শুক্রবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ভালোবাসা দিবসে সিলেটে ‘জুটির মেলা’  » «   ছেলেকে নকল দিতে গিয়ে বাবা আটক  » «   সড়কের বিপজ্জনক খুঁটি সরাতে হবে ৬০ দিনের মধ্যে  » «   মুক্তি ভবন: যে হোটেলে শুধু মরার জন্য যায় মানুষ  » «   ইজতেমায় দায়িত্বশীলদের ব্যর্থতা বরদাশত করা হবে না: র‍্যাব ডিজি  » «   সিরিয়া ইস্যুতে বৈঠকে বসছে রাশিয়া, তুরস্ক ও ইরান  » «   হাসপাতালে গিয়ে সিরিয়ালের জন্য অপেক্ষা করলেন অর্থমন্ত্রী লোটাস কামাল!  » «   তুরাগ তীরে আগামীকাল ইজতেমা শুরু, প্রস্তুত লাখো মুসল্লি  » «   বাংলাদেশের প্রতি সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে: জাপানের রাষ্ট্রদূত  » «   আবারো মিয়ানমারের মানচিত্রে সেন্ট মার্টিন্স, রাষ্ট্রদূতকে তলব  » «   ১৪ ফেব্রুয়ারি ‘স্বৈরাচার প্রতিরোধ দিবস’, কী ঘটেছিল সেদিন ঢাকায়?  » «   সৌদি নারীদের নিয়ন্ত্রণে অ্যাপ, তদন্ত করবে অ্যাপল  » «   কোনো আপস করার প্রয়োজন নেই, রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিইসি  » «   জার্মানির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আজ থেকে শুরু হজের নিবন্ধন, চলবে ১০ মার্চ পর্যন্ত  » «  

রান্নাঘরের গ্রিল কেটে শাবির ছাত্রী হলে চুরি,নিরাপত্তাহীনতায় ছাত্রীরা



নিউজ ডেস্ক:: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হলে আবারো চুরির ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ভোরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ছাত্রী হলের ডি ব্লকের ১৩২ নম্বর রুম থেকে দুই শিক্ষার্থীর মোবাইল চুরির ঘটনা ঘটে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সহকারী প্রক্টর মো. জাহিদ হাসান বলেন,ঘটনার বিষয়ে আমরা অবগত। তদন্তের মাধ্যমে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

হল সূত্রে জানা যায়, আনুমানিক রাত ২টার দিকে হলের নিচতলার সিঁড়ির পাশের রান্নাঘরের গ্রিল কেটে কয়েকজন যুবক ভেতরে ঢুকে পড়ে।নিচ তলার ১৩২ নম্বর রুমের এক শিক্ষার্থী ভোর ৫টার দিকে বাথরুমে গেলে চোরেরা বাইরে থেকে তালা দিয়ে তাকে আটকে দেয়।এ সময় রুমের ভেতরে গিয়ে কয়েকজন ঢুকে পড়ে।তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে রুমে থাকা অন্য শিক্ষার্থীরা চিৎকার শুরু করলে চোরের দল দুটি মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়। এছাড়া ডি ব্লকের প্রতিটি তলায় আরো কয়েকটি রুমের গ্রিল কাটা ও সিটকানি খোলার চেষ্টা করেছিল বলে জানান একাধিক শিক্ষার্থী।

হলের আবাসিক শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার শান্তা বলেন,আমার পাশের দুই রুমেও চুরির চেষ্টা করা হয়েছে। সকালে ওই দুই রুমের জানালার গ্রিল একটু কাটা দেখা যায়। কতটা অনিরাপদ হলের মেয়েরা! এর আগে বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলেও চুরির ঘটনা ঘটেছে।ওই হলের আরেক শিক্ষার্থী তানজিনা আক্তার বলেন, আমরা গতকাল তিন যুবককে হলের আশপাশে ঘোরাফেরা করতে দেখি। তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় হল প্রভোস্টকে জানালেও তিনি কোন পদক্ষেপ নেয়নি।

এর আগে চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলে একই কায়দায় গ্রিল কেটে চারটি ল্যাপটপ ও দুটি মোবাইল ফোন চুরির ঘটনা ঘটেছিল। গত ১২ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মচারীর মোটরসাইকলে চুরির ঘটনায় মো. কাউসার নামের এক যুবককে আটক করেছিল জালালাবাদ থানা পুলিশ। এদিকে ঘটনার পর হল প্রভোস্ট অধ্যাপক আমিনা পারভিন, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধাপক ড. রাশেদ তালুকদার এবং প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বলে জানান শিক্ষার্থীরা। তবে বিষয়টি জানার জন্য হল প্রভোস্ট অধ্যাপক আমিনা পারভিন ও প্রক্টর জহীর উদ্দিন আহমেদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযাগের চেষ্টা করা হলে কেউ ফোন রিসিভ করেননি।”

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: