বুধবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
১৫ আগস্ট কেন ভারতের স্বাধীনতা দিবস?  » «   খালেদার জন্মদিনে ফখরুল‘প্রাণ বাজি রেখে লড়াই করতে হবে’  » «   রাজধানীতে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু  » «   ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট  » «   ঢাকায় ইলিশের কেজি মাত্র ৪০০ টাকা!  » «   অস্ট্রেলিয়ান সিনেটে প্রথম মুসলিম নারী  » «   প্রধানমন্ত্রী নয়, ইসির নির্দেশনায় চলবে প্রশাসন : নাসিম  » «   সৌদি আরবে আরও ৫ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু  » «   মৃত পুরুষকে বিয়ে করলেন নারী, এরপর…  » «   যা করবেন সন্তানকে বুদ্ধিমান ও চটপটে বানাতে  » «   নিউইয়র্কে লাঞ্ছিত ইমরান এইচ সরকার  » «   কুরবানির গোশত অন্য ধর্মাবলম্বীকে দেওয়া যাবে?  » «   শাহরুখের গাড়ি-বাড়ি ও ঘড়ির দাম এত?  » «   ভ্যান চালিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নামে জমি, এরপর…  » «   মোবাইল ফোনে নতুন কলচার্জ নিয়ে যা বলছেন গ্রাহকরা  » «  

‘সাইফুর রহমান শিশু পার্ক’ নামের পরিবর্তে ‘শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’ !



ডেস্ক রিপোর্ট:: সিলেটের দক্ষিণ সুরমার আলমপুরে নির্মিত এম. সাইফুর রহমান শিশু পার্কের নাম মুছে শেখ হাসিনা শিশু পার্ক নামকরণের ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন সিলেট জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ। তাদের দাবি, পার্কটি যখন উদ্ধোধনের অপেক্ষায় সেই মুহুর্তে স্থাপনা থেকে সাইফুর রহমানের নাম মুছে ফেলা সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ। এ কারণে অবিলম্বে নাম পরিবর্তনের ষড়যন্ত্র পরিহারের করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

বুধবার এক বিবৃতিতে সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম ও সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ বলেন, ‘উন্নয়নের রুপকার এম. সাইফুর রহমানের হাতে দিয়েই বৃহত্তর সিলেটে উন্নয়নের বিপ্লব সাধিত হয়েছে। উন্নয়ন কর্মকান্ডের মাধ্যমে হাজার বছরের শ্রেষ্ট সিলেট প্রেমিক হিসেবে এম সাইফুর রহমান সিলেটের কোটি জনতার হৃদয়ে ঠাই করে নিয়েছেন। দুঃখজনক হলেও সত্য যে ক্ষমতাসীন সরকার সিলেটের বিভিন্ন স্থাপনা থেকে মরহুম এম সাইফুর রহমানের নাম মুছে দিয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় সিলেটের আলমপুরে নির্মিত এম সাইফুর রহমান পার্ক থেকে উন্নয়নের রুপকার সাইফুর রহমানের নাম মুছে সেখানে জননেত্রী শেখ হাসিনার নাম স্থাপন করা হয়েছে। এই ধরনের ন্যাক্কারজনক কর্মকান্ডে সিলেটবাসী বিস্মিত। শেখ হাসিনার নামে কিছু করতে আমাদের আপত্তি নেই। নতুন কিছু নির্মাণ করে তাতে শেখ হাসিনার নাম সংযোজন করতে পারেন। কিন্তু সাইফুর রহমানের হাতে গড়া কোন স্থানের নাম থেকে শ্রেষ্ট সিলেট প্রেমির নাম মুছে দেয়ার রাজনীতি সিলেটবাসী মেনে নিবেনা।’

তারা বলেন- ‘২০০৬ সালে তৎকালীন অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের প্রচেষ্টায় প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে দক্ষিণ সুরমার হবিনন্দী মৌজার ৩.৪৪ একর ভূমির উপর উক্ত শিশু পার্ক নির্মাণের কাজ শুরু হয়। মাটি ভরাট করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, পর্যাপ্ত আলোর জন্য বৈদ্যুতিক সাবস্টেশন স্থাপন, দৃষ্টিনন্দন তোরণ নির্মাণসহ পার্কের যাবতীয় কাজ ২০০৯ সালে শেষ হয়। অবকাঠামোগত দিক থেকে পুরোপুরি প্রস্তুত থাকা সত্তে¡ও ৮ বছর ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় ছিলো পার্কটি। অবশেষে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতায় পার্কের কাজ শেষ হয়েছে। কিন্তু পার্কটি যখন উদ্ধোধনের অপেক্ষায় সেই মুহুর্তে স্থাপনা থেকে সাইফুর রহমানের নাম মুছে ফেলা সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ শিশু পার্কটি সাইফুর রহমানের নামে বহাল রাখার এবং নাম পরিবর্তনের প্রতিহিংসার রাজনীতি পরিহার করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তারা।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: