মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অবশেষে বাড়ছে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স  » «   টানা দুই সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলে ঝুঁকিতে পড়বে নিবন্ধন: ইসি  » «   সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করুন: বিশ্বনেতাদের প্রধানমন্ত্রী  » «   আসামের নাগরিক তালিকা সংশোধন শুরু, চলবে দুই মাস  » «   শিক্ষার উন্নয়নে মুনাফার মানসিকতা ত্যাগের আহ্বান শেখ হাসিনার  » «   ভারতে ‘গণেশ’ বিসর্জন দিতে গিয়ে ১৮ জনের মৃত্যু  » «   পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে চান ভারতীয় সেনাপ্রধান  » «   প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন  » «   কাশ্মীরে বিদ্রোহীদের টার্গেট এখন পুলিশ  » «   রোহিঙ্গাদের জন্য ১৩শ কোটি টাকার মার্কিন সহায়তার ঘোষণা  » «   ট্রাক চাপায় অটোরিকশার চালকসহ নিহত ৫  » «   দুর্নীতির প্রমাণ পেলেই সিনহার বিরুদ্ধে মামলা হবে: দুদক চেয়ারম্যান  » «   মানব পাচারের ঝুঁকি বেড়েই চলেছে: জাতিসংঘে প্রতিমন্ত্রী  » «   আরপিও সংশোধন: সরকারের দিকে তাকিয়ে ইসি  » «   রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর ৩ প্রস্তাব  » «  

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি ৫ সমকামী পুরুষের ১ জন এইডস আক্রান্ত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-এর একটি গবেষণায় দেখা গেছে, দেশটির ২১টি বড় শহরে প্রতি ৫ জন সমকামী পুরষের একজনই এইচআইভি ভাইরাসে আক্রান্ত।ওই প্রতিষ্ঠানের মার্কিন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান, অথচ আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেক জানেনই না যে তাদের শরীরে এইচআইভি ভাইরাস রয়েছে।এক্ষেত্রে যুবক ও কৃষ্ণাঙ্গ সমকামী তরুণদের মধ্যে এইচআইভি বিষয়ে অজ্ঞতার প্রবণতা বেশি।

সিডিসি এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ বিভাগের পরিচালক ডা.জোনাথন মারমিন বলেন, ‘সমকামী ও উভকামী পুরুষদের মধ্যে এইচআইভি ভাইরাস প্রতিরোধ করতে আমাদের প্রচেষ্টা নতুন করে শুরু করতে হবে।’জুলাইয়ে হোয়াইট হাউজ একটি এইডস নীতি গ্রহণ করেছে।ওই নীতিমালায় বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সংস্থাকে এইচআইভি সংক্রমণের হার ২৫ শতাংশ কমাতে উপায় বের করতে বলা হয়েছে।

সিডিসি’র গবেষকরা ২১টি বড় শহরে বসবাসরত ৮,১৫৩ জন সমকামী পুরুষকে পরীক্ষা করেছেন।এদের ২০ শতাংশের মধ্যেই এইচআইভি ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।তবে কৃষ্ণাঙ্গদের মধ্যে এই হার আরও বেশি প্রায় ২৮ শতাংশ। হিসপ্যানিক (১৮%) ও শ্বেতাঙ্গদের (১৬%) মধ্যে তুলনামূলকভাবে কম।

গবেষণায় আরও দেখা গেছে, এইচআইভি আক্রান্ত কৃষ্ণাঙ্গ পুরুষদের ৫৯ শতাংশই জানতেন না তারা এই ভাইরাস বহন করছেন।হিসপ্যানিক পুরুষদের ক্ষেত্রে এই হার ৪৬ শতাংশ আর শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের মধ্যে ২৬ শতাংশ।

মারমিন বলছেন, আগের মতো মানুষ এখন এইচআইভি সংক্রমণ নিয়ে অত আতঙ্ক বোধ করেন না।এর একটি কারণ হতে পারে এইডস চিকিৎসার কার্যকারিতা।এই রোগ সারানো না গেলেও কিছু ওষুধের মাধ্যমে রোগীদের স্বাস্থ্যবান রাখা সম্ভব।এছাড়া তাদের কাছ থেকে অন্য মানুষের মধ্যে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিও কমানো যায়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: