শুক্রবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ভালোবাসা দিবসে সিলেটে ‘জুটির মেলা’  » «   ছেলেকে নকল দিতে গিয়ে বাবা আটক  » «   সড়কের বিপজ্জনক খুঁটি সরাতে হবে ৬০ দিনের মধ্যে  » «   মুক্তি ভবন: যে হোটেলে শুধু মরার জন্য যায় মানুষ  » «   ইজতেমায় দায়িত্বশীলদের ব্যর্থতা বরদাশত করা হবে না: র‍্যাব ডিজি  » «   সিরিয়া ইস্যুতে বৈঠকে বসছে রাশিয়া, তুরস্ক ও ইরান  » «   হাসপাতালে গিয়ে সিরিয়ালের জন্য অপেক্ষা করলেন অর্থমন্ত্রী লোটাস কামাল!  » «   তুরাগ তীরে আগামীকাল ইজতেমা শুরু, প্রস্তুত লাখো মুসল্লি  » «   বাংলাদেশের প্রতি সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে: জাপানের রাষ্ট্রদূত  » «   আবারো মিয়ানমারের মানচিত্রে সেন্ট মার্টিন্স, রাষ্ট্রদূতকে তলব  » «   ১৪ ফেব্রুয়ারি ‘স্বৈরাচার প্রতিরোধ দিবস’, কী ঘটেছিল সেদিন ঢাকায়?  » «   সৌদি নারীদের নিয়ন্ত্রণে অ্যাপ, তদন্ত করবে অ্যাপল  » «   কোনো আপস করার প্রয়োজন নেই, রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিইসি  » «   জার্মানির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আজ থেকে শুরু হজের নিবন্ধন, চলবে ১০ মার্চ পর্যন্ত  » «  

যানজটের বড় কারণ আইন না মানা: ডিএমপি কমিশনার



নিউজ ডেস্ক:: রাজধানীতে যানজটের জন্য সবচেয়ে বড় কারণ হিসেবে সাধারণ মানুষের আইন না মানার প্রবণতাকে দায়ী করলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।রোববার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, চলমান ট্রাফিক সচেতনতা মাসে অভিযান চালিয়ে মোট সাত কোটি টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। অভিযানে পর্যাপ্ত গাড়ি ডাম্পিং করা হয়েছে, রেকারিং করা হয়েছে, মামলা দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ কমিশনার বলেন,‘আমি বিনীতভাবে বলতে চাই,আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা আইন না মানার মানসিকতা। পথচারীরা আইন মানছেন না। আমরা জোর করেও ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহার করাতে পারছি না, জ্রেবা ক্রসিং ব্যবহার করাতে পারছি না। চলন্ত গাড়ির সামনে দিয়ে যেখানে সেখানে রাস্তা পার হচ্ছেন পথচারীরা। বাস চালকদের নিয়ে বারবার মিটিং করা হচ্ছে, সমন্বয় মিটিং, সচেতনতা মূলক মিটিং করা হচ্ছে। তাদের বার বার বলা হচ্ছে দায়িত্বশীল হওয়ার জন্য।’

তবে সব মিলিয়ে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও যেখানে সেখানে গাড়ি দাঁড় করিয়ে যাত্রী তোলার অভ্যাসটা বন্ধ করা যাচ্ছে না বলে মন্তব্য করেন ডিএমপি কমিশনার।

এজন্য সমাজে যারা দায়িত্বশীল ব্যক্তি যেমন সাংবাদিক, পেশাজীবী বা সরকারের বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। বলেন, ‘আপনারা আইন মানার সংস্কতি চালু করেন। নিজেরা আইন মানেন এবং সাধারণ মানুষকে আইন মানকে উদ্বুদ্ধ করেন।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: