বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রাথমিক শিক্ষকদের সমাপনী ও বার্ষিক পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা  » «   পুলিশের ‘জামাই’ বলে কথা!  » «   জাস্টিন ট্রুডোকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিনন্দন  » «   ফের বাড়ছে পেঁয়াজের দাম!  » «   সুনামগঞ্জে চিকিৎসকের ওপর হামলায় চেয়ারম্যান গ্রেফতার  » «   পদ হারিয়ে যা বললেন ওমর ফারুক চৌধুরী  » «   ২৯ রোহিঙ্গা মিয়ানমারে ফিরেছে, জানেই না বাংলাদেশ  » «   একনেকে ৫ প্রকল্পের অনুমোদন, ব্যয় হবে ৪৬৩৬ কোটি  » «   ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সিলেটের এসপির সর্তকতা  » «   বায়তুল মোকাররমে হেফাজতের বিক্ষোভ সমাবেশ শুরু  » «   হবিগঞ্জে স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যা, স্বামী আটক  » «   পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের পর গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নেবে তুরস্ক  » «   এমপিও নিয়ে দুপুরে গণমাধ্যমের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর মতবিনিময়  » «   মৌলভীবাজারে চাঁদাবাজির চেষ্টায় ‘ভূয়া ডিবি পুলিশ’ আটক  » «   নতুন মেরুকরণের পথে জাতীয় পার্টি  » «  

রাহুল গান্ধীর পদত্যাগ, শিগগিরই কংগ্রেসের নতুন সভাপতির নাম ঘোষণা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: অনেক চেষ্টার পরও রাহুল গান্ধীর সিদ্ধান্ত বদলাতে ব্যর্থ হয়েছে কংগ্রেস। তিনি দলের সর্বভারতীয় সভাপতির পদে থাকবেন না ফের জানিয়ে যত দ্রুত সম্ভব কংগ্রেসকে নতুন সভাপতি নির্বাচনের আহ্বান জানিয়েছেন রাহুল। কংগ্রেসের নতুন সভাপতি নির্বাচন প্রক্রিয়ার মধ্যেও থাকবেন না রাহুল গান্ধী।

পদত্যাগ নিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, আর দেরি না করে যত দ্রুত সম্ভব দলের নতুন সভাপতি নির্বাচন করা হোক, আমি এই প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকছি না। আমি ইতিমধ্যেই আমার পদত্যাগপত্র দিয়ে দিয়েছি এবং দলের সর্বভারতীয় সভাপতি পদের দায়িত্বে থাকছি না।

কংগ্রেসের নেতারা তাকে বারবার নিজের পদত্যাগপত্র ফিরিয়ে নিতে অনুরোধ করেছেন। তবে এতে তিনি কোনো রকমের সাড়া দেননি। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, নিজের সিদ্ধান্ত বদলানো সম্ভব নয়। রাহুল গান্ধী কংগ্রেসের কার্যকরী কমিটিকে বলেন, খুব তাড়াতাড়ি একটি বৈঠক ডাকা হোক,যাতে দলের নতুন সভাপতি কে হবেন, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। নতুন নাম নির্বাচন করে তা জানিয়ে দেওয়ার জন্যেও দলকে পরামর্শ দেন রাহুল।

গত লোকসভা নির্বাচনে গোটা দেশেই অত্যন্ত খারাপ ফল করে কংগ্রেস। রাহুল গান্ধী নিজে আমেথিতে প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী স্মৃতি ইরানির কাছে হেরে যান। যদিও কেরালার ওয়ানাড় কেন্দ্র থেকে জিতে কিছুটা হলেও মুখ রক্ষা করেন তিনি।

এরপরেই রাহুল অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, কংগ্রেসের এই হারের দায় কোনো নেতাই নিতে আগ্রহী নন। তাই তিনিই কংগ্রেসের খারাপ ফলের দায় নিয়ে গত ২৫ মে কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি পদ থেকে ইস্তফা দেন।

তার আগে ২০ জুন এনডিটিভিকেও এক সাক্ষাতকারে রাহুল বলেন, যেকোনো বিষয়েই একটি দায়বদ্ধতা থাকে। তবে রাহুল গান্ধীর পদত্যাগের সিদ্ধান্তের পরেই দেশজুড়ে বিভিন্ন কংগ্রেস নেতাদের মধ্যে পদত্যাগ করার হিড়িক পড়ে যায়। যদিও কোনো কিছুই টলাতে পারেনি রাহুল গান্ধীকে। কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি পদে আর না থাকার সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন তিনি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: