মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শ্রীমঙ্গলে থামছে না অসাধু ব্যবসায়ীদের অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, নিশ্চুপ প্রশাসন!  » «   জাজিরা প্রান্তে বসল ১১তম স্প্যান, দৃশ্যমান ১৬৫০ মিটার  » «   দক্ষিণ সুরমায় ইজতেমার অনুমোদন এখনো মেলেনি  » «   সিলেটের ৯টি উপজেলায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু  » «   শোকে স্তব্ধ শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১১  » «   জিন তাড়ানোর বাহানায় যৌন সম্পর্ক গড়তো সেই পিয়ার  » «   ভারতের মিডিয়া ও বিজেপির প্রতি ক্ষুব্ধ শ্রীলঙ্কার নেটিজেনরা  » «   পড়াশোনা না করলে জীবনের অর্থ সংকীর্ণ হয়ে ওঠে: শিক্ষামন্ত্রী  » «   এমডিকে ‘ওয়াসার সুপেয় পানির’ শরবত খাওয়াবেন জুরাইনবাসী  » «   হুমকি না থাকলেও সতর্ক আছে বাংলাদেশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   নকল তামাক পণ্য : হুমকিতে জনস্বাস্থ্য, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার  » «   ৬ দিনের সফরে সিলেটে পৌঁছেছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ  » «   শাহজালাল বিমানবন্দরের টয়লেট থেকে ৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার  » «   ফেঞ্চুগঞ্জে ঘরে ঢুকে হত্যাচেষ্টা, ছুরিসহ আটক  » «   শ্রীলংকায় বোমা হামলায় সুনামগঞ্জের শিশু জায়ান নিহত  » «  

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি ৫ সমকামী পুরুষের ১ জন এইডস আক্রান্ত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-এর একটি গবেষণায় দেখা গেছে, দেশটির ২১টি বড় শহরে প্রতি ৫ জন সমকামী পুরষের একজনই এইচআইভি ভাইরাসে আক্রান্ত।ওই প্রতিষ্ঠানের মার্কিন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান, অথচ আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেক জানেনই না যে তাদের শরীরে এইচআইভি ভাইরাস রয়েছে।এক্ষেত্রে যুবক ও কৃষ্ণাঙ্গ সমকামী তরুণদের মধ্যে এইচআইভি বিষয়ে অজ্ঞতার প্রবণতা বেশি।

সিডিসি এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ বিভাগের পরিচালক ডা.জোনাথন মারমিন বলেন, ‘সমকামী ও উভকামী পুরুষদের মধ্যে এইচআইভি ভাইরাস প্রতিরোধ করতে আমাদের প্রচেষ্টা নতুন করে শুরু করতে হবে।’জুলাইয়ে হোয়াইট হাউজ একটি এইডস নীতি গ্রহণ করেছে।ওই নীতিমালায় বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সংস্থাকে এইচআইভি সংক্রমণের হার ২৫ শতাংশ কমাতে উপায় বের করতে বলা হয়েছে।

সিডিসি’র গবেষকরা ২১টি বড় শহরে বসবাসরত ৮,১৫৩ জন সমকামী পুরুষকে পরীক্ষা করেছেন।এদের ২০ শতাংশের মধ্যেই এইচআইভি ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।তবে কৃষ্ণাঙ্গদের মধ্যে এই হার আরও বেশি প্রায় ২৮ শতাংশ। হিসপ্যানিক (১৮%) ও শ্বেতাঙ্গদের (১৬%) মধ্যে তুলনামূলকভাবে কম।

গবেষণায় আরও দেখা গেছে, এইচআইভি আক্রান্ত কৃষ্ণাঙ্গ পুরুষদের ৫৯ শতাংশই জানতেন না তারা এই ভাইরাস বহন করছেন।হিসপ্যানিক পুরুষদের ক্ষেত্রে এই হার ৪৬ শতাংশ আর শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের মধ্যে ২৬ শতাংশ।

মারমিন বলছেন, আগের মতো মানুষ এখন এইচআইভি সংক্রমণ নিয়ে অত আতঙ্ক বোধ করেন না।এর একটি কারণ হতে পারে এইডস চিকিৎসার কার্যকারিতা।এই রোগ সারানো না গেলেও কিছু ওষুধের মাধ্যমে রোগীদের স্বাস্থ্যবান রাখা সম্ভব।এছাড়া তাদের কাছ থেকে অন্য মানুষের মধ্যে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিও কমানো যায়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: