সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নিলামে উঠছে টাইটানিকের সাড়ে পাঁচ হাজার নিদর্শন  » «   নতুন সরকার এলেও অর্থনীতিতে প্রভাব পড়বে না  » «   গিনেস ওয়ার্ল্ড বুকে স্থান পেলো ‘ঢাকা পরিচ্ছন্নতা অভিযান’  » «   ফিলিপাইনে ভূমিধস : নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯৫, নিখোঁজ ৫৯  » «   গোপন বৈঠক চলাকালে বিশ্বনাথে লোকমানসহ জামায়াতের ১৭ নেতাকর্মী আটক  » «   ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে নাক গলানোর অধিকার নেই জাতিসংঘের’–মিয়ানমার সেনাপ্রধান  » «   খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়টি স্পর্শকাতর: হাইকোর্ট  » «   মুসলিম বিশ্ব বিপজ্জনক চ্যালেঞ্জর মুখে: সৌদি বাদশাহকে এরদোয়ানের হুঁশিয়ারি  » «   ‘জগাখিচুড়ি মার্কা ঐক্য টিকবে না’–কাদের  » «   ইমরানের এক টুইটেই দরজা বন্ধ!  » «   কুচকাওয়াজে হামলার প্রতিশোধে ইরানকে সহযোগিতা করবে রাশিয়া  » «   ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন: ৩ উৎকণ্ঠা ৩ দাবি  » «   টেস্টে উত্তীর্ণ না হলে মূল পরীক্ষায় বসার সুযোগ নেই  » «   সরকার উৎখাতে দুর্নীতিবাজরা জোট বেঁধেছে: প্রধানমন্ত্রী  » «   জাতীয় নির্বাচন শান্তিপূর্ণ না হওয়ার কারণ দেখছি না: বনমন্ত্রী  » «  

সিরিয়ায় হামলার পরিণতি ভোগ করতে হবে: আমেরিকায় নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::আমেরিকায় নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আনাতোলি অ্যান্তানভ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, সিরিয়ায় সমন্বিত হামলার জন্য আমেরিকা ও তার মিত্রদের পরিণতি ভোগ করতে হবে। এ খবর দিয়েছে পার্সটুডে।

তিনি গতকাল (শুক্রবার) রাতে এক বিবৃতিতে বলেছেন, সিরিয়ায় হামলার জন্য রাশিয়া হুমকি অনুভব করছে এবং মস্কো মনে করে সিরিয়ায় যে রাসায়নিক হামলার কথা বলে সামরিক আগ্রাসন চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা ছিল সাজানো নাটক। তিনি জোর দিয়ে বলেন, “পূর্ব-পরিকল্পিত চিত্রের বাস্তবায়ন করা হয়েছে এবং আমরা এতে হুমকি অনুভব করছি। আমরা সতর্ক করছি যে, এ ধরনের হামলার জন্য পরিণতি ভোগ করতে হবে।” অ্যান্তানভ বলেন, “এ হামলার সমস্ত দায়-দায়িত্ব নিতে হবে ওয়াশিংটন, লন্ডন ও প্যারিসকে।”

রাশিয়ার বার বার হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ায় সামরিক হামলা চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন। হামলার আগে সিরিয়ায় মোতায়েন রুশ বাহিনীকে কোনো রকমের আগাম খবর দেয়া হয় নি।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করছেন, সিরিয়া যাতে রাসায়নিক অস্ত্রের উৎপাদন, বিস্তার ও ব্যবহার করতে না পারে সেজন্য এই হামলা। এ বক্তব্যের জবাবে রুশ রাষ্ট্রদূত অ্যান্তানভ বলেন, আমেরিকা হচ্ছে রাসায়নিক অস্ত্রের সবচেয়ে বড় মজুদকারী দেশ এবং অন্যকে দোষারোপ করার নৈতিক কোনো অধিকার তার নেই।

রাসায়নিক হামলার ঘটনা খতিয়ে দেখার জন্য সিরিয়ায় যখন আন্তর্জাতিক তদন্ত দল পৌঁছেছে তার কিছুক্ষণ পরই এ হামলা হলো। এর অর্থ হলো আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স রাসায়নিক হামলার অভিযোগ করছে কিন্তু আন্তর্জাতিক তদন্তের কোনো গুরুত্ব দিচ্ছে না।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: