মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপ থেকে ইভিএম: ইসি সচিব  » «   হজ পালনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি হিজড়াদের  » «   সব বাধা উপেক্ষা করে গণশুনানি করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   অভিজিৎ হত্যা: অব্যাহতি পাচ্ছেন সাতজন, আসামি ছয়  » «   অনুমোদিত ৩টি ব্যাংক সম্পর্কে তেমন কিছু জানেন না অর্থমন্ত্রী  » «   ডাস্টবিনে নেমে ১৫০০ শিক্ষার্থীকে বাঁচানোর আহ্বান  » «   একাদশ সংসদের এমপিদের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ  » «   শামীমাকে যা বুঝিয়ে সিরিয়ায় নিয়ে গিয়েছিল আইএস  » «   নিজেই গাড়ি চালিয়ে যুবরাজকে বাসভবনে নিয়ে গেলেন ইমরান খান  » «   আরব আমিরাত ও বাংলাদেশর মধ্যে ৪টি সমঝোতা স্মারক সই  » «   সংঘর্ষ চলছে, পুলওয়ামা হামলার মূল হোতা নিহত  » «   এক দিন বাড়ল দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা, আখেরি মোনাজাত মঙ্গলবার  » «   শুধুমাত্র আইন দিয়ে দুর্নীতি দমন করা যায় না: আইনমন্ত্রী  » «   জামায়াতের সবারই রাজ্জাকের মতো ভুল ভাঙা উচিত: ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ  » «   সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জা‌নি‌য়ে মোদিকে শেখ হাসিনার বার্তা  » «  

যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ অভিবাসীদের ধরপাকড়, আতঙ্কে বাংলাদেশিরা



প্রবাস ডেস্ক:: যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছে দেশটির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।চলতি সপ্তাহেই দেশটির চারটি অঙ্গরাজ্য থেকে কয়েকশ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে এটাকে নিয়মিত কর্মসূচির অংশ বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসী ও কাস্টমস-সংক্রান্ত বিভাগের কর্মকর্তা ডেভিড মেরিন জানান,সপ্তাহজুড়ে যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসীবিষয়ক কর্মকর্তারা আটলান্টা,নিউইয়র্ক,লস অ্যাঞ্জেলেস এবং এর আশপাশের অঞ্চলে অভিযান চালান। ওবামা প্রশাসনের সময়েও এ ধরনের অভিযান চালানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, আটলান্টা থেকে ২০০ জন ও লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে ১৬১ অবৈধ অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে। তবে মোট কতজন আটক হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ন্যাশনাল ইমিগ্রেশন ফোরামের কর্মকর্তা আলি নুরানি জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী অভিবাসীরা বেশ ভয়ে রয়েছেন। এ ছাড়া স্থানীয় যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক, যাঁরা অভিবাসীদের বন্ধু হিসেবে দেখেন, তাঁরাও শঙ্কায় রয়েছেন। বিষয়টি বেশ স্পর্শকাতর।

ক্ষমতায় বসার পরপরই সাতটি মুসলিম দেশ ও শরণার্থীদের যুক্তরাষ্ট্র প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই সাতটি দেশ হলো সিরিয়া, ইরান, ইরাক, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান ও ইয়েমেন।

এ বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে ইসলামী জঙ্গিদের দূরে রাখার জন্য এটি একটি পদক্ষেপ। আমরা তাদের এখানে চাই না।’ ‘যারা আমাদের সেনাদের জন্য হুমকি, তাদের আমরা নিতে পারি না। আমরা তাদেরই নেব, যারা আমাদের দেশ ও দেশের মানুষকে গভীরভাবে ভালোবাসে।’

ওয়াশিংটনের সিয়াটল শহর আদালতের বিচারক জেমস রবার্ট সাত মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ট্রাম্পের দেওয়া নির্বাহী আদেশ স্থগিত করেন।

পরে দেশটির বিচার মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আদালতের জারি করা স্থগিতাদেশ পুনর্বিবেচনার জন্য আপিল করা হয়। ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা স্থগিতের পক্ষেই রায় দেন আদালত।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: