বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের ‘বিরোধিতায়’ ১১ জেলায় বাস চালানো বন্ধ  » «   নগরীতে ৪৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পিয়াজ, ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন  » «   বলিভিয়ার অশান্তির নেপথ্যে ‘সাদা সোনা’, যা পরবর্তী বিশ্বের আকাঙ্ক্ষিত বস্তু  » «   আবরার হত্যা: পলাতক চারজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি  » «   ‘অপকর্মে’ সংকুচিত দ. কোরিয়ার শ্রমবাজার  » «   ৩০০ টাকার পিয়াজ সরকারের দিনবদলের সনদ: ডাকসু ভিপি নুর  » «   অযোধ্যা রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করছে মুসলিমরা  » «   ভাঙছে শরিক দল সঙ্কটে ঐক্যফ্রন্ট  » «   হলি আর্টিসান হামলা: রায় ২৭ নভেম্বর  » «   চাকা ফেটেছে নভোএয়ারের, ভাগ্যগুণে বেঁচে গেলেন ৩৩ যাত্রী  » «   হাত-পা ছাড়াই মুখে ভর করে লিখে পিইসি দিচ্ছে লিতুন  » «   প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া বিএনপির চিঠিতে আবরার হত্যার বর্ণনা  » «   ১৫০ যাত্রী নিয়ে মাঝ আকাশে বিপাকে ভারতীয় বিমান, রক্ষা করল পাকিস্তান  » «   বিমান ছাড়াও ট্রেন, ট্রাক, বাসে করে আসছে পেঁয়াজ: সিলেটে পরিকল্পনামন্ত্রী  » «   চুক্তির তথ্য জানতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল বিএনপি  » «  

রক্ত দিয়ে দেশে সুশাসন ফিরিয়ে আনব: খালেদা (লাইভ আপডেট)



13. khaledaনিউজ ডেস্ক::
বেলা ৫ টা ৫ মিনিট:
গণমাধ্যমে বক্তব্য দেয়া শেষে আবারো গুলশানের কার্যালয়ের ভেতরে ফিরে গেছেন বেগম জিয়া। বেগম জিয়ার সাথে অন্যান্যরাও কার্যালয়ে ফিরে গেছেন।

বেলা ৫ টা ২ মিনিট:
বেগম জিয়ার বক্তব্য: রক্ত দিয়ে হলেও দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন বেগম জিয়া। কেন হঠাৎ এত নিরাপত্তা? কিসের জন্য এত নিরাপত্তা? আমি নয়াপল্টনের কার্যালয়ে যেতে চাই। সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের অবরোধের ডাক খালেদা জিয়ার। বিএনপি সহ ২০ দলের নেতাকর্মীদের অবরোধ সফল করার আহবান জানান বেগম জিয়া

কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। ১৪৪ ধারা জারি করে সমাবেশ বন্ধ করা যাবেনা। এই সরকার যত আইন পাশ করেছে সব অকার্যকর হয়ে যাবে। বিশেষ জেলা এবং ছাত্রলীগ পুলিশের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। পুলিশের উদ্দেশ্যে বেগম জিয়া বলেছেন, বেশি বাড়াবাড়ি করবেননা। এই বাড়াবাড়ি বেশিদিন টিকবেনা। সরকারের তৎপরতা দেখে মনে হচ্ছে দেশে যুদ্ধাবস্থা বিরাজ করছে। বর্তমান সরকার অবৈধ, জালিম সরকার। তারা নিরীহ মানুষের উপর হামলা করছে, গুম করছে, খুন করছে। এসব কিছুর জন্য এই অবৈধ সরকারই দায়ী। এই অবস্থা চলতে পারেনা। সরকারের পায়ের নিচে মাটি নেই। এই সরকার দেশকে কারাগারে রুপান্তরিত করেছে। দেশে কোনো স্বাভাবিক অবস্থা নেই। সর্বত্র অস্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করছে: বেগম জিয়া

বেলা ৪ টা ৩৮ মিনিট:
গাড়ি থেকে নেমছেন বিএনপি নেত্রী বেগম জিয়া। তিনি এখন গণমাধ্যমের সাথে কথা বলছেন। বেলা ৪ টা ৩৩ মিনিট:সংগ্রাম চালিয়ে যেতে খালেদা জিয়া বিএনপি নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন: খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী।

বেলা ৪ টা ২৬ মিনিট:
গোয়েন্দারা নিশ্চিত করেছেন যে, তাদের কাছে খবর ছিলো বিএনপি নেত্রী সমাবেশের নামে অরাজকতা তৈরী করতে চান। এজন্যই তারা বেগম জিয়াকে সমাবেশ করতে দিবেনা। ইতিমধ্যে বেগম জিয়াকে সেটা জানিয়েও দেয়া হয়েছে।

বেলা ৪টা ২৪ মিনিট:
গাড়িতে বসে আছেন বেগম জিয়া। তাঁকে ঘিরে দাঁড়িয়ে আছে বিএনপির প্রচুর নেতাকর্মী। ৪টা ২২ মিনিট: খোলেদা জিয়ার গেটে তালা মারায় সরকারবিরোধী স্লোগান দিচ্ছে বিএনপির নারী নেত্রীরা।

৪ টা ২০ মিনিট:
৮ স্তর থেকে বাড়িয়ে নিরাপত্তা ৯ স্তর করা হয়েছে। জলকামান বেগম জিয়ার গাড়ির দিকে তাক করে রাখা হয়েছে।

৪টা ১৬ মিনিট:
খালেদা কার্যালয়ের আশেপাশের পরিবেশ- কার্যালয়ের ঠিক সামনেই প্রচুর সংখ্যক পুলিশ রয়েছে। এর পরই আছে জলকামান বহনকারী ভারী একটি গাড়ি। এর দু পাশে আছে পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তাদের বহনকারী অনেকগুলো গাড়ি। তারপর রাস্তার ওপরই রাখা আছে বেশ কয়েকটি বালু ও পাথরভর্তি ট্রাক।

বেলা ৪ টা ১১ মিনিট:
খালেদার গাড়ি থেকে তীব্র হর্ন দেয়া হচ্ছে এবং গাড়ি থেকে কালো পতাকা দেখানো হচ্ছে।

বেলা ৪টা ৪ মিনিট:
পুলিশ বলছে, ১৪৪ ধারা ভেঙ্গে বেগম জিয়াকে কোথাও যেতে দেয়া হবেনা। কিন্তু তিনি যদি নিজ বাড়িতে যেতে চান, তাইলে তাকে সেখানে যেতে দেয়া হবে।

বেলা ৪ টা:
বিএনপি কর্মীদের গেট থেকে সরাতে পিপার স্প্রে নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। স্প্রে থেকে রক্ষা পেতে গেটের ভেতর আগুন জালিয়েছেন বিএনপি নেতা কর্মীরা। স্প্রেতে একজন আহত হয়েছেন।

বেলা ৩টা ৫৫:
নয়াপল্টনে যাওয়ার জন্য গাড়িতে উঠেছেন বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। নয়াপল্টনের উদ্দেশ্যে গুলশানের কার্যালয় থেকে রওনা দিতে গাড়িতে উঠেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। তার গাড়ির সামনে মহিলা দলের কয়েকজন নেত্রী কালো পতাকা হাতে অবস্থান করছেন। বন্ধ দরজা থেকে গাড়ির দূরত্ব মাত্র কয়েক গজ। এদিকে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীরাও প্রস্তুত রয়েছেন, যাতে খালেদা জিয়া বের হলে নিরাপত্তার কোনো বিঘ্ন না ঘটে। বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এমএ কাইয়ূম সাংবাদিকদের বলেছেন, খালেদা জিয়াকে বহনকারী গাড়ি বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। বেলা ৩টা ৫২ মিনিটের দিকে তিনি বাসা থেকে বের হয়ে গাড়িতে উঠেছেন। কিন্তু তাঁর কার্যালয়ের মূল গেটে এখনো তালা ঝুলিয়ে রেখেছে পুলিশ। কার্যালয়ের সামনে এখনো প্রচুর পুলিশ অবস্থান করছে। এছাড়া খালেদার পথ আটকাতে বেশ কয়েকটি বালু ও পাথরের ট্রাক রাস্তায় রাখা হয়েছে।

এর আগে গুলশান কার্যালয়ের মূল গেটে সোমবার দুপুর ১২টার দিকে তালা ‍লাগিয়ে দেয় পুলিশ। এর পর দুপুর পৌনে ১টার দিকে গুলশান কার্যালয়ের অপর একটি গেটেও পুলিশ তালা লাগিয়ে দেয়। বিএনপির গুলশান কার্যালয়ের সামনে এই মুহূর্তে পুলিশের সাথে বিএনপি নেতাকর্মীদের তীব্র হট্টগোল চলছে। নিরাপত্তা কর্মীরা আবারও খালেদা জিয়ার গাড়ি ঘিরে দাঁড়িয়েছেন। তার গাড়ি চলতে শুরু করেছে। তালা ভাঙার চেষ্টা চলছে এর আগে বেলা ১২টায় একবার খালেদা জিয়া বের হবেন এমন রব উঠেছিলো।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: