বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
৪০ কিমি হেঁটে স্কুলে যেতেন মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার!  » «   পশ্চিমবঙ্গে আবারও সরকার গঠনের পথে মমতা  » «   ভোট গণনা শুরু, বড় ব্যবধানে এগিয়ে বিজেপি  » «   খালেদা জিয়ার সুবিধার্থে কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপনের সিদ্ধান্ত: তথ্যমন্ত্রী  » «   বুথফেরত জরিপের ফলেই ‘বিজয়োৎসব’ শুরু বিজেপির  » «   হুতি বিদ্রোহীদের হামলা, সৌদির পাশে থাকবে পাকিস্তান  » «   ধানক্ষেতে আগুনের ঘটনা তদন্তে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ  » «   মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ছে  » «   বালিশ দুর্নীতি: নির্বাহী প্রকৌশলী প্রত্যাহার  » «   এফআর টাওয়ার নির্মাণে ত্রুটি, তদন্ত প্রতিবেদনে দোষী ৬৭ জন  » «   ক্ষতিপূরণ দিতে গ্রিনলাইনকে আদালতের আল্টিমেটাম  » «   প্রখ্যাত তিন ইসলামি স্কলারের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করছে সৌদি  » «   মৌলভীবাজারে কে এই ‘পীর’ আজাদ?  » «   ৮০ বছরের মধ্যে সাগরে ডুবে যাবে বাংলাদেশ!  » «   অনলাইনে ট্রেনের টিকিট: বিক্রি শুরুর আগেই টিকিট শেষ!  » «  

‘রাজশাহী সিটি নির্বাচনে আশঙ্কার কোন আভাস নাই’



শামসুজ্জোহা বাবু,রাজশাহী প্রতিনিধি:নির্বাচনের বিষয়ে কোন অাশঙ্কার আভাস পায়নি। সাগরপাড়া এলাকায় ঘটে যাওয়া বিষয় নিয়ে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী ও গোয়েন্দারা কাজ করছে। দুই দলের আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগের বিষয়ে ইসি বলেন, অভিযোগ প্রার্থীদের নির্বাচনী সংস্কৃতি। অভিযোগ আমলে নেওয়া হচ্ছে, সু-নিদিষ্ট অভিযোগ হলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) দুপরে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে আইনশৃঙ্খলা সমন্বয় কমিটির সভায় নির্বাচন কমিশনার (ইসি) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে এ কথা বলেন।

সাজানো মামলায় গ্রেফতার করা হচ্ছে এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সাজানো মামলার কোন ঘটনা যেনো না ঘটে। মঙ্গলবার যে ঘটনা ঘটেছে সেই ঘটনা যেনো না ঘটে। অভিযোগ গুলোর সুনির্দিষ্ট প্রমাণ থাকবে হবে। পোলিং এজেন্ট প্রত্যেক প্রার্থীকে দিতে হবে। আমরা পুলিশের কাছে দেবো তারা তদন্ত করবে।এছাড়া ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি পোলিং এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবে না।

সাগরপাড়ার ঘটনা নিয়ে ইসি বলেন, রাজশাহীর অবস্থা স্বাভাবিক রয়েছে। নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা আছে। নিজ প্রার্থীদের নেতাকর্মীদের নিজ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। তাহলে অপ্রীতিকর ঘটনাগুলো ঘটবে না। ৩০ জুলাই রাজশাহীসহ তিন সিটির নির্বাচন হবে। রাজশাহী সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের জন্য বিভাগীয় সমন্বয় সভা করা হচ্ছে। যাতে একজন ভোটার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নিজ বাসভবনে যেতে পারেন। সব প্রার্থী সমভাবে নির্বাচনের প্রচারণার সুযোগ পায় সে ব্যাপারে আলোচনা করেছি।

তিনি আরো বলেন, ৩০ টি মোবাইল কোর্ট থাকবে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে। বিজিবিসহ প্রতিটি ওয়ার্ডে স্ট্রাইকিং ফোর্স এর সঙ্গে ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে। ১০ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে র‌্যাব ও পুলিশের মোবাইল স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে।

প্রতিটি কেন্দ্রে ২২ থেকে ২৪ জন পুলিশ ও আনসার থাকবে। রিটার্নিং অফিসারকে সহযোগিতার করার জন্য ১০ জন সহকারী রিটার্নিং অফিসার থাকবে। এছাড়া নিজস্ব পর্যবেক্ষক থাকবে ইসির পক্ষ থেকে একজন করে প্রতিটি ওয়ার্ডে।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষার আগে সকল বৈধ অস্ত্র বহন বা প্রদর্শন করতে পারবে না। এছাড়া স্বাভাবিক নিয়ে ৪৮ ঘণ্টা আগে সকল বাস, ট্রাক, মোটরসাইকেল, ইজিবাইকসহ ভাড়ি যানবাহন বন্ধ থাকবে। নির্বাচনে কোন ধরের ঝুঁকি পূর্ণ ঘটনা এড়াতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎপর থাকবে। নির্বাচনের সঙ্গে সকল প্রার্থীর কর্মী-সমর্থক ও এজেন্টরা নির্বিঘ্নে তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারে।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন কমিশনারের সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদ। সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমান। এসময় রাজশাহীর আইনশৃঙ্খলাবাহিনী সর্বস্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: