বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পূজায় বিজিবিকে মিষ্টি পাঠিয়েছে বিএসএফ  » «   উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে ‘ট্রেনে কাটা’ পড়ে মৃত্যু  » «   আত্মসমর্পণের আহ্বানে সাড়া দিচ্ছে না জঙ্গিরা  » «   শিশু জয়নাব ধর্ষণ-হত্যা : ইমরানের ফাঁসি কার্যকর  » «   ‘বেত ও বেলুন দিয়ে মারে,পরে নখে সুই ঢুকিয়ে মাথার চুল কেটে দেয়’  » «   বউকে বৃষ্টিতে ফেলে ছাতা মাথায় ট্রাম্প!  » «   ঋণের পরিবর্তে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব ব্যাংক ম্যানেজারের,অতঃপর..  » «   খাশোগি নিখোঁজ, বেনিফিট অব ডাউটের সুবিধা পাচ্ছে সৌদি  » «   নিরাপদ খাদ্যে আমরা অনেক পিছিয়ে আছি: ক্যাব সভাপতি  » «   শাবিপ্রবি’র ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ  » «   আত্মসমর্পণ না করলে ‘নিলুফা ভিলায়’ অভিযান আজ  » «   রিয়াদ পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী  » «   খাশোগি হত্যা বনাম সৌদি যুবরাজের কালো অধ্যায়  » «   অপারেশন ‘গর্ডিয়ান নট’ সমাপ্ত, দুই জঙ্গির মরদেহ উদ্ধার  » «   ২০ দলীয় জোট থেকে বেরিয়ে গেল ন্যাপ ও এনডিপি  » «  

যে কারণে পাকিস্তানিদের পনির খাওয়া বন্ধ করছেন ইমরান খান!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ক্ষমতায় আসার পর দেশটির পানির সমস্যা মেটাতে অর্থ সাহায্যের আবেদন করেন প্রবাসী পাকিস্তানিদের কাছে। যাতে সেই অর্থ দিয়ে পাকিস্তানের বাঁধ ও জলাধারগুলোর সংস্কার করে উন্নতি সাধন করা যায়। আর এবার তিনি দাবি করছেন যে, পাকিস্তান ঋণের বোঝায় আক্রান্ত। আর সেই ঋণ থেকে মুক্তি পেতে পাকিস্তানে নিষিদ্ধ হয়ে যেতে পারে পনির!

রয়টার্সে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী,পাকিস্তানের ইকোনমিক অ্যাডভাইজরি কাউন্সিল এক আলোচনায় সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে,বিভিন্ন বিলাসবহুল জিনিসের আমদানি বন্ধ করা হবে পাকিস্তানে। আর এসব জিনিসের তালিকায় রয়েছে স্মার্টফোন ও পনির।আচমকা পনির নিষিদ্ধ হওয়ার কথায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে পাকিস্তানিদের মধ্যে।

পনির নিষিদ্ধ করে কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে পাকিস্তানের অর্থনীতি,সেটাই ভেবে পাচ্ছেন না অনেকে।ওমর কুরেশি নামে এক পাকিস্তানি রীতিমত হিসেব-নিকেশ কষে দেখিয়ে দিয়েছেন,পাকিস্তানের ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষের বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ৩৭.৭ বিলিয়ন ডলার।আর পাকিস্তানের মোট পনির আমদানি হয় ১৩ মিলিয়ন ডলারের, যা নাকি ঘাটতির তুলনায় মাত্র ০.০৩৪৪ শতাংশ। তাই পনির ব্যান করে পাকিস্তান কতটুকু লাভের মুখ দেখবে,কার্যত সেই প্রশ্নই তুলে ধরেছেন তিনি।

এদিকে,এক পাকিস্তানি অর্থনীতিবিদ আশফাক হাসান খান বলেন,‘পাকিস্তানের প্রচুর বিদেশি পনির আসছে।বাজার ভরে গিয়েছে বিদেশি পনিরে।যে দেশের কাছে ডলার নেই,সেই দেশের পক্ষে কি বিদেশি পনির খাওয়াটা মানায়?’

এদিকে, দেশটিতে নতুন বাঁধ ও জলাধার নির্মাণের জন্য প্রয়োজন বিপুল অঙ্কের অর্থ।যা পাকিস্তান সরকারের হাতে নেই। সেই অর্থাভাব মেটাতেই ইমরান খানের সাহায্যের এই আরজি বলে মত বিশেষজ্ঞদের।পাকিস্তানের পানির সমস্যা মেটাতে ও কৃষিকাজে গতি আনতে বেশ কয়েকটি বাঁধ নির্মাণ অত্যন্ত জরুরি বলে মনে করা হচ্ছে।আর সেজন্যই প্রবাসী নাগরিকদের কাছে সাহায্যের আবেদন করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

সম্প্রতি পাকিস্তানের এক জাতীয় সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, বাঁধ ও জলাধার নির্মাণ করতে গেলে এখন পাকিস্তানের প্রয়োজন কয়েক বিলিয়ন ডলার।যার জন্য তাঁর ভরসা প্রবাসী পাকিস্তানিরা।তাদের প্রত্যেকের কাছে তিনি অনুরোধ জানিয়েছেন যে,পাকিস্তানকে যেন তাঁরা অর্থ সাহায্য করেন।এর আগে, পাক প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে ছিলেন,পাকিস্তানের নাগরিকদের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন তার সরকারের অন্যতম লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যে কাজ করতে চাইছে পাক সরকার।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: