সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

লাল-সবুজের পতাকা বিক্রি করা এক ব্রিটিশ নারীর গল্প



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বাংলাদেশ থেকে ইংল্যান্ডের দুরুত্বটা প্রায় ৮৪১১ মাইল বা ১৩ হাজার ৫৩৬ কিলোমিটার! উড়োজাহাজে যেতেও আপনার কমপক্ষে ১২ ঘণ্টা সময় লাগবে। সুদূর বিলেতে বসে বাংলাদেশের মতন একটা ছোট্ট দেশের পতাকা নিয়ে ফেরি করে বেড়াচ্ছেন ব্রিটিশ এক নারী! কি আশ্চর্য হলেন? ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে গতকালকে টনটনেও দেখা মিললো এমনই এক ব্রিটিশ নারী পতাকা বিক্রেতার। লাল-সবুজে ছেয়ে গেছে যার ভ্যান।

কেনিংটন ওভাল, কার্ডিফ, ব্রিস্টলের পর টনটনেও বাংলাদেশের পতাকা বিক্রি করছেন চার্লটি ক্যারিন।বাংলাদেশের আগের চার ম্যাচের তিন ভেন্যুতেই ভ্যান ভর্তি করে বাংলাদেশের জার্সি, ক্যাপ এবং পতাকার পসরা সাজিয়ে বসেছিলেন তিনি। ওভাল-কার্ডিফে বেশি হলেও ব্রিস্টলে বিক্রি ভালো হয়নি তার। কারণ বৃষ্টির জন্য ব্রিস্টলে শ্রীলংকার বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিলো।

ইংল্যান্ডে ভারত-বাংলাদেশের খেলার সময় প্রচুর পতাকা এবং জার্সির চাহিদা থাকে। মাঠে খেলা দেখতে আসা বেশিরভাগ সমর্থকরা বাংলাদেশের পতাকা-জার্সি কিনে শুধু প্রিয় দলের প্রতি ভালবাসা জানানোর জন্য। তবে ক্যারিনের কাছে পতাকা বিক্রির একমাত্র লক্ষ্য টাকা না, নিজের ভাল লাগা থেকেই বাংলাদেশের পতাকা বিক্রি করেন তিনি।

বাংলাদেশের পরের ম্যাচগুলোর ভেন্যুতেও যাবার ইচ্ছা প্রকাশ করলেন চার্লটি ক্যারিন। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ম্যাচের সবগুলো ভেন্যুতে আমার ভ্যান নিয়ে হাজির হবার ইচ্ছা আছে। কারণ ম্যাচের দিন বাংলাদেশের পতাকা বেশি বিক্রি হচ্ছে।’

এখন পর্যন্ত এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রায় ৬ থেকে সাতশো পতাকা এবং জার্সি বিক্রি করেছে এই ব্রিটিশ নারী পতাকা বিক্রেতা। প্রতিটি পতাকা ৪ থেকে ৫ পাউন্ড এবং জার্সি ১২ থেকে ১৫ পাউন্ডে বিক্রি করা হয়। কার্ডিফে চার্লটির একটি ক্রীড়া সামগ্রীর দোকান রয়েছে। তবে, বাংলাদেশের খেলা হলেই এখন তিনি বাংলাদেশের জার্সি-পতাকা নিয়ে মাঠের বাইরে পশরা সাজিয়ে বসছেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: