বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবনায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ে কমিউনিটি ক্লিনিক-এ কমর্রত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোভাইডারদের অবস্থান কর্মসূচী পালন  » «   আল-আকসা সংস্কারে ইসরাইলের নিষেধাজ্ঞা!  » «   ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মানববন্ধন ১৮ জানুয়ারি  » «   এক সপ্তাহেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ পরীক্ষার্থী বাপ্পীর  » «   উজানের দেশ সমূহ হতে বাংলাদেশে মোট ৫৭ টি নদী প্রবাহিত  » «   নরসিংদীতে অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার  » «   এ দেশে কোনো দস্যুতা চলবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো শিক্ষক  » «   হবিগঞ্জের স্কুল পরিদর্শনে কোরিয়ার প্রতিনিধি দল  » «   সড়কে পড়ে গিয়ে যা বললেন আইভী!  » «   বেসরকারি হাসপাতালে চলছে নৈরাজ্য!  » «   নীলফামারীতে নকল সার উদ্ধার, ২০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   সিলেটে বোলারদের দাপট  » «   ৩ লাখ ৫৯ হাজার ২৬১ সরকারি পদ শূন্য  » «   ডাকসু নির্বাচন নিয়ে হাইকোর্টের রায় বুধবার  » «  

রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় হামলার পরিকল্পনা ছিল জঙ্গিদের



নিউজ ডেস্ক::রাজধানীর পশ্চিম নাখালপাড়ার পুরাতন এমপি হোস্টেল সংলগ্ন রুবি ভিলায় গতকাল রাতে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে চালানো এই অভিযানে ৩ জন নিহত হয়েছে। এই তিনজনই জেএমবি সদস্য বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ।

তিনি বলেন, জঙ্গিদের রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ বড় বড় স্থাপনায় হামলা চালানোর পরিকল্পনা ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৬ তলা বাড়িটির পঞ্চম তলায় কয়েকজন জঙ্গি সদস্য রয়েছেন বলে জানতে পারি আমরা। এই তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালাতে গেলে বাড়ির ভিতর থেকে গুলিবর্ষণ ও গ্রেনেড ছুড়ে মারা হয়। র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি ছুড়লে হতাহতের ঘটনা ঘটে। এতে দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

র‌্যাবের এ মুখপাত্র বলেন, মূলত র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতেই জঙ্গিরা নিহত হয়েছে। রাজধানীতে বড় ধরণের নাশকতা করার পরিকল্পনা ছিল জঙ্গিদের। এখানেও বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো। কিন্তু আল্লাহর রহমতে তেমন কিছুই ঘটেনি। বাড়ির সবাই নিরাপদে আছে।

মুফতি মাহমুদ বলেন, বাড়ির মালিক ও ম্যানেজারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব হেফাজতে নেয়া হয়েছে। যে রুমে জঙ্গিরা ছিল সেই রুম থেকে প্রচুর বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে। তাতে মনে হচ্ছে তাদের বড় ধরণের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল।
তিনি আরও বলেন, ৬ তলা বাড়িটির তিনটি ফ্ল্যাটে মেস ছিল। এর মধ্যে ৫ তলার পূর্বে পাশের ফ্ল্যাটে ওই তিন জঙ্গি থাকত। তাদের মধ্যে একজন জাহিদ পরিচয় দিয়ে ৮ জানুয়ারি ওই ফ্ল্যাট ভাড়া নেয়। নিহত তিনজনের মধ্যে কথিত জাহিদও আছে বলে মনে হচ্ছে। তবে তার প্রকৃত নাম জাহিদ কিনা সেটা যাচাই করে দেখা হচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত জঙ্গিদের কারো পরিচয় নিশ্চত হওয়া যায়নি। তদন্ত শেষ হলে বিস্তারিত জানা যাবে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ১০০ গজের মতো দূরে ‘রুবি ভিলার’ অবস্থান। সাংসদদের সরকারি বাসভবন বা ন্যাম ভবনের কাছেই এটি। জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়িটি ঘিরে ফেলার পর ভেতরে থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ও গ্রেনেড ছুড়ে জঙ্গিরা। এসময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এতে ওই ভবনের ভেতরে থাকা বেশ তিনজন জঙ্গি নিহত হয়েছেন। এতে দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। ভবনটির মালিক সাব্বির হোসেন। তিনি বিমানবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: