রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
মোহামেডানসহ মতিঝিলে চার ক্লাবে অভিযান  » «   তাহিরপুরে ১০টি গাঁজার বালিশ উদ্ধার  » «   ফ্রান্সে মসজিদে গাড়ি হামলা  » «   সদলবলে মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি-সম্পাদক  » «   মুসলিম যাত্রী থাকায় ফ্লাইট বাতিল করল আমেরিকান এয়ারলাইনস  » «   মধ্যরাতে বনানীতে শাবি ভিসিপুত্রের কাণ্ড!  » «   সিলেট বিএনপিতে শোডাউনের প্রস্তুতি  » «   ‘ভূতের আড্ডায়’ অভিযান, বাতি জ্বালাতেই তরুণ-তরুণীর অপ্রীতিকর দৃশ্য  » «   মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন, প্রধান শিক্ষকসহ গ্রেপ্তার ৩  » «   টেকনাফে ‘গোলাগুলিতে’ রোহিঙ্গা স্বামী-স্ত্রী নিহত  » «   প্রাথমিকের শিক্ষকদের সুখবর দিলেন গণশিক্ষা সচিব  » «   সাত বডিগার্ডসহ জি কে শামীমকে গুলশান থানায় হস্তান্তর  » «   মালদ্বীপে স্থায়ী জমি পেলো বাংলাদেশ  » «   শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে পদত্যাগ করলেন সহকারী প্রক্টর  » «   তাহরির স্কয়ারসহ মিসরজুড়ে একনায়ক সিসির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ  » «  

মোদির ধ্যানের ছবি নিয়ে টুইঙ্কেলের মশকরা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সপ্তম দফার নির্বাচনী প্রচার শেষ করেই ‘কেদারনাথ’ সফরে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কেদারনাথের গুহায় দীর্ঘক্ষণের জন্য তার ধ্যানে বসার ছবি ও ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নিজেও সেই ছবি পোস্ট করেছেন। যা নিয়ে শেষ দফার ভোটের আগে নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ এনেছেন বিরোধীরা।

তবে প্রধানমন্ত্রীর এই ধ্যানের ছবি ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়াতেও তৈরি হয়েছে অসংখ্যা মিম। এদিকে, সোমবার প্রধানমন্ত্রীর এই ধ্যানে বসার ঘটনাকে কিছুটা মশকরা করেই একটি ছবি পোস্ট করেছেন অক্ষয়কুমারপত্নী টুইঙ্কেল খান্না। যে ছবিতে গেরুয়া রঙের একটি পশুর মূর্তির পাশে টুইঙ্কেলকে মনসংযোগে বসতে দেখা গেছে। যে ছবির ক্যাপশানে টুইঙ্কেল লিখেছেন, ‘গত বেশ কয়েকদিন ধরে এ ধরনের আধ্যাত্মিক ও মনসংযোগের ছবি দেখে আমি মেডিটেশন ফটোগ্রাফির পোজ ও অ্যাঙ্গেলের ওপর ওয়ার্কশপ করবো ভাবছি।

টুইঙ্কেল খান্নার এই ছবি দেখে বেশ বোঝা যাচ্ছে যে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ধ্যানমগ্ন ছবি দেখার পরই এই মশকরা করেছেন।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে টুইঙ্কেল খান্নার স্বামী অক্ষয় কুমার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একটি অরাজনৈতিক সাক্ষাৎকার নেন। যেখানে অক্ষয় নরেন্দ্র মোদীকেকে বলেন, আমি খেয়াল করেছি, আপনি নিয়মিত টুইটার থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়া ফলো করেন।

অক্ষয়ের এই কথা প্রসঙ্গেই মোদি হাসতে হাসতে বলেন, আমি আপনার ও আপনার স্ত্রী টুইঙ্কেলের টুইটারও ফলো করি। কখনো কখনো আমার মনে হয় টুইঙ্কেল আমার ওপর রাগ টুইটারে উগড়ে দেন। এতে আমার মনে হয় আপনার ও আপনার স্ত্রী পারিবারিক জীবন অনেক শান্তির হয়। ওনার পুরো রাগ যখন উনি আমার ওপরই টুইটারে উগড়ে দেন তাতে আপনি শান্তিতে থাকেন। এভাবই আমি আপনারও কাজে লাগি (হাসতে হাসতে)।

তবে টুইঙ্কেলের এই ধ্যান নিয়ে মশকরার করে পোস্ট করা ছবিটিও কি প্রধানমন্ত্রীর নজরে এসেছে? এ প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

সূত্র: জি নিউজ

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: