বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আফগানিস্তানে হাসপাতালে ভয়াবহ হামলা, নিহত ২০  » «   রাজনীতিতে যোগ দেবেন নুর, জানালেন দলের নাম  » «   নারায়ণগঞ্জে একই পরিবারের ৩ জনকে গলা কেটে হত্যা  » «   মোদিকে আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি দিলোনা পাকিস্তান  » «   ৮ ভোটে হেরে গেলেন ছাত্রদলের সেই শ্রাবণ  » «   সিলেটের ৬ জনসহ বদলি হলেন ৫৩ বিচারক  » «   ক্যাসিনোর টাকার ভাগ কে কে পেতেন, নাম বলছেন খালেদ  » «   অমর নায়ক সালমানের জন্মবার্ষিকী আজ  » «   ছাত্রদলের সভাপতি খোকন, সাধারণ সম্পাদক শ্যামল  » «   মাদরাসা ছাত্রীকে জিনে নিয়ে গেছে!  » «   রোহিঙ্গাদের এনআইডি বানিয়ে দিয়ে কোটিপতি!  » «   প্রধানমন্ত্রীর পদ হারাচ্ছেন নেতানিয়াহু!  » «   ৬০ নম্বরের পরীক্ষা দিয়ে হতে হবে ছাত্রলীগ নেতা  » «   মিয়ানমার তাদের লোকদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   রাজশাহীতে মা-ছেলে হত্যায় আ.লীগ নেতাসহ ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড  » «  

শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা সাংবাদিকের



নিউজ ডেস্ক:: ঝিনাইদহের শৈলকুপা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষীকা দিলারা ইয়াসমিনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে (মামলা নং৫১)। শৈলকুপা থেকে প্রকাশিত ‘সাপ্তাহীক ডাকুয়া’ পত্রিকার সম্পাদক শামিম বিন সাত্তার বাদী হয়ে রোববার মামলাটি দায়ের করেন।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শৈলকুপা থানার এসআই ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান।

মামলার বাদী শামিম বিন সাত্তার জানান, গত বছর শৈলকুপা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দিলারা ইয়াসমিনের দুর্নীতির খবর বিভিন্ন পত্রিকায় ও টিভি চ্যানেলে প্রচারের পর তিনি সাংবাদিকদের ওপর ক্ষুদ্ধ হয়ে স্কুলের নামে পরিচালিত ফেসবুক আইডিতে একটি মানহানীকর পোস্ট দেন। পোস্টে তিনি ঝিনাইদহের জৈষ্ঠ্য সাংবাদিক আসিফ ইকবাল কাজল, ডিবিসি চ্যানেলের ঝিনাইদহ প্রতিনিধি আব্দুর রহমান মিল্টন ও শামিম বিন সাত্তারের ছবি ব্যবহার করেন এবং কুরুচিপূর্ণ ভাষায় নানা মন্তব্য করেন। এ ঘটনায় সাংবাদিক আসিফ ইকবাল কাজল ঝিনাইদহ সদর থানায় জিডি করেন।

জিডি করার পর ফেসবুক থেকে আপত্তিকর পোস্টটি সরিয়ে ফেলেন দিলারা ইয়াসমিন। জিডির তদন্ত করতে গিয়ে প্রাথমিক ভাবে ঘটনার সত্যতা পান শৈলকুপা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার তারেক আল মেহেদী। তদন্ত রিপোর্ট জমা হওয়ার পর পুলিশ সদর দপ্তর থেকে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপারের কাছে পাঠানো হয়। গত ২০ মার্চ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামানের পাঠানো পরামর্শ চিঠির আলোকে সাংবাদিক শামিম বিন সাত্তার বাদী হয়ে রোববার শৈলকুপা থানায় ডিজিটাল আইনের সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলাটি করেন।

মামলার বিষয়ে প্রধান শিক্ষীকা দিলারা ইয়াসমিনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে কর্মস্থলে পাওয়া যায়নি ও ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটিও বন্ধ রয়েছে।শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী আইয়ুবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আমরা আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: