বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২৭ জুলাই খালেদার মুক্তি দাবিতে জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ  » «   মৌসুমি বায়ু দুর্বল, বর্ষার বর্ষণ নেই  » «   সিলেটে দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু  » «   হরিণাকুণ্ডুতে র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সদস্য নিহত  » «   পুলিশের সোর্স মামুন মাদক ব্যবসায়ীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও  » «   ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরি, সালিসে জরিমানার টাকা ভাগাভাগি!  » «   আইনমন্ত্রীর বাসায় প্রধানমন্ত্রী  » «   ‘এদেরকে নিয়েই মান্না সাহেব দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করিবেন’  » «   রাশিয়ায় বিশ্বকাপ দেখতে গিয়ে পুলিশের জালে বাংলাদেশী যুবক  » «   বিদেশ ও জেল থেকে আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণ করছে শীর্ষ সন্ত্রাসীরা  » «   বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত মনোনীত রবার্ট মিলার  » «   বেবী নাজনীন অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি  » «   কোটা আন্দোলন: ছাত্রলীগের হুমকিতে ক্যাম্পাস ছাড়া চবি শিক্ষক  » «   ভেবেই ক্লাব বদল করেছেন রোনালদো  » «   ভারতে নিষিদ্ধ, অন্য দেশে পুরস্কৃত যেসব ছবি  » «  

যে জঙ্গলে মানুষ একবার গেলে ফিরে আসার সম্ভাবনা কম!



bdp 02(2)নিউজ ডেস্ক: পানি, জঙ্গল, পাহাড় – এমন প্রকৃতির কোলে মুক্তির আস্বাদ যেন নতুন করে বেঁচে থাকার রসদ জোগায়। কিন্তু এই মুক্তি তো হয় ক্ষণিকের মুক্তি। প্রবল কাজের চাপ এবং শহরের একঘেয়ে জীবন থেকে কিছুক্ষণ দূরে থাকার অজুহাত মাত্র।

কিন্তু এমন জঙ্গল এবং প্রকৃতির কাছে যাওয়া কি সহজ যা আপনাকে চিরকালের জন্য ইহলোক থেকে মুক্তি দিবে? যে জঙ্গলে গেলে আর ফিরে আসা যায় না, এমন জঙ্গলে কখনও ঘুরতে গেলে কি ভয় করবে না আপনার। ভাবছেন এমন জঙ্গল আবার হয় নাকি।

জাপানের আহকিগোহরা এমনই এক জঙ্গলের সন্ধান পাওয়া গেছে। ঘন এই জঙ্গলের পথ ধরেই মাউন্ট ফুজির দিকে যেতে হয়। লাভা শিলায় সমৃদ্ধ এই জঙ্গল পৃথিবীর অন্যতম সুইসাইড স্পটগুলির একটি। ঘন জঙ্গলে ঘেরা এই অঞ্চলটিতে প্রতি বছর নাকি ১০০-র বেশি মানুষ আত্মহত্যা করেন। কিন্তু কেন এখানে মানুষ আসেন আর ফিরে যান না তা নিয়ে জল্পনার শেষ নেই।

বছরের নানা সময়ে সেখান থেকে মানুষের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। মৃত ব্যক্তিরা সেখানে আত্মহত্যা করেছে কিনা তাও বোঝা সম্ভব হয় না। কেবল নিথর দেহ উদ্ধার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

এই জঙ্গলে এমন ভয়াবহ আত্মহত্যা রুখতে বহু চেষ্টা চালানো হয়েছিল জাপান প্রশাসনের পক্ষ থেকে। জঙ্গলে প্রবেশ করতে নিষেধ করা হয়েছিল। কিন্তু তারপরেও মৃত্যুর মিছিল জারি রয়ে গিয়েছে এই জঙ্গলে। প্রাণপিপাসু এই জঙ্গল এখনও কয়েকশো মানুষের প্রাণ নেয় নির্দ্বিধায়।

জঙ্গলে যারা যায়, তাদের ফিরে আসার আশা প্রায় শেষ হয়ে যায় বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই৷ কেবল আত্মহননের জন্যই এই জঙ্গলে মৃত্যুর মিছিল চলে, তেমনটা নয়। অনেক সময় ট্রেকিং করতে এসেও বহু মানুষের প্রাণ যায় এই জঙ্গলে। বলা হয়, এই মৃত মানুষের আত্মারাই নাকি রয়ে যান এই জঙ্গলে এবং পরবর্তী পর্যটকদের জীবনের দায় থেকে মুক্ত হতে বাধ্য করে।

এক কথায়, এই জঙ্গলে মানুষ অকারণে আত্মহত্যা করে, এই কথা মেনে নিতে নারাজ সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা। তাদের দাবি, সেখানে এমন কোনো অচেনা শক্তি রয়েছে যা এক এক করে মানুষের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: