বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শুক্রবার শ্রীলঙ্কার মসজিদে হামলার হুমকি, নিরাপত্তা জোরদার  » «   মোটরসাইকেলে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যু  » «   প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রিতে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা  » «   নুসরাত হত্যা: তদন্তে বেরিয়ে আসছে পুলিশ কর্মকর্তাদের গাফিলতি  » «   সিলেটের সীমান্ত দিয়ে ঢুকছে রোগাক্রান্ত ভারতীয় গরু  » «   খালেদা জিয়া সরকারের আইনগত সহায়তা পাওয়ার যোগ্য নন: আইনমন্ত্রী  » «   পরীক্ষাকেন্দ্রে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, ইনস্ট্রাক্টর কারাগারে  » «   নিউজিল্যান্ডের পার্মানেন্ট ভিসা পাচ্ছেন মুসলিমরা!  » «   জাফর ইকবাল হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন মহানগর হাকিম হরিদাস কুমার  » «   কান্নাজড়িত কণ্ঠে স্ত্রী-সন্তান হারানোর বর্ণনা দিলেন সুদেশ  » «   বহুদিন গোসল না করে অফিস করেছি: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী  » «   দল বহিষ্কার করতে পারে জেনেই শপথ নিয়েছি: জাহিদুর রহমান  » «   এবার শ্রীলঙ্কায় আদালতের পাশে বোমা বিস্ফোরণ  » «   কবরের জন্য জমি চাইলে বন্দেমাতরম বলতেই হবে: বিজেপি  » «   এবার শপথ নিচ্ছেন বিএনপির জাহিদুর  » «  

সংসদে লুকিয়ে চকলেট খেয়ে ক্ষমা চাইলেন ট্রুডো!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: পার্লামেন্টে ভোটাভুটির সময় লুকিয়ে চকলেট খাচ্ছিলেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। ভেবেছিলেন কারও নজরে পড়বেন না। কিন্তু তার ধারণা ভুল হয়েছে। ট্রুডোর চকলেট খাওয়া প্রথম নজরে আসে কনজার্ভেটিভ সংসদ সদস্য স্কট রিডের। এরপরই তিনি স্পিকারের কাছে অভিযোগ করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভরা পার্লামেন্টে সবার সামনে উঠে দাঁড়িয়ে ঘটনার জন্য ক্ষমা চান কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। কারণ, পার্লামেন্ট হাউসে বসে লুকিয়ে চকলেট বা অন্য কোনও কিছু খাওয়া আইনত নিষিদ্ধ। আর এই নিয়ম লঙ্ঘনের কারণেই তিনি স্পিকারের কাছে ক্ষমা চান।

এসময় স্পিকারের উদ্দেশে ট্রুডো বলেন, আসলে আমার কাছে একটা চকলেট বার ছিল। সেটাই খাচ্ছিলাম। এজন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: