মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আইভী-শামীম ওসমান গ্রুপের সংঘর্ষ, আইভী আহত  » «   প্রতিবন্ধী শিশুকে বলাৎকার, হাসপাতালে ভর্তি  » «   অন্যরকম এক রের্কডের দারপ্রন্তে মিরপুর স্টেডিয়াম!  » «   ব্ল্যাকমেইল করে চাচিকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ভাতিজা  » «   স্বামীর পরিবর্তে বেছে নিলেন ষাঁড়!  » «   টাঙ্গাইলে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় নিহত ১  » «   ছাত্রলীগের সম্মেলন: ষড়যন্ত্রের আশঙ্কা দেখছে অনেক নেতাকর্মী  » «   অভিজিৎ হত্যা মামলার প্রতিবেদন ১৩ ফেব্রুয়ারি  » «   তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের পুকুর এখন রোগ-জীবানুর আবাস্থল  » «   রাণীশংকৈলে পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ মেরে ফেলল দুর্বৃত্তরা  » «   বছরে বিসিবির আয় কত?  » «   যুবককে যৌন নির্যাতন!  » «   আমিশাকে পর্ণস্টার হওয়ার পরামর্শ!  » «   একনেকে ১৮ হাজার ৪৮৩ কোটি টাকার ১৪ প্রকল্প অনুমোদন  » «   সংগীত‌ শিল্পী শাম্মী আক্তার আর নেই  » «  

যা ছিল রংপুরের ভোটে মডেল নির্বাচন শেষ করল ইসি



নিউজ ডেস্ক::সকাল ৮টায় ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুল লতিফ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যনীয়। ওই কেন্দ্রের কর্তব্যরত প্রিসাইডিং অফিসার আজিজুর রহমান বলেন, ভোট শুরু হওয়ার আগেই ভোটাররা লাইন ধরে অপেক্ষা করছেন। ওই কেন্দ্রের ভোট ছিল ২৩১০টি। দুপুর ১২টা পর্যন্ত সেখানে ৫০ শতাংশ ভোট পড়ে বলে জানান প্রিজাইডিং অফিসার। ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের তাজহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে বেশ কয়েকটি কক্ষে মাত্র একজন করে ধানের শীষের এজেন্ট পাওয়া গেছে। একই কক্ষে দুটি করে বুথে দুইজন করে এজেন্ট থাকার কথা ছিল।

কেন্দ্রের দায়িত্বরত প্রিসাইডিং অফিসার নুরুল আমিন বলেন, সকালে যারা এজেন্ট এসেছেন তারা ভেতরেই আছেন। কাউকে বের করে দেওয়া হয়নি। ওই কেন্দ্র পরিদর্শনে আসা বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী কাওছার জামান বাবলা দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অভিযোগ করেন, এজেন্টদের ভয়ভীতি দেখিয়ে বের করে দেওয়া হয়েছে। এসময় ব্যাপক ভোটকারচুপির আশংকাও করেন তিনি।

তবে ওই কেন্দ্রে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেন পুলিশ কর্মকর্তা গাউসুল আজম। কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার শাহজাহান আলী জানান, তার কেন্দ্রে সব প্রার্থীর এজেন্ট আছে। সেখানে মোট ভোট ২০২৪। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৫ শতাংশ ভোট পড়েছে।

কেন্দ্রের বাইরে অবস্থানরত কাউন্সিলর প্রার্থী ও স্থানীয় বিএনপি নেতা আব্দুল বাতেন জানান, ভোট অত্যন্ত সুষ্ঠু হচ্ছে। কোনপ্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। কেউ কোনো প্রকার বাধা বা হুমকিও দেয়নি। ৩৩ নং ওয়ার্ডের রঘুবাজার সংলগ্ন রঘু সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে আসা ৮২ বছর বয়সী সুফিয়া খাতুন বলেন, হামার এলাকাত ভালভাবে ভোট হয়চোল। হামরা খুব খুশি।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু সকাল সাড়ে নয়টায় গুপ্তপাড়াস্থ সালমা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট দেন। একই কেন্দ্রে বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে ভোট দেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা। আর বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী কাওছার জামান বাবলা দশটার দিকে মাহিগঞ্জ দেওয়ানটুলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা সাড়ে দশটার দিকে আলমনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট প্রদান করেন।

এছাড়া জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তার পৈত্রিক নিবাস সংলগ্ন সেনপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেন। একই কেন্দ্রে ভোট দেন জাতীয় পার্টি থেকে বহিস্কৃত এরশাদের ভাতিজা এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হুসাইন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ। ভোট প্রদানের এর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সাংবাদিকদের বলেন, সিইসি নিরপেক্ষ ভূমিকা প্রশংসনীয়। তিনি বলেন, পরিবেশ যদি শেষ পর্যন্ত এমনই থাকে তবে জাপার প্রার্থী মোস্তফা লাঙ্গল প্রতীকে বিপুল ভোটে জয়ী হবে।

একজন প্রতিমন্ত্রী জাতীয় পার্টির প্রার্থীর পক্ষে ভোটারদের লাঙ্গল প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য প্রভাবিত করেছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু। তিনি বলেন, এধরণের কর্মকা- নির্বাচনী আচরণবিধির পরিপন্থী।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, ক্যাডার বাহিনী সাড়ে তিন হাত লাঠি নিয়ে তার ভোটকেন্দ্র সালমা স্কুলের আশেপাশে মহড়া দেয়। যা সাধারণ ভোটারদের আতঙ্কিত করেছে। ওদিকে সালমা স্কুল ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনকালে বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী কাওছার জামান বাবলা সাংবাদিকদের অভিযোগ করেন, ১৪ ও ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের ভোট কেন্দ্রে ধানের শীষের পোলিং এজেন্টদের ঢুকতে দেয়নি সরকারদলীয় লোকজন।

এছাড়া তারা বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে তার সমর্থকদের হুমকি দিয়ে বের করে দিয়েছে। তিনি আরও অভিযোগ করে বলেন, ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের একটি ভোটকেন্দ্রে সিল ছাড়াই ব্যালট পেপার প্রদান করেন দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসার। এসময় আমি হাতেনাতে ধরে ফেলে ছবি তুলে জানতে চাই, সিল ছাড়া ব্যালট পেপার কেন? তখন তিনি বলেন, এটি ভুলক্রমে হয়েছে।
এরকম অনেক অসঙ্গতি ও সুক্ষ্ম কারচুপি আশঙ্কা করছি। জাতীয় পার্টি মনোনীত মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, আশংকা ছিল নির্বাচনে অরাজকতা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাবে সরকারী দল। কিন্তু নির্বাচনে সেরকম তারা করেনি। শান্তিপূর্ণভাবে প্রশাসনের সহায়তায় এ পর্যন্ত সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন হয়েছে। তবে কিছুটা আতঙ্কের কারণে নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি কম ছিল বলে অভিযোগ করেন জাতীয় পার্টি ও বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীরা।

নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, সর্বোচ্চ কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সুষ্ঠু ভোটগ্রহণের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যার কারণে কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। কোনখানে অপ্রীতিকর কোন ঘটনা বা আরাজকতার খবর পেলে দুই মিনিটের মধ্যে এ্যাকশন নেয়ার প্রস্তুতি ছিল আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর।

রংপুর সিটিতে গতকাল সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। দলীয় প্রতীকের এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাপা ছাড়াও মেয়র পদে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের প্রার্থী আব্দুল কুদ্দুছ (মই), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’র এটিএম গোলাম মোস্তফা (হাতপাখা) ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টি’র (এনপিপি) সেলিম আকতার (আম) এবং জাতীয় পার্টির বহিস্কৃত এরশাদের ভাতিজা (স্বতন্ত্র) প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার (হাতি) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করনে।

ইসির তথ্য অনুসারে, রংপুর সিটিতে ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১৭৯ জন এবং ১১টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৬৩ জন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন ভোটার তাদের প্রতিনিধি নির্বাচনের সুযোগ পাচ্ছেন। এর মধ্যে রয়েছে ১ লাখ ৯৬ হাজার ৩৫৬ জন পুরুষ ভোটার এবং ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৮ জন নারী ভোটার। মোট ভোটকেন্দ্র ১৯৩টি এবং ভোটকক্ষ ১১২২টি। অস্থায়ী ভোটকক্ষ হবে ১৬৬টি। বেগম রোকেয়া কলেছে একটি কেন্দ্রে ইভিএম-এর মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে। এছাড়া আরও দুই কেন্দ্রে সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেন স্কুল ও কলেজে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, নবগঠিত রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচন ২০১২ সালের ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে ৭৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ ভোটার ভোট দেন। সে সময় সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু (মোটরসাইকেল) এক লাখ ৬ হাজার ২২৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্র্থী জাপা থেকে বহিস্কৃত মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা (হাঁস) ভোট পান ৭৭ হাজার ৮০৫টি। এছাড়া বিএনপির প্রার্থী কাওছার জামান বাবলা (আনারস) ২১ হাজার ২৩৫ ভোট, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের গোলাম মোস্তফা ১৫ হাজার ৬৮১ ভোট এবং আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাফিয়ার রহমান সফি (দোয়াতকলম) ৪ হাজার ৯৫৪ ভোট পান। এবার জাতীয় পার্টির প্রার্থী মেয়র হচ্ছেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: