মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Sex Cams
সর্বশেষ সংবাদ
দিল্লির বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক সংঘর্ষে চার জন নিহত ও ৫০ জন আহত  » «   পুলিশের কব্জায় অটোরিকশা, মায়ের ক্যান্সার চিকিৎসায় শেষ সম্বলও বিক্রি  » «   ১০ লাখ শিক্ষার্থী পাবে ২৯২ কোটি টাকা  » «   ৩৪০০ টাকার পাসপোর্ট ফি ৫২০০ টাকা চেয়ে দুদকের হাতে ধরা  » «   কিশোরগঞ্জে ভাবিকে হত্যার দায়ে দেবরের মৃত্যুদণ্ড  » «   ক্ষমতাসীনরা দেশকে অন্ধকারের দিকে নিয়ে যাচ্ছে  » «   চট্টগ্রামে শিশু গৃহকর্মীর রহস্যজনক মৃত্যু  » «   মামলা তুলে না নেয়ায় স্ত্রীকে মেরেই ফেললেন স্বামী  » «   ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি, চার পুলিশ সদস্য কারাগারে  » «   করোনাভাইরাস : জাপানি প্রমোদতরীর আরও এক যাত্রীর মৃত্যু  » «   বঙ্গবন্ধু উপাধির ৫১ বছর  » «   ঢাকা-সিলেট ৬ লেনে এডিবির অর্থ ফেরত যাওয়ার শঙ্কা  » «   বাঈজী সরদারনি যুব মহিলালীগ নেত্রী পাপিয়ার উত্থান যেভাবে  » «   কী আছে পাপিয়ার ভিডিও ক্লিপে?  » «   ইতালিতে করোনায় আক্রান্ত ৭৯  » «  

শপথে ইমরানকে না ডাকার শোধ তুলল পাকিস্তান?



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ইসলামাবাদের ভারতীয় হাইকমিশনের ইফতার পার্টিতে বাধা দিল পাকিস্তান। নিরাপত্তার নামে বাড়াবাড়ি করে ইফতারিতে অতিথি আসতে দেয়নি পুলিশ।শনিবার পাকিস্তানের ইমরান সরকারের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ তোলেন ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার অজয় বিসারিয়া। দু’দেশের ইফতার কূটনীতিতে গত ১০ বছরে এবারই প্রথম এমন আচরণ করল পাকিস্তান।

এ ঘটনার পরপরই নড়েচড়ে বসেছে কট্টর জাতীয়তাবাদ নীতিতে বিশ্বাসী ভারতের নবনির্বাচিত মোদি সরকার। কোন ক্ষোভে এই কাণ্ড? কেন হঠাৎ কূটনৈতিক সৌজন্যতাই বাধা- নানা কারণ বেরিয়ে আসছে এসব প্রশ্নের। তবে বেশিরভাগ কূটনীতিকেরই ধারণা- প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথানুষ্ঠানে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আমন্ত্রণ না করার প্রতিশোধটাই এভাবে নিল ইসলামাবাদ।

৩০ মে মোদির দ্বিতীয় মেয়াদের শপথে প্রতিবেশী সব দেশের রাষ্ট্রনায়কদের দাওয়াতপত্র পাঠালেও তালিকায় ইমরান খানের নাম রাখেনি দিল্লি। এরপর থেকেই দুই চিরশত্রুর সম্পর্ক আরও গম্ভীর হয়ে ওঠে। টাইমস অব ইন্ডিয়া, পিটিআই।

শনিবার সন্ধ্যায় ইসলামাবাদের সেরেনা হোটেলে ইফতার পার্টির আয়োজন করে ভারতীয় হাইকমিশন। সেখানেই এই অনভিপ্রেত ঘটনা ঘটায় পুলিশ। হঠাৎই ওই অঞ্চলে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে পুলিশ। আমন্ত্রণ করা হয়েছিল পাক দূতাবাসের সরকারি কর্মকর্তাদের। কিন্তু অজানা কারণে তারাও এ ইফতার পার্টিতে যোগ দেননি।

ভারতীয় কূটনীতিবিদ এবং অন্য অতিথিদের নিরাপত্তার নামে হেনস্থা করা হয়। ইফতার পার্টিতে প্রবেশ করতে বাধা দেয়া হয়। একশ’রও বেশি অতিথিকে এভাবে তাড়িয়ে দেয়া হয়। একপর্যায়ে ফাঁকাই পড়ে থাকে সব আসন। ইফতারে আগত অতিথিদের সঙ্গেও দুর্ব্যবহার করা হয়। তাদের গাড়ি পার্কিং থেকে শুরু করে প্রবেশে বাধা দেয়ায় অনেকেই ফিরে যেতে বাধ্য হন।

ভারতীয় হাইকমিশনার অজয় বিসরিয়া বলেন, ‘আমরা ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি তাদের কাছে যাদের এ ইফতারে জোর করে যোগ দিতে দেয়া হয়নি। এটা একটা খারাপ কৌশল এবং গভীর উদ্বেগের। কারণ তারা শুধু কূটনীতির প্রাথমিক নিয়মই লংঘন করেনি, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে ফাটল এবং অসভ্য ব্যবহারও করেছে।’

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে পাকিস্তানকে আমন্ত্রণ না করার প্রতিশোধ এভাবে নিল ইসলামাবাদ বলে মনে করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ‘ইসলামাবাদ প্রশাসন শুধু ভদ্রতার সীমা ছাড়িয়েছে তা-ই নয়, কূটনীতির প্রাথমিক শর্তগুলোও মানেনি তারা।’ তার কথায়, ‘এ ঘটনা আগামী দিনে ভারত-পাক সম্পর্কের উপর প্রভাব ফেলবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: