বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবনায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ে কমিউনিটি ক্লিনিক-এ কমর্রত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোভাইডারদের অবস্থান কর্মসূচী পালন  » «   আল-আকসা সংস্কারে ইসরাইলের নিষেধাজ্ঞা!  » «   ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মানববন্ধন ১৮ জানুয়ারি  » «   এক সপ্তাহেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ পরীক্ষার্থী বাপ্পীর  » «   উজানের দেশ সমূহ হতে বাংলাদেশে মোট ৫৭ টি নদী প্রবাহিত  » «   নরসিংদীতে অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার  » «   এ দেশে কোনো দস্যুতা চলবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো শিক্ষক  » «   হবিগঞ্জের স্কুল পরিদর্শনে কোরিয়ার প্রতিনিধি দল  » «   সড়কে পড়ে গিয়ে যা বললেন আইভী!  » «   বেসরকারি হাসপাতালে চলছে নৈরাজ্য!  » «   নীলফামারীতে নকল সার উদ্ধার, ২০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   সিলেটে বোলারদের দাপট  » «   ৩ লাখ ৫৯ হাজার ২৬১ সরকারি পদ শূন্য  » «   ডাকসু নির্বাচন নিয়ে হাইকোর্টের রায় বুধবার  » «  

‘শিগগিরই সংবিধানের ১১৬ অনুচ্ছেদ ফিরিয়ে আনা হবে’



‘শিগগিরই সংবিধানের ১১৬ অনুচ্ছেদ ফিরিয়ে আনা হবে’

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, আমি প্রধান বিচারপতি হওয়ার পর বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনতে কাজ করছি। সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে কথা হয়েছে, খুব শিগগিরই সংবিধানের ১১৬ অনুচ্ছেদ ফিরিয়ে আনা হবে।

সিলেট জেলা আদালত প্রাঙ্গণে বৃহস্পতিবার রাতে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক নৈশভোজ ও নবীন আইনজীবী বরণ এবং প্রবীণ আইজীবীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিলো স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা। কিন্তু পরবর্তীতে সংবিধানকে কাটাছেঁড়া করে বিচারবিভাগের ক্ষমতাকে খর্ব করা হয়। স্বাধীনতার পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশে ফিরে কাল বিলম্ব না করেই সংবিধান প্রণয়ন করেছিলেন। সংবিধানের ১১৬ অনুচ্ছেদে বিচার বিভাগকে পুরোপুরি স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছিল।

প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, সিলেট ও চট্টগ্রামে হাইকোর্ট বেঞ্চ স্থাপন করতে সরকার ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগ্রহ রয়েছে। আমারও আগ্রহ রয়েছে এ বিষয়ে। কিছু বিচারপতির পদ শূণ্য রয়েছে। এগুলো পূর্ণ করার কাজ চলমান। বিচারপতি নিয়োগ হওয়ার পরপরই সিলেট ও চট্টগ্রামে হাইকোর্ট বেঞ্চ স্থাপনের প্রক্রিয়া শুরু হবে। এর মাধ্যমে আইনসেবা প্রত্যাশী মানুষরা উপকৃত হবেন।

সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. এ কে এম শমিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস-চেয়ারম্যান অ্যাড. আব্দুল বাসেত মজুমদার, সিলেটের জেলা ও দায়রা জজ মনির আহমেদ পাটোয়ারী, মহানগর দায়রা জজ মো. আকবর হোসেন মৃধা, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জেলা জজ কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ‘ডি’ অঞ্চলের সদস্য অ্যাডভোকেট কাইমুল হক।

অনুষ্ঠানে চলতি বছরে সিলেট জেলা বারে যোগদানকারী নবীন আইনজীবীগণকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও অতিথিবৃন্দ। এছাড়াও প্রবীণ আইনজীবীদের মেডেল পরিয়ে দেন প্রধান বিচারপতি।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: