাশিয়ার বার বার হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ায় সামরিক হামলা চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন। হামলার আগে সিরিয়ায় মোতায়েন রুশ বাহিনীকে কোনো রকমের আগাম খবর দেয়া হয় নি।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করছেন, সিরিয়া যাতে রাসায়নিক অস্ত্রের উৎপাদন, বিস্তার ও ব্যবহার করতে না পারে সেজন্য এই হামলা। এ বক্তব্যের জবাবে রুশ রাষ্ট্রদূত অ্যান্তানভ বলেন, আমেরিকা হচ্ছে রাসায়নিক অস্ত্রের সবচেয়ে বড় মজুদকারী দেশ এবং অন্যকে দোষারোপ করার নৈতিক কোনো অধিকার তার নেই।

রাসায়নিক হামলার ঘটনা খতিয়ে দেখার জন্য সিরিয়ায় যখন আন্তর্জাতিক তদন্ত দল পৌঁছেছে তার কিছুক্ষণ পরই এ হামলা হলো। এর অর্থ হলো আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স রাসায়নিক হামলার অভিযোগ করছে কিন্তু আন্তর্জাতিক তদন্তের কোনো গুরুত্ব দিচ্ছে না।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: