শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে নির্মাণ হতে যাচ্ছে স্মৃতিসৌধ,পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ডিও লেটার  » «   সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের ১০ ধাপ অবনতি  » «   জাফর ইকবালকে হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু  » «   আইডিয়া’র ২৫ বছর পূর্তি উৎসবে র‍্যালি, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান  » «   উন্নয়ন করতে গিয়ে জীবন ও জীবিকার যেন ক্ষতি না হয় : প্রধানমন্ত্রী  » «   আজ দিন রাত সমান, আকাশে থাকবে সুপারমুন  » «   সহকর্মীর হাতে খুন হলেন তিন ভারতীয় সেনা  » «   মসজিদে হামলাধারী ব্রেন্টন আইএস থেকে ভিন্ন কিছু নয়: এরদোগান  » «   সিলেটে মেশিনে আদায় হবে যানবাহনের মামলার জরিমানা  » «   গ্যাসের দাম ১৩২% বৃদ্ধির প্রস্তাব হাস্যকর  » «   মেয়রের আশ্বাসে ২৮ মার্চ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত  » «   দরিদ্র বলে এদেশে কিছু থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী  » «   এক সপ্তাহের মধ্যে আবরারের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ  » «   গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশি ওমরের মুখে মসজিদে হামলার লোমহর্ষক বর্ননা…  » «   আজ প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী,আ. লীগের শ্রদ্ধা  » «  

সংসদ নির্বাচনে মাশরাফি : কী বলছে ক্রিকেটীয় আইন?



নিউজ ডেস্ক:: রাজধানীর মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে চলছে বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ের সিরিজ নির্ধারনী টেস্ট ম্যাচ। দারুণ ব্যাটিংয়ে ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। কিন্তু এই ম্যাচের উত্তেজনা ছাড়িয়ে ক্রিকেট ভক্তদের কথা বলার বিষয় দাঁড়িয়েছে ক্রিকেট তারকাদের রাজনীতিতে আসা না আসার প্রসঙ্গটি। বিশেষ করে মাশরাফি বিন মুর্তজা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ নিয়ে ক্রিকেট ভক্তদের মধ্যে দেখা গিয়েছে নানা ধরণের প্রতিক্রিয়া।

গতকাল রবিবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। নিজ জেলা নড়াইল-২ আসনে প্রার্থিতার জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর শহরের উন্নয়নে কাজ করার কথা জানিয়েছেন তিনি।বাংলাদেশ ক্রিকেটে এই ঘটনা এবারই প্রথম। বিশ্বকাপের আগমুহূর্তে অধিনায়ক মাশরাফি বা অন্য কোনো ক্রিকেট খেলোয়াড়ের রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে বিসিবির কি কোন বিধিনিষেধ রয়েছে?

এমন প্রশ্নের জবাবে বিসিবির মুখপাত্র জালাল ইউনুস বলেন, ‘মাশরাফি তার ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়ে চলে এসেছেন। ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের পর তিনি খেলা থেকে রিটায়ার করবেন। এটা কোনো নিয়ম নাই যে, কোনো ক্রিকেটার রাজনীতি করলে খেলতে পারবেন না।’

তার মতে, ‘এটা যার যার সাংবিধানিক অধিকার। উনি যদি মনে করেন যে, রাজনীতির পাশাপাশি তিনি খেলাতেও পারফর্ম করতে পারবেন, তাহলে আমাদের কোনো নিয়ম নাই তাকে বাধা দেওয়ার। তাছাড়া মাশরাফিকে নির্বাচনী প্রচারণার জন্য এক মাস দেড় মাস ব্যস্ত থাকবেন। বাকিটা তিনি ম্যানেজ করে নেবেন।’

সুতরাং ক্রিকেট মাঠের ক্যাপ্টেন এখন নির্বিঘ্নেই রাজনীতির মাঠে নেতৃত্ব দেবেন। দেশকে অনেক ভালোবাসেন ম্যাশ। তার সব সাক্ষাতকারে উঠে আসে দেশের কথা, মানুষের কথা, মহান মুক্তিযুদ্ধের কথা আর কৃষক-শ্রমিকের কথা। এজন্যই তিনি দেশব্যাপী তুমুল জনপ্রিয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: