শনিবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২২ আগস্ট থেকে গ্রুপ চ্যাট বন্ধ করে দিচ্ছে ফেসবুক  » «   রাজনীতিতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী কন্যা পুতুল?  » «   সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি হাজী নিহত, আহত ১৭  » «   ফের পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি  » «   গভীর রাতে স্ত্রীকে মেডিকেলে নেয়ার ভয়াবহ বর্ণনা দিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  » «   মিরপুরে বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুড়েছে ৬০০ ঘর, ধ্বংসস্তুপে চলছে অনুসন্ধান  » «   বেফাঁস মন্তব্যে ফাঁসলেন জাকির নায়েক, হারাচ্ছেন নাগরিকত্ব  » «   কাশ্মীরে খুলছে স্কুল-কলেজ, তুলে নেওয়া হচ্ছে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা  » «   কাশ্মীর সঙ্কট নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদের রুদ্ধদ্বার বৈঠক সম্পন্ন, নাখোশ ভারত  » «   শিক্ষামন্ত্রীর স্বামীকে দেখতে গেলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   চীনে টাইফুন লেকিমার আঘাত: নিহত ২৮, ঘরছাড়া ১০ লাখ  » «   কেমন হবে এবার কাশ্মিরীদের ঈদ?  » «   কেন ঈদ যাত্রায় ভোগান্তি, কারণ বললেন সেতুমন্ত্রী  » «   কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধী  » «   সড়ক-রেল-নৌ: সব যাত্রা পথেই ভোগান্তি  » «  

মির্জা ফখরুল‘৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের জন্য বড় কলঙ্কের দিন’



নিউজ ডেস্ক::বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগের জন্যও ৫ জানুয়ারি কলঙ্কের দিন। আজকের দিনটি কলঙ্কের দিন তো বটেই। আওয়ামী লীগের জন্য সবচেয়ে বড় কলঙ্কের দিন।

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) বিকেলে সুপ্রিম কোর্ট মিলনায়তনে ‘গণহত্যা দিবস’ উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘চুপ করে বসে থাকলে হবে না। গণজাগরণ সৃষ্টি করতে হবে। গণজাগরণে মুক্তি। আওয়ামী লীগের মতো পার্টি আজকে করুণ জায়গায় পৌঁছেছে। দীর্ঘ গণতান্ত্রিক আন্দোলন করেছে যে পার্টি আজকে তাদের পুলিশ, বন্দুক দিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকতে হচ্ছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ফ্যাসিস্ট সরকারের সঙ্গে ডেমোক্রেটিক ফোর্সের আন্দোলন সহজ নয়, আমাদের দীর্ঘ লড়াই করতে হবে। কোনো কিছুকে হালকা করে নেওয়ার উপায় নেই। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। গ্রাম-গঞ্জে জাগরণ সৃষ্টি করতে হবে। একজোট হয়ে আন্দোলন করতে হবে, এর জন্য খালেদা জিয়ার বিকল্প নেই।’

২০১৮ সালকে বিএনপির বছর উল্লেখ করে তিনি বলেন,’ সরকার অবলীলায় মিথ্যা কথা বলে, আসলে তারা পুরো রাষ্ট্রযন্ত্র নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। তবে ইতিহাস বলে, বাংলাদেশের মানুষ এ অন্যায় প্রতিহত করেছে। আগামীতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। আমরা বলেছি, ২০১৮ সাল হবে বেগম জিয়ার বছর, বিএনপি’র বছর, জনগণের বছর, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের বছর। আন্দোলন করে আমরা তা অর্জন করবো।’

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বোরহান উদ্দিন প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: