বুধবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিদ্যুতের ঋতুভিত্তিক চাহিদার অবসান ঘটাতে হবে: জ্বালানি উপদেষ্টা  » «   পদ্মা নদীর ওপারেই বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হবে  » «   স্যাটেলাইটে ধরা পড়ল সুন্দরবনের ৪০ একর বন উধাও!  » «   রহস্য খোলাসা করলেন সৌদি থেকে পালিয়ে আসা সেই তরুণী  » «   সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন ফরম কিনলেন তৃতীয় লিঙ্গের ৮ জন  » «   শাস্তির বদলে পদোন্নতি! লেক দূষণ রোধের ৫০ কোটি টাকা নয়ছয়  » «   ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ব্রেক্সিট চুক্তি প্রত্যাখ্যান  » «   প্রধানমন্ত্রীর সই জাল করে টাকা আত্মসাৎ!  » «   আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সম্মেলন শুরু ৮ ফেব্রুয়ারি  » «   এমপিদের শপথ গ্রহণের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিটের শুনানি বুধবার  » «   গায়েবি মামলা বলতে কিছু নেই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   মেধাবীরা আত্মহত্যা করে আর মেধাহীনরা জাতির ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করে  » «   ৫০ আসনের ৪৭টিতে অনিয়ম: টিআইবি  » «   টিলাগড় ইকোপার্ক: বাঘ-সিংহ নিয়ে কেবলই আশ্বাস!  » «   কোটা সংস্কার আন্দোলনের চার মামলায় প্রতিবেদন ১৪ ফেব্রুয়ারি  » «  

সংসদ নির্বাচনে মাশরাফি : কী বলছে ক্রিকেটীয় আইন?



নিউজ ডেস্ক:: রাজধানীর মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে চলছে বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ের সিরিজ নির্ধারনী টেস্ট ম্যাচ। দারুণ ব্যাটিংয়ে ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। কিন্তু এই ম্যাচের উত্তেজনা ছাড়িয়ে ক্রিকেট ভক্তদের কথা বলার বিষয় দাঁড়িয়েছে ক্রিকেট তারকাদের রাজনীতিতে আসা না আসার প্রসঙ্গটি। বিশেষ করে মাশরাফি বিন মুর্তজা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ নিয়ে ক্রিকেট ভক্তদের মধ্যে দেখা গিয়েছে নানা ধরণের প্রতিক্রিয়া।

গতকাল রবিবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। নিজ জেলা নড়াইল-২ আসনে প্রার্থিতার জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর শহরের উন্নয়নে কাজ করার কথা জানিয়েছেন তিনি।বাংলাদেশ ক্রিকেটে এই ঘটনা এবারই প্রথম। বিশ্বকাপের আগমুহূর্তে অধিনায়ক মাশরাফি বা অন্য কোনো ক্রিকেট খেলোয়াড়ের রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে বিসিবির কি কোন বিধিনিষেধ রয়েছে?

এমন প্রশ্নের জবাবে বিসিবির মুখপাত্র জালাল ইউনুস বলেন, ‘মাশরাফি তার ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়ে চলে এসেছেন। ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের পর তিনি খেলা থেকে রিটায়ার করবেন। এটা কোনো নিয়ম নাই যে, কোনো ক্রিকেটার রাজনীতি করলে খেলতে পারবেন না।’

তার মতে, ‘এটা যার যার সাংবিধানিক অধিকার। উনি যদি মনে করেন যে, রাজনীতির পাশাপাশি তিনি খেলাতেও পারফর্ম করতে পারবেন, তাহলে আমাদের কোনো নিয়ম নাই তাকে বাধা দেওয়ার। তাছাড়া মাশরাফিকে নির্বাচনী প্রচারণার জন্য এক মাস দেড় মাস ব্যস্ত থাকবেন। বাকিটা তিনি ম্যানেজ করে নেবেন।’

সুতরাং ক্রিকেট মাঠের ক্যাপ্টেন এখন নির্বিঘ্নেই রাজনীতির মাঠে নেতৃত্ব দেবেন। দেশকে অনেক ভালোবাসেন ম্যাশ। তার সব সাক্ষাতকারে উঠে আসে দেশের কথা, মানুষের কথা, মহান মুক্তিযুদ্ধের কথা আর কৃষক-শ্রমিকের কথা। এজন্যই তিনি দেশব্যাপী তুমুল জনপ্রিয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: