সোমবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ক্লিনটনের যৌন কেচ্ছা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য হিলারির  » «   সংসদ নির্বাচনের জন্য ৭০০ কোটি টাকার বাজেট অনুমোদন  » «   বাল্যবিবাহের বিশেষ বিধান ‘ধর্ষণে’ প্রযোজ্য নয়  » «   বিশ্বনাথে প্রবাসীর স্ত্রীকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলায়…  » «   যেসব কারণে ইসির সভা থেকে বেরিয়ে যান কমিশনার মাহবুব  » «   সৌদি রাজপরিবারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করলেই গুম-হত্যা!  » «   শাস্তির বিধান রেখে সম্প্রচার আইনের খসড়া অনুমোদন  » «   সম্পাদক পরিষদের তথ্যে ঘাটতি আছে: তথ্যমন্ত্রী  » «   প্রশ্নফাঁস: ঢাবির ঘ ইউনিটের ফল প্রকাশ স্থগিত  » «   আমেরিকার সতর্কতার জবাবে পাল্টা ব্যবস্থার হুমকি সৌদির  » «   বন্দরবাজারে স্বেচ্ছাসবক দলের মিছিলে পুলিশের বাধা, আটক ১  » «   সন্ত্রাসীদের হুমকি নভেম্বরেই খুন করা হবে মোদিকে!  » «   শাহবাগ-সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা বন্ধে আইনি নোটিশ  » «   ফেক এনকাউন্টার: ভারতে সাত সেনা সদস্যের যাবজ্জীবন  » «   আবারো নির্বাচন কমিশনের সভা বর্জন করলেন কমিশনার মাহবুব  » «  

শেখ হাসিনা জেলে থাকতে যা বলেছিলেন খালেদা জিয়া



নিউজ ডেস্ক::‘সেনা-সমর্থিত’ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে একটি চাঁদাবাজির মামলায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ওই সময়ে শেখ হাসিনার মুক্তি দাবি করে বিবৃতি দিয়েছিলেন বিএনপির চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া।

২০০৭ সালের ১৬ জুলাই ভোররাতে ধানমণ্ডির সুধা সদনের বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয় শেখ হাসিনাকে। প্রায় ৩ কোটি টাকার একটি চাঁদাবাজির মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এই গ্রেফতারের একদিন পরই তার মুক্তি চেয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি দেন খালেদা জিয়া। সেই বিবৃতি গণমাধ্যমে প্রকাশও হয়।

সে সময় সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিশিষ্ট নাগরিক উল্লেখ করে শেখ হাসিনাকে মুক্তি দিয়ে অভিযোগের আইনি প্রক্রিয়ার সমাধান করার আহ্বান জানিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। খালেদা তাতে বলেন, ‘শেখ হাসিনাকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া উচিত। শেখ হাসিনাকে মুক্ত রেখে আইন পরিচালনা করা হলে পারস্পরিক অবিশ্বাস, সন্দেহ, সামাজিক উত্তেজনা এবং রাজনৈতিক আশঙ্কা কমে আসবে।

শেখ হাসিনাকে যেভাবে গ্রেফতার করে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাতে খালেদা জিয়া দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘শেখ হাসিনা একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় নেতার কন্যা এবং দেশের সম্মানিত নাগরিক।’ তাকে গ্রেফতার করায় বিবেকমান নাগরিকেরা আহত হয়েছেন। এর ফলে দেশে বিদেশেও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে বলে উল্লেখ করেন খালেদা জিয়া।

শেখ হাসিনাকে গ্রেফতারের আড়াই মাস পর ২০০৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছিল অন্য আরেকটি মামলায়। খালেদা জিয়া ও শেখ হাসিনা দুই নেত্রীর বিরুদ্ধেই বিভিন্ন অভিযোগে একাধিক মামলা দায়ের হয়। সেই সব মামলার ভেতরই একটি মামলা ছিল জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা।

২০০৮ সালের ৩ জুলাই দুর্নীতি দমন কমিশন মামলাটি দায়ের করে রমনা থানায়। ওই মামলার রায়ে ৫ বছর কারাদণ্ড পেয়ে বর্তমানে জেলখানায় আছেন খালেদা জিয়া।

সাড়ে ১০ বছর পর সেই সেনা সমর্থিত সরকারের আমলে দায়েরকৃত দুর্নীতি মামলাতেই সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেলে যেতে হয়েছে খালেদা জিয়াকে। আর এই সময়ে সরকারে প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: