শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা  » «   সীমান্তের খালে মিয়ানমারের সেতু, বন্যার আশঙ্কা বাংলাদেশে  » «   দ্বিতীয় কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠাবে বাংলাদেশ: শাবিতে পরিকল্পনামন্ত্রী  » «   আতিয়া মহল মামলা: ৫ দিনের রিমান্ডে ৩ আসামি  » «   শেখ হাসিনা হত্যাচেষ্টা মামলা: হাইকোর্টে আপিল শুনানি শুরু  » «   টিআইবির রিপোর্টে সরকার ও ইসির আঁতে ঘা লেগেছে: বিএনপি  » «   মাফিয়াদের স্বর্গরাজ্যে দশ বাংলাদেশির অনন্য সাহসিকতার নজির  » «   ১৪ দলের শরিকদের বিরোধী দলে থাকাই ভালো: ওবায়দুল কাদের  » «   সন্ত্রাস-মাদক-জঙ্গিবাদের মতো দুর্নীতির বিরুদ্ধেও ‘জিরো টলারেন্স’ : প্রধানমন্ত্রী  » «   সংসদ সদস্যদের শপথের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ  » «   কৃত্রিম কিডনি তৈরি করলেন বাঙালি বিজ্ঞানী  » «   ব্রেক্সিট ইস্যু: অনাস্থা ভোটে টিকে গেলেন তেরেসা মে  » «   টিআইবির প্রতিবেদন গ্রহণযোগ্য নয়, পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করি: সিইসি  » «   জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে অফিস করছেন শেখ হাসিনা  » «   সংসদ কার্যকর রাখতেই বিরোধী দলে জাপা : জিএম কাদের  » «  

সাপাহার রিপোর্টার্স ফোরামে সংবাদ সম্মেলনে আপন বড় ভাইয়ের জালিয়াতীর কথা তুলে ধরেন ভুক্তভোগী ছোট ভাই



মনিরুল ইসলাম,সাপাহার(নওগাঁ)প্রতিনিধি: সাপাহার রিপোর্টার্স ফোরামে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আপন বড় ভাইয়ের জালিয়াতীর বিভিন্ন সময়ের বিভিন্ন নজীর তুলে ধরে সাংবাদিকদের সামনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন প্রায় ১৩/১৪ বছর থেকে ভুক্তভোগী ছোটভাই ফজলুর রহমান।
শুক্রবার সকালে সংবাদ সম্মেলনে তার লিখিত বক্তব্য সাংবাদিকদের জানান, তার আপন বড় ভাই কুখ্যাত জালিয়াত নিজামউদ্দীন একজন স্বার্থান্বেসী এবং দলিল জালের শুধু সাপাহারের নয় উত্তরবঙ্গের এক দৃষ্টান্তমূলক নজীর। এই জালিয়াত নিজামউদ্দীনের হাতে তৈরীকৃত জাল দলিলের ৭টির প্রমান রয়েছে। এছাড়াও কতগুলো জাল দলিল রয়েছে যা হয়তবা অনেকের অগোচর। শুধু তাই নয় সে একজন পাকিস্তানী ষ্ঠ্যাম্প বিক্রেতা যা পাকিস্তান আমলের ভূয়া দলিল করতে সহায়তা করে। যাতে চোরাকারবারীর মধ্যেও পড়ে ওই মানুষ রূপী অমানুষ নিজাম। সে জাল দলিলগুলোকে পুঁজি করে তার আপন ছোটভাই সহ এলাকার অনেক গরীব অসহায় মানুষকে তার তীব্র প্রতারণার বেড়া জালে আবদ্ধ করে রেখছে।। শুধু তাই নয়, এই জাল দলীল গুলোকে ভিত্তি করে ছোট ভাই ফজলুর উপর দিনের পর দিন বিভিন্ন মামলা হয়রানী ও পেরেশানীর মধ্যে ফেলেছেন ওই জালিয়াত নিজাম। নিজেকে বাঁচানোর জন্য কাউন্টার মামলা প্রদান করতে বাধ্য হয়েছেন ভুক্তভোগী ছোট ভাই ফজলু। দীর্ঘ ১৪/১৫ বছর যাবৎ ২৫/২৬টি মামলার ঘানি টানতে গিয়ে নিপীড়িত ফজলুর রহমান আজ নিঃস্ব প্রায়। আরও একটি বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিজামের বাবা কাফিজ উদ্দীন মৃত্যুর আগে তার ছোট দুই ভাই ফজলু ও জামানের নামে হাটশাওলী মৌজার কিছু জমি রেকর্ড করে দেন। ফজলু প্রবাসে থাকার ফলে ওই জালিয়াত নিজাম রেকর্ড সংশোধন মামলা করে একতরফা ডিক্রী নিয়ে উক্ত জমি থেকে ওই দুই ভাইকে বঞ্চিত করে দেয়। ১৯৬৮ সালের একটি দলিলকে কেন্দ্র করে তার বাবার কাছ থেকে স্বাক্ষর নকল করে পিতার জেলা নওগাঁ ও পুত্রের জেলা রাজশাহী তৈরী করে যার দলিল নং ১০৬৫ তাং ৬/০২/৬৮। পরবর্তীতে আবারও ওই একই নাম্বারের দলিল ভুয়া সংশোধন করে দাতা ও গ্রহীতার জেলা ও তফশীল পুরোটাই সংশোধন করে। পরবর্তী সময়ে ফজলুর প্রশ্ন আসে যে, একই দাতা, একই গ্রহীতা, একই নাম্বারের দলিল কি ভাবে দুটি হতে পারে? আর এর একমাত্র উত্তর ওই নামধারী কথিত জালিয়াত নিজাম নিজেই জানে। পরবর্তীতে যেসব দাতাদের কাছ থেকে জমি গুলো জাল করে নেয়, তারা এফিডেফিট প্রদান করে বলেন যে, তারা কোন প্রকার দলিলে স্বাক্ষর করেননাই বরং এসব যোগসাজসী ও ভুয়া দলিল। জালিয়াতীর কবলে পড়া ফজলু আরেকটি বিষয় আক্ষেপ কন্ঠে জানান, ‘আমি সুদুর প্রবাসে থাকা অবস্থায় আমার বাবা কাফিজ উদ্দীন একটি ঘরোয়া বাটোয়ারা করে দেন সে মতে একটি জমি আমার অংশে পড়ে । বাবা মারা যাওয়ার পরে সে দলিল রদের মামলা করে। যা আপিলে অদ্যবধি ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে। আর মামলা চলা অবস্থায় আমি মারা গেলে সে রাম রাজ্য পেয়ে যাবে। কারন ওই নিজাম ভালো ভাবে জানে যে আমার ছেলে সন্তান নেই, মেয়েরা শ্বসুরবাড়ী থেকে এসব মামলা চালাতে পারবেনা এটাও জানে ওই কুখ্যাত জালিয়াত নিজাম’।
এ ধরণের জালিয়াতীর আরও অনেক নজীর আছে বলে জানান, ভুক্তভোগী ফজলুর রহমান। এবং সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ওই জালিয়াতের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী সহ এসব মামলা থেকে অব্যতি দিয়ে সুষ্ঠ বিচারের জোর দাবী জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: