শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবনায় ছাত্রদলের কমিটি বাতিল এবং যোগ্য ও মেধাবীদের নিয়ে নতুন কমিটির দাবিতে বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দের পদত্যাগ  » «   পবিত্র হজকে রাজনীতির হাতিয়ার বানিয়েছে সৌদি  » «   চুয়াডাঙ্গায় সাপের কামড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু  » «   সিটি নির্বাচন ১৭ প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নিয়েছে বিএনপি  » «   বৃদ্ধ মাকে মারধর, যে পরিণাম হল সন্তানের  » «   এমপিপুত্র শাবাবকে ‘শনাক্তে’ পুলিশের হাতে সিসিটিভি ফুটেজ  » «   জেনে নিন শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজার ফজিলত  » «   মৃত্যুভয়ে ১১ তলা পাইপ বেয়ে নামে শিশুটি  » «   বিএনপির কর্মীরা এখন ঢাকায় রিকশা চালায় : ফখরুল  » «   দীপিকা-রণবীরের বিয়ের দিনক্ষণ ফাঁস!  » «   জনপ্রিয়তা বেড়েছে বিটিভির  » «   দিনদুপুরে পার্কে গণধর্ষণ, সেনাবাহিনী ঘিরে ফেলে পার্ক এলাকা  » «   ফের দক্ষিণের ১৫ রুটে বাস চলাচল বন্ধ  » «   স্বামী-সন্তানের স্বীকৃতির দাবিতে প্রবাসী স্ত্রীর অনশন  » «   সাবেক প্রেমিকা কোপাল বর্তমান প্রেমিকাকে!  » «  

শিশু হত্যার দায়ে বাবা-মেয়ের যাবজ্জীবন



নিউজ ডেস্ক::নেত্রকোনার দূর্গাপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ৫ বছরের তৃষামনিকে শ্বাসরোদ্ধ করে হত্যার দায়ে দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড তৎসহ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ মাসের কারাদন্ড দিয়েছে নেত্রকোনার আদালত। নেত্রকোনার জেলা ও দায়রা জজ কে এম রাশেদুজ্জামান রাজা সোমবার (১২ মার্চ) দুপুরে জনাকীর্ণ আদালতে আসামীদের উপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা হচ্ছে দূর্গাপুর উপজেলার চন্ডীগড় ইউনিয়নের পাবিয়াখালী গ্রামের মৃত আমীর শেখের পুত্র মঙ্গল হোসেন(৫৫) ও তার কন্যা রুখসানা পারভীন ওরফে খুকুমনি(১৯)।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে প্রকাশ, পাবিয়াখালী গ্রামের বাসিন্দা নাগেরগাতী অনির্বাণ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ শফিকুল ইসলামের সাথে একই গ্রামের প্রতিবেশী মৃত আমীর শেখের পুত্র মঙ্গল হোসেনের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। বিগত ২০১০ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর শফিকুল ইসলামের ৫ বছরের মেয়ে তৃষামনি ঘর থেকে বের হয়ে পাশের বাড়ী যায়। সে আর বাড়িতে ফিরে না আসায় তার মা নাছিমা আক্তার আশপাশের সকল বাড়ীঘরে গিয়ে খোঁজ খবর না পাওয়ায় রাতে এলাকায় মাইকিং করা হয়।

২৫ সেপ্টেম্বর দূর্গাপুর থানায় এ ব্যাপারে জিডি দায়ের করা হয়। ২৬ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টার দিকে প্রতিবেশী আব্দুল খালেকের মা আদরের নেছা বাড়ীর পিছরে প্রসাব করতে গিয়ে তৃষার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করলে এলাকাবাসী ছুটে এসে থানায় খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদনের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। মৃতের পিতা শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ২৭ সেপ্টেম্বর মঙ্গল হোসেনসহ ৪ জনকে আসামী করে দূর্গাপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

পুলিশ তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ৩০ এপ্রিল চার আসামীর বিরুদ্ধেই আদালতে চার্জশীট দাখিল করে। বিজ্ঞ বিচারক ১০ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহনান্তে আসামী মঙ্গল হোসেন ও তার কন্যা রুখসানা পারভীন ওরফে খুকুমনির বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণীত হওয়ায় উপরুক্ত রায় প্রদান করেন।

মামলার অপর দুই আসামী আল আমিন ও জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণীত না হওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন ভারপ্রাপ্ত পিপি এডভোকেট সাইফুল আলম প্রদীপ আর আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট নজরুল ইসলাম খান।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: