রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে শিক্ষককে হত্যার হুমকি  » «   স্কুলের ঘন্টা বাজালেন রুহানি!  » «   উল্টো পথে প্রতিমন্ত্রীর গাড়ি: অর্ধশত যানবাহনকে জরিমানা  » «   বিএনপি কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা  » «   সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ: চেয়ারম্যানসহ আসামি ৭  » «   ‘আলোচনার মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান সম্ভব’  » «   রোহিঙ্গাদের গণধর্ষণের প্রমাণ পেয়েছে জাতিসংঘ  » «   অবশেষে রিয়ালের স্বস্তির জয়  » «   সিরিজ বাঁচিয়ে রাখতে চায় অস্ট্রেলিয়া  » «   বালাগঞ্জে গ্রাম আদালত বিষয়ক প্রশিক্ষন সম্পন্ন  » «   তখনও প্রসবকালীন রক্ত ঝরছে তার শরীর থেকে  » «   টাঙ্গাইলে চলছে ভোটগ্রহণ  » «   কিশোরী স্কুলছাত্রীদের যৌনদাসী বানিয়ে রাখেন কিম!  » «   বুদ্ধি কমিয়ে দিচ্ছে যে খাবার  » «   আইফোনের তুলনায় পাঁচ গুণ সস্তা টাইগাফোন  » «  

রাম রহিমের ডেরার ছিল গোপন হাসপাতাল



নিউজ ডেস্ক::আগেই রকস্টার ‘বাবা’ গুরমিত রাম রহিমের ডেরায় অত্যাধুনিক হাসপাতালের খোঁজ মিলেছিল। প্রত্যাশিত ভাবে যে হাসপাতালের প্রধান রাম রহিম নিজেই। এ বার সেই হাসপাতালে দেদার গর্ভপাতের প্রমাণ মিলল। পাঞ্জাব পুলিশ এ বিষয়ে বেশ কিছু তথ্য প্রমাণ পেয়েছে। এমন খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার।

সূত্রের খবর, গর্ভপাত করানোর কাজে বিন্দুমাত্র সরকারি অনুমতির তোয়াক্কা করা হত না। তদন্তকারীদের দাবি, যে সব নারীর গর্ভপাত করানো হয়েছে, তাদের পর্যাপ্ত নথি মেলেনি হাসপাতাল থেকে।

মঙ্গলবার হরিয়ানার জনসংযোগ দফতরের ডেপুটি ডিরেক্টর সতীশ মেহেরা ডিএনএকে জানান, ডেরার হাসপাতালে বেআইনি গর্ভপাতের বিষয়টি নিয়ে আলাদা করে তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ফরেন্সিক কর্তাদের। প্রাথমিক তদন্তে পাওয়া নমুনাগুলি ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা বিচারক এ কে এস পওয়ার। তাকে এই মামলায় কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত করেছে পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট।

পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের নির্দেশে ৭০০ একরের ডেরা চত্বরে সম্প্রতি তল্লাশি চালায় রাজ্য পুলিশ এবং সরকারি নানা বিভাগের ১০টি দল। গত রোববারই শেষ হয়েছে তিন দিনের সেই তল্লাশি অভিযান।

তাতেই জানা যায়, সাত তারা হোটেল, ‘স্কাইবার’-সহ রিসর্ট, অভিজাত রেস্তোরাঁ, সুইমিং পুল, অত্যাধুনিক হাসপাতাল, আন্তর্জাতিক মানের স্কুল, হোস্টেল, সিনেমা হল, শপিং মল, ফুড কোর্ট, জিম, স্পা, নিজস্ব কৃষিজমি, বাজার সবই রয়েছে বাবার ডেরায়। এমনকী, বিস্ফোরক তৈরির কারখানা, সুড়ঙ্গের হদিশ মেলে সেখান থেকে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: