রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর প্রস্তাব, ক্ষুব্ধ নগরবাসী  » «   শহীদের সঙ্গে প্রেম ভাঙলো কার দোষে? মুখ খুললেন কারিনা  » «   বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা পেল সখীপুরের ২ হাজারের বেশি মানুষ  » «   সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের বড় অস্ত্রের চালান নিখোঁজ  » «   মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশকালে আটক ৪  » «   হামলাকারীকে ক্ষমা করে দিলেন লন্ডনের সেই মুয়াজ্জিন  » «   ঋণখেলাপিদের অর্থ কোথায় যায়  » «   ভাষা দিবসে কলাগাছের শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা  » «   এক হাজার কোটি টাকা দিতে রাজি জিপি  » «   সেই জার্মান বন্দুকধারীর হিটলিস্টে বাংলাদেশিরা  » «   আরব আমিরাতে করোনাভাইরাসে বাংলাদেশি আক্রান্ত  » «   আগুনে ১০ ঘর পুড়ে ছাই  » «   ঈশ্বরদীতে বাস-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২  » «   চট্টগ্রামে ১৪ হাজার ইয়াবাসহ সেনাসদস্য আটক  » «   ভারতে দুই স্বর্ণখনির সন্ধান, মজুত ৩৩৫০ টন  » «  

সাকিবের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে অবশেষে আফগান বধ বাংলাদেশের



স্পোর্টস ডেস্ক:: আফগানিস্তানের দেওয়া ১৩৯ রানের মামুলি স্কোর তাড়া করতে নেমে মাত্র ১২ রানে দুই ওপেনারের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় বাংলাদেশ। সেই অবস্থা থেকে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে দলকে খেলায় ফেরানোর পাশাপাশি জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন সাকিব আল হাসান। তার ৪৫ বলের অপরাজিত ৭০ রানের ইনিংসে ভর করে ৪ উইকেটে জয় পায় টাইগাররা।

শনিবার চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ষষ্ঠ ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ১৩৯ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান। সহজ টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরুতেই বিপাকে পড়ে যায় বাংলাদেশ। মাত্র ১২ রান সংগ্রহ করতেই সাজঘরে ফেরেন দুই ওপেনার লিটন দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত। আগের তিন ম্যাচে ১৯, ০ ও ৩৮ করা লিটন এদিন ফেরেন মাত্র ৪ রানে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আগের ম্যাচে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকে ১১ রান করেছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। শনিবার ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে নেমে মাত্র ৫ রানে ফেরেন ২১ বছর বয়সী এ ওপেনার। দুই ওপেনারের বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসান। তৃতীয় উইকেট জুটিতে তারা ৫৮ রান যোগ করেন। দলীয় ৭০ রানে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন মুশফিক। তার আগে ২৫ বলে ২৬ রান করেন জাতীয় দলের এ নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান।

মুশফিকের বিদায়ের পর থেকেই আসা-যাওয়ার মিছিলে অংশ নেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান রুম্মন ও আফিফ হোসেনরা। ১৫.৫ ওভারে দলীয় ১০৪ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন তরুণ অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন।

শেষ দিকে জয়ের জন্য ২৫ বলে প্রয়োজন ছিল ৩৫ রান। আট নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নামা মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে সঙ্গে নিয়ে ঠান্ডা মাথায় ব্যাটিং করে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন সাকিব আল হাসান। দলের জয়ে ৪৫ বলে ৮টি চার ও এক ছক্কায় হার না মানা ৭০ রানের ইনিংস খেলেন সাকিব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: