সোমবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা হাসপাতালের ৪০ শতাংশ চিকিৎসকই অনুপস্থিত : দুদক  » «   লিবিয়ায় নিয়ে নির্যাতন, মুক্তিপণ বাণিজ্য  » «   ২১ আগস্ট হামলা: সাবেক দুই আইজিপির জামিন  » «   নাইকো মামলার পরবর্তী শুনানি ৪ ফেব্রুয়ারি  » «   ডাকাতি চেষ্টার অভিযোগে এসআই আটক  » «   শরিকদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে আ.লীগের  » «   মালিতে জঙ্গি হামলায় জাতিসংঘের ১০ শান্তিরক্ষী নিহত  » «   ঘুষ নেয়ার মামলায় জামিন পেলেন নাজমুল হুদা  » «   আওয়ামী লীগ জনগণের আস্থার মর্যাদা রাখবে: প্রধানমন্ত্রী  » «   নৌবাহিনীর প্রধান হিসেবে নিয়োগ পেলেন আওরঙ্গজেব চৌধুরী  » «   আফগানিস্তানে গভর্নরের গাড়িবহরে আত্মঘাতী হামলা: নিহত ৮  » «   ফেসবুকে ‘#বিদায়’ স্ট্যাটাস দিয়ে তরুণের আত্মহত্যা!  » «   স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গিয়ে যেসব নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আরও ২৫০ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে সৌদি আরব  » «   ২৭ বছর থেকে নির্বাচনবিহীন এমসি কলেজ ছাত্র সংসদ  » «  

সাপাহার রিপোর্টার্স ফোরামে সংবাদ সম্মেলন



মনিরুল ইসলাম,সাপাহার(নওগাঁ)প্রতিনিধি: সাপাহার রিপোর্টার্স ফোরামে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার বিকেলে রিপোর্টার্স ফোরামে সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল আজিজ লিখিত বক্তব্যর মাধ্যমে সাংবাদিকদের জানান,গত ৬ইজুন রাত্রী আনুমানিক ১১টার দিকে তার ভাই আঃ সালাম(৪৮) উপজেলার হরিপুর মোড়ে দাঁড়িয়ে থাকলে প্রতিপক্ষ গ্র“পের বেশ কয়েকজন ব্যাক্তি পূর্ব শত্র“তার জের ধরে তার ভাইয়ের সাথে বিভিন্ন কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চড়াও হয়ে বেদম হারে মারপিট শুরু করে।পরবর্তী সময়ে যখন সে চিৎকার শুরু করে তখন আর ¯ত্রী আছিয়া বেগম(৪৫), ছেলে সোলেমান আলী (৩২)নুরুজ্জামান (৪০) সুলতান (২৩) নামের একই পরিবারের সকলে বের হয়ে আসলে তাদেরকেও প্রতিপক্ষরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারপিট করে জখম করে।বর্তমানে আছিয়া,সালাম ও নুরুজ্জামান রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। উল্লেখ্য যে আছিয়া বেগমের বাম হাতের দু’টি আঙ্গুল অপারেশন করে কেটে ফেলা হয়েছে।আর এ ঘটনার সূত্র ধরে সালামের পিতা হোসেন উদ্দীন(৮০) বাদী হয়ে সাপাহার থানায় ৭ জুন ২০.৩০ঘটিকায় ১১ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।মামলার আসামীরা হলো, উপজেলার চাঁচাহার গ্রামের মৃত আ. মান্নানের ছেলে মেহেদী(৪০), সোবহান (৪৮), আ. জব্বার(৪৬), ওহাব(৪২) ও একই গ্রামের আ. সামাদের ছেলে মশিউর রহমান(৩০),আলম(২৮),মোস্তাফিজ(২৭),অছির উদ্দীনের ছেলে মনা বাবু(৩২), কাশেমের ছেলে আরব(৩০),রাশেদ(৩৮) ও মৃত আব্দুল গনির ছেলে আব্দুস সামাদ(৬০)।যার নং-০৪,ধারা১৪৩/৩২৩/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৫৪/৩৭৯/৫০৬/১১৪। কিন্তু ওই দিনই ১ ঘন্টা পর প্রতিপক্ষ গ্র“পের লোকজন নিজেদের বাঁচার জন্য ১ ঘন্টা পর মশিউর রহমান বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।
তিনি আরও জানান, থানা পুলিশে মামলা করার পর টাকার জোরে মশিউরের মামলা ১ ঘন্টা পরে করার পরও তার মামলার তদ›ত হয়েছে। কিন্তু আমাদের দাখিলকৃত মামলার ব্যাপারে কোন পদক্ষেপই গ্রহন করেননি থানা পুলিশ। এই ধরণের ন্যক্কার জনক ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য রাখেন আব্দুল আজিজ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: