রবিবার, ১৫ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রাশিয়া বিশ্বকাপরেকর্ড গড়া হলো না ক্রোয়েশিয়ার, চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স  » «   ভাতিজিকে ঘরে ডেকে নিয়ে চাচার কাণ্ড!  » «   যৌনরোগের ভয়ঙ্কর উপসর্গগুলি এক নজরে দেখে নিন  » «   রাশিয়া বিশ্বকাপবিশ্বজয়ের লক্ষ্যে মুখোমুখি ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া  » «   মাদার তেরেসা ভণ্ড, শয়তান, জালিয়াতঃ তসলিমা  » «   যে কারণে অল্প বয়সে বিয়ে করেছেন শাহরুখ  » «   গ্রামে গ্রামে নগর সুবিধা দেয়া হবে -পাবনায় প্রধানমন্ত্রী  » «   হরিদাসের উপর হামলাকারীদেরকে ক্ষমা করা হবে না —-মোমিন মেহেদী  » «   বিয়ের পর বেশ হাসি খুশি মিঠুন পুত্র  » «   জাতীয় পরিচয়পত্র হারানোদের জন্য সুখবর  » «   ‘আমি ডিজির লোক, আমাকে ভয় দেখিয়ে লাভ নেই’  » «   কুবিতে ‘বরিশাল ডিভিশনাল স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন’র নবীনবরণ  » «   মুক্তিযোদ্ধাদের বয়স কেন সাড়ে ১২ : হাইকোর্টের প্রশ্ন  » «   ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন পুরো টার্মিনাল : শাহজালাল বিমানবন্দরে আগুন  » «   স্কুল ছাত্রীর স্পর্শকাতর জায়গায় বৃদ্ধের হাত, অতঃপর  » «  

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা



প্রবাস ডেস্ক :: যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে প্রবাসী এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নিহত সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়ার (৩৫) বাড়ি নোয়াখালী জেলায়।

টলান্টার ডাউন টাউনের ওয়েস্ট ভিউ ড্রাইভে সাইফুলের গ্রোসারি স্টোরের সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় পুলিশ বলছে, রাতে দোকান থেকে বাড়ি ফেরার জন্য গাড়িতে ওঠার পরপরই সাইফুলের দিকে গুলি করা হয়।
সাইফুলের দোকানের ক্যামেরা থেকে আটলান্টা পুলিশের উদ্ধার করা ভিডিওতে দেখা যায়, সাইফুলের গাড়িটি দোকান থেকে পার্কিং লট পার হয়ে রাস্তার ওঠার মুহূর্তে একটি সাদা গাড়ি সামনে এসে দাঁড়ায়। ওই গাড়ি থেকে বেরিয়ে এসে দুই হামলাকারী সাইফুলের গাড়ির কাচ ভেদ করে দুই রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

সাইফুলের গাড়িটি চলতে শুরু করলে দুই মিনিটের মাথায় দুই হামলাকারী আবারও গুলি করে, তারপর পালিয়ে যায়।

সাইফুলের বড় ভাই মুখলেস ভূঁইয়া জানান, তারা ছয় ভাই আটলান্টায় থাকেন। সাইফুল যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিলেন ২০০২ সালে। তার দুটি সন্তান রয়েছে। ‘সাইফুল আর আমার আরেক ভাই বিপুল মিলে গ্রোসারি স্টোর চালাতো। রেজোয়ান বাংলাদেশ থেকে আটলান্টায় আসে তিন মাস আগে।’

মুখলেস বলেন, ফ্লোরিডায় ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সোমবার আটলান্টার মানুষও দিনভর প্রস্তুতি নিচ্ছিল। সবাই নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে বাড়ি ফিরছিলেন। এ কারণে সন্ধ্যা থেকেই সাইফুলের দোকানে ক্রেতার আনাগোনা কমে গিয়েছিল।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: