মঙ্গলবার, ২১ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অনুমতি ছাড়া সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেপ্তার নয়  » «   দেশের উন্নতির জন্য বিলাসীতা ত্যাগের ঘোষণা ইমরানের  » «   ঈদে ৮ দিন ২৪ ঘণ্টা সিএনজি ফিলিং স্টেশন খোলা  » «   আজ আরাফার দিন, কিছু আমল যা আপনিও করতে পারবেন  » «   সিলেটে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশী তাপমাত্রা, সতর্ক থাকার পরামর্শ  » «   সুনামগঞ্জে বাস চাপায় কলেজ ছাত্রী নিহত,দুই শিশুসহ আহত ৪  » «   ইরানে অভ্যুত্থান ঘটানোর সকল মার্কিন চেষ্টা ব্যর্থ হবে: জারিফ  » «   নাইজেরিয়ায় বোমা হামলায় নিহত ১৯  » «   মেঘনা তেল ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২  » «   ভোটার হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন কুয়েত, সিঙ্গাপুর ও যুক্তরাজ্যের প্রবাসীরা  » «   ঘন্টায় ১৮০ কিমি বেগে টোকিওর দিকে ঘূর্ণিঝড় ‘শানশান’  » «   মক্কায় ভারী বৃষ্টিপাতে বন্যার আশঙ্কা  » «   ক্যারিয়ার গড়তে রাজনীতিতে আসিনি: ইমরান খান  » «   সীমান্তে ভারী অস্ত্র-সেনা বাড়াচ্ছে মিয়ানমার, সতর্ক বিজিবি  » «   সন্তান জন্ম দিতে সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গেলেন মন্ত্রী  » «  

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রতিদিন জন্ম নিচ্ছে ৬০ শিশু: ইউনিসেফ



bd-journal

নিউজ ডেস্ক::কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পেগুলোতে প্রতিদিন প্রায় ৬০ শিশুর জন্ম হয় বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ।সংস্থাটির এক বিবৃতিতে বলা হয়, গত বছরের আগস্ট থেকে মিয়ানারের রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশমুখী স্রোত তৈরি হয়। কক্সবাজারে তখন রোহিঙ্গা ঢল শুরুর পর এ পর্যন্ত ১৬ হাজার শিশুর জন্ম হয়েছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জন্ম হয়েছে মাত্র তিন হাজার শিশুর।

ইউনিসেফের বাংলাদেশের প্রতিনিধি এডুওয়ার্ড বেইগবেদার বলেছেন, প্রতিদিন প্রায় ৬০টি শিশু ভয়ঙ্কর পরিবেশের মধ্য দিয়ে দুনিয়ার মুখ দেখছে। তাদের প্রয়োজনীয় সাহায্য ও সহযোগিতা নিশ্চিত করতে হবে। যে মা তাদের জন্ম দিচ্ছে তারাও নানা সংকটের মধ্যে রয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণের কারণে কতটি শিশুর জন্ম হয়েছে বা হবে সেই সংখ্যা খুঁজে বের করা অসম্ভব। নতুন মা হয়েছেন বা হতে যাচ্ছেন- এমন প্রত্যেক নারী এবং তাদের নবজাতক শিশু যাতে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহায়তা পায়, তা নিশ্চিত করা এখন জরুরি।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধিরা গত এপ্রিলে কক্সবাজারে এসে রোহিঙ্গাদের দুর্দশা নিজেদের চোখেছেন, রোহিঙ্গাদের মুখ থেকে শুনেছেন তাদের ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্সের প্রতিবেদনে বাংলাদেশের একজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এ পর্যন্ত ১৮ হাজার ৩০০ অন্তঃসত্ত্বা রোহিঙ্গা নারীকে তারা শনাক্ত করেছেন। তবে অন্তঃসত্ত্বা রোহিঙ্গা নারীর প্রকৃত সংখ্যা ২৫ হাজারের মত হবে বলে তার ধারণা।

প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয় বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ৫২ জন রোহিঙ্গা নারী ও কিশোরীর সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে, যাদের মধ্যে ২৯ জন ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর প্রাণ নিয়ে রাখাইন থেকে পালাতে পেরেছেন।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধনযজ্ঞ শুরুর পর থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসাদের মধ্যে একটা বড় অংশই শিশু। এছাড়া জীবন ও সম্ভ্রম বাঁচাতে পালিয়ে গর্ভবতী অবস্থায় দেশ ছেড়ে পালিয়ে এসেছেন বহু রোহিঙ্গা নারী।

সূত্র: রয়টার্স।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: