মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শ্রীমঙ্গলে থামছে না অসাধু ব্যবসায়ীদের অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, নিশ্চুপ প্রশাসন!  » «   জাজিরা প্রান্তে বসল ১১তম স্প্যান, দৃশ্যমান ১৬৫০ মিটার  » «   দক্ষিণ সুরমায় ইজতেমার অনুমোদন এখনো মেলেনি  » «   সিলেটের ৯টি উপজেলায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু  » «   শোকে স্তব্ধ শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১১  » «   জিন তাড়ানোর বাহানায় যৌন সম্পর্ক গড়তো সেই পিয়ার  » «   ভারতের মিডিয়া ও বিজেপির প্রতি ক্ষুব্ধ শ্রীলঙ্কার নেটিজেনরা  » «   পড়াশোনা না করলে জীবনের অর্থ সংকীর্ণ হয়ে ওঠে: শিক্ষামন্ত্রী  » «   এমডিকে ‘ওয়াসার সুপেয় পানির’ শরবত খাওয়াবেন জুরাইনবাসী  » «   হুমকি না থাকলেও সতর্ক আছে বাংলাদেশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   নকল তামাক পণ্য : হুমকিতে জনস্বাস্থ্য, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার  » «   ৬ দিনের সফরে সিলেটে পৌঁছেছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ  » «   শাহজালাল বিমানবন্দরের টয়লেট থেকে ৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার  » «   ফেঞ্চুগঞ্জে ঘরে ঢুকে হত্যাচেষ্টা, ছুরিসহ আটক  » «   শ্রীলংকায় বোমা হামলায় সুনামগঞ্জের শিশু জায়ান নিহত  » «  

রাজশাহীতে বোমা হামলা: বিএনপির দুই নেতার কথোপকথন ফাঁস (অডিও)



নিউজ ডেস্ক::রাজশাহীতে বিএনপি মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের সমাবেশে বোমা হামলা নিয়ে দুই নেতার কথোপকথনের অডিও পেয়েছে গোয়েন্দারা। এর ভিত্তিতেই শনিবার (২১ জুলাই) রাতে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মন্টুকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিজেদের দলের লোকজন দিয়ে এই হামলা চালানো হয়েছে বলে দলের কেন্দ্রীয় সহদফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলামকে মোবাইল ফোনে জানান মন্টু। এক মিনিট ৪৪ সেকেন্ডের এই কথপোকথনের রেকর্ড বিডি২৪লাইভের হাতে এসেছে।

তবে গোয়েন্দাসূত্রে পাওয়া এই অডিও রেকর্ডের সত্যতা বিডি২৪লাইভের পক্ষে স্বাধীনভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে বিএনপির কয়েকজন নেতা জানিয়েছেন, সরকারি গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন এসব বানিয়ে বিএনপিকে বেকায়দায় ফেলার চেষ্টা করছে।

ওই অডিও রেকর্ডের কথোপকথন অনুযায়ী, মতিউর রহমান মন্টু নিজে তাইফুল ইসলামকে ফোন করেন। নিচে কথোপকথনের রেকর্ড হুবহু তুলে দেওয়া হলো-

তাইফুল ইসলাম: জ্বি ভাই।
মতিউর রহমান মন্টু: ভালো আছো ?
তাইফুল: জ্বি ভাই।
মন্টু: এই তো কালকে কাম কাজ, প্রচণ্ড রোদের তাপে জ্বর, অসুস্থ। তো গত পরশু দিন যে ঘটনা ঘটেছে তা শুনছো তো না-কি?
তাইফুল: এই একটু শুনেছি বেশি শুনি নাই। ওই যে বোমা মারিছে ওই টা তো?
মন্টু: হ্যাঁ।
তাইফুল: সেইটা তো জানি।
মন্টু: জানো, তো কারা করলো, সেইটা কি জানো?
তাইফুল: হ্যাঁ?
মন্টু: কারা করেছে সেইটা কি জানো?
তাইফুল: তা জানি না।
মন্টু: যাক আমি যে কথাটা বলবো তা হজম করবা, পারলে জায়গা মতো বলবা। আমাদের দুই ভাই জড়িত।
তাইফুল: হ্যাঁ…?
মন্টু: আমাদের দুইজন জড়িত। বিএনপির লোক দিয়ে কাজ করানো হয়েছে। ভাইয়ের কাছ থেকে ক্রেডিট নেওয়ার জন্য আমার নির্দেশে কাজ করছে।
তাইফুল: কোন দুই ভাই?
মন্টু: নাটোরের খালেক আর জাবেদ।
তাইফুল: এটা আমার বিশ্বাস হয়।
মন্টু: জাভেদ হলো শাহিন শওকত ভাইয়ের লোক।
তাইফুল: হ্যাঁ, ঠিকা আছে এইটা আমার বিশ্বাস হয়।
মন্টু: এটা হওয়ার সাথে সাথে…ভাইয়াকে…সব ঠিক হয়ে গেছে। আমার মিছিলে লোক কম পড়ছে। আমাদের নেতা তো এখন খালি ফটোসেশন ভাই। এটা তো দলের ক্ষতি হচ্ছে।

এদিকে শনিবার রাতে মতিউর রহমান মন্টুকে গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে কথোপকথনের কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রবিবার দুপুরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘মতিউর রহমান মন্টু ফোনে কথার বিষয়টি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন। ফোনালাপে তিনি যাদের কথা বলেছেন তাদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

গোয়েন্দা সূত্র জানায়, মতিউর রহমান মন্টু ও তাইফুল ইসলাম টিপু ফোনালাপে যাদের কথা বলেছেন, তাদের একজন শাহীন শওকত বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক। হামলাকারী জাভেদ তার লোক। অপর একজন নাটোরের খালেক। তাকেও শনাক্তের পর গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ জুলাই বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পক্ষে নগরীর সাগরপাড়া এলাকার পথসভায় বোমা হামলা হয়। চারটি মোটরসাইকেলে আটজন যুবক ঘটনাস্থলে গিয়ে পরপর তিনটি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যান।

সে ঘটনায় বাংলাভিশনের সাংবাদিক পরিতোষ চৌধুরী আদিত্যসহ দুইজন আহত হন। এ ঘটনার জন্য বিএনপি দায়ী করে আওয়ামী লীগকে। তবে ঘটনার দিনই সংবাদ সম্মেলন করে মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে বিএনপি নিজেরাই এ কাণ্ড ঘটিয়েছে।’

লিটন সেদিন দাবি করেন, ঘটনার আগের দিন লন্ডনে অবস্থানরত তারেক রহমানের সঙ্গে বিএনপি নেতা রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর দীর্ঘ সময় কথা হয়। তারেকের পরিকল্পনায় দুলু এই বোমা হামলার ঘটনা ঘটান। এ সময় লিটন তার গ্রেফতারও দাবি করেন।

এ ঘটনার দুই দিন পর তাইফুল ইসলাম টিপুর সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলেন মতিউর রহমান মন্টু। শনিবার রাতে তাদের সেই কথোপকথনের অডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: