সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ইতালির নাগরিকত্ব হারাতে পারেন ৩ হাজার বাংলাদেশি  » «   নবীগঞ্জে আগুনে পুড়ে ছাই ৫টি ঘর, ১২ লাখ টাকার ক্ষতি  » «   ছাত্রলীগের নতুন সভাপতি-সম্পাদকের প্রতিশ্রুতি  » «   শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে রণক্ষেত্র, আহত ৩০  » «   চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর  » «   মাসিক বেতনে চালক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের  » «   কাশ্মিরের মুসলমানদের ওপর নির্যাতন বন্ধের দাবিতে মৌলভীবাজারে বিক্ষোভ মিছিল  » «   হাজিদের দেশে ফেরার শেষ ফ্লাইট আজ  » «   আফগান সীমান্তে ৪ পাকিস্তানি সেনা নিহত  » «   ঈদের খরচ হিসেবে ‘ন্যায্য পাওনা’ চেয়েছিলাম: রাব্বানী  » «   পুলিশ সুপারদের কুচকাওয়াজে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  » «   ছাত্রলীগের নেতৃত্বে জয়-লেখক  » «   হিন্দি চাপিয়ে দিলে ভাষা যুদ্ধের হুমকি, রাজ্যে রাজ্যে প্রতিবাদ  » «   শিক্ষামন্ত্রীর কড়া চিঠি  » «   পরিবহন ধর্মঘটে বিপর্যস্ত প্যারিস; ৩৮০ কিমি ট্র্যাফিক জ্যাম!  » «  

সাংবাদিক প্রবীর সিকদারের মামলায় প্রথম দিনই সাক্ষী আসেনি



সাংবাদিক প্রবীর সিকদারের মামলায় প্রথম দিনই সাক্ষী আসেনি

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে দায়ের করা মামলায় সাংবাদিক প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধে প্রথম দিনই আদালতে সাক্ষী হাজির করতে পারেনি রাষ্ট্রপক্ষ। বৃহস্পতিবার মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য ছিল। আদালতে কোনো সাক্ষী হাজির করতে না পারায় রাষ্ট্রপক্ষ সময়ের আবেদন করে। পরে বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক কেএম শামসুল আলম সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ১৬ নভেম্বর দিন ধার্য করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, প্রবীর সিকদার ২০১৫ সালের ১০ আগস্ট তার ফেসবুকে ‘আমার জীবনের শঙ্কা তথা মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী থাকবেন’ এ শিরোনামে একটি স্ট্যাটাস দেন। শিরোনামের নিচে তার মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী থাকবেন- এমন তিনজনের নাম উল্লেখ করেন। এদের মধ্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রীর (এলজিআরডি) খন্দকার মোশাররফ হোসেনের নাম এক নম্বরে ছিল।

এ ধরনের স্ট্যাটাস দেয়ায় মন্ত্রীর মানহানি ঘটেছে ও ফৌজদারি অপরাধ সংঘঠিত হয়েছে বলে ২০১৫ সালের ১৬ আগস্ট প্রবীর সিকদারকে আসামি করে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে মামলা করেন জেলা পূজা উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা স্বপন পাল।

পরে ২০১৬ সালের ১৬ মার্চ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মনির হোসেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারায় সাংবাদিক প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করেন। ২০১৬ সালের ৪ আগস্ট প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালে বিচারক কে এম শামসুল আলম।

প্রবীর সিকদার বর্তমানে দৈনিক বাংলা ৭১, উত্তরাধিকার-৭১ নিউজ অনলাইন পত্রিকা ও উত্তরাধিকার নামের একটি ত্রৈমাসিক পত্রিকার সম্পাদক।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: