সোমবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
জেলা হাসপাতালের ৪০ শতাংশ চিকিৎসকই অনুপস্থিত : দুদক  » «   লিবিয়ায় নিয়ে নির্যাতন, মুক্তিপণ বাণিজ্য  » «   ২১ আগস্ট হামলা: সাবেক দুই আইজিপির জামিন  » «   নাইকো মামলার পরবর্তী শুনানি ৪ ফেব্রুয়ারি  » «   ডাকাতি চেষ্টার অভিযোগে এসআই আটক  » «   শরিকদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে আ.লীগের  » «   মালিতে জঙ্গি হামলায় জাতিসংঘের ১০ শান্তিরক্ষী নিহত  » «   ঘুষ নেয়ার মামলায় জামিন পেলেন নাজমুল হুদা  » «   আওয়ামী লীগ জনগণের আস্থার মর্যাদা রাখবে: প্রধানমন্ত্রী  » «   নৌবাহিনীর প্রধান হিসেবে নিয়োগ পেলেন আওরঙ্গজেব চৌধুরী  » «   আফগানিস্তানে গভর্নরের গাড়িবহরে আত্মঘাতী হামলা: নিহত ৮  » «   ফেসবুকে ‘#বিদায়’ স্ট্যাটাস দিয়ে তরুণের আত্মহত্যা!  » «   স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গিয়ে যেসব নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আরও ২৫০ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে সৌদি আরব  » «   ২৭ বছর থেকে নির্বাচনবিহীন এমসি কলেজ ছাত্র সংসদ  » «  

রোহিঙ্গাদের স্থায়ীভাবে আশ্রয় দেওয়ার পরিকল্পনা নেই: পররাষ্ট্র সচিব



নিউজ ডেস্ক:: মিয়ানমার থেকে সহিংসতার শিকার হয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের স্থায়ীভাবে আশ্রয় দেওয়া বা গ্রহণ করার কোনও পরিকল্পনা সরকারের নেই বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক।বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এ কথা বলেন তিনি।

গত বছরের আগস্টে নিরাপত্তা বাহিনীর তল্লাশি চৌকিতে হামলার পর রাখাইনে পূর্ব পরিকল্পিত ও কাঠামোবদ্ধ সহিংসতা জোরালো করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। নিপীড়নের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে সাত লাখ রোহিঙ্গা।এক বছরেও মিয়ানমারের এই পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য কোনও পরিবর্তন ঘটেনি। এখনও আশার আলো দেখার মতো, নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী হওয়ার মতো অবস্থায় নেই বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর লাখ লাখ মানুষ। তারও আগে থেকে বাংলাদেশে রয়েছেন আরও কয়েক লাখ রোহিঙ্গা। সম্প্রতি জাতিসংঘ জানিয়েছে, বাংলাদেশে অবস্থান করা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা দশ লাখের বেশি। বাংলাদেশ সরকারের দাবি, রোহিঙ্গাদের সংখ্যা ১১ লাখের বেশি।

বুধবার ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে অনুষ্ঠিত বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে শহিদুল হক বলেন,রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের বাসিন্দা।আমরা তাদের স্থায়ীভাবে আশ্রয় দেওয়ার কথা ভাবছি না।মানবিক এই সংকট মোকাবিলায় উন্নত দেশগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।তিনি বলেন, অন্যান্য দেশ কিংবা মিয়ানমার তাদের না নেওয়া পর্যন্ত রোহিঙ্গা শিবিরেই থাকতে হবে তাদের।

গত বছর নভেম্বরে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার প্রত্যাবাসন চুক্তিতে রাজি হলেও এখনও কোনও রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নেওয়া হয়নি। এদিকে এখনও মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসছে রোহিঙ্গারা।শহীদুল হক বলেন, কয়েক মাসের মধ্যেই রোহিঙ্গাদের কক্সবাজার ক্যাম্প থেকে ভাসনচরে নিয়ে যাওয়া হবে। তবে সেটা অস্থায়ী।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: