সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে ঢাকা থেকে ৪০ আইনজীবী যাচ্ছেন বরগুনায়!



নিউজ ডেস্ক:: বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো তার স্ত্রী ও আলোচিত এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে আইনি সহায়তা দেবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকার ৪০ আইনজীবী। তবে এজন্য বরগুনার সংশ্লিষ্ট আদালত ও বারের অনুমতি চাইবেন তারা।

অনুমতি না পাওয়া গেলে এ নিয়ে উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হবেন এই আইনজীবীরা। গতকাল শুক্রবার রাতে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা বারের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. ফারুক আহমেদ।

তিনি বলেন, দুপুরে আইনজীবী সমিতির নির্বাহী সদস্য ইব্রাহিম খলিলের সাথে মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরের ফোনে যোগাযোগ করেন। তখন মিন্নির বাবা আইনজীবী নিয়োগের জন্য অনুরোধ করেন। সে অনুরোধের পরে আমরা হাইকোর্ট ও জজকোর্ট মিলিয়ে ৪০ সদস্যের আইনজীবী টিম যাব।

ইব্রাহিম খলিল বলেন, আমরা আগামী ২৩ জুলাই বরগুনা আদালতে শুনানিতে যাব। আজ দুপুরে মিন্নির বাবার সাথে আমার ফোনে কথা হয়েছে। তাকে আইনি সহায়তা দেওয়ার কথা বলায়, তিনি আবেগে আপ্লুত হয়ে আমাদের যেতে অনুরোধ করেছেন।

তিনি বলেন, অনেক আইনজীবী ও হিউম্যান রাইটস সংগঠনের সদস্য শুনানিতে যেতে ইচ্ছুক। আদালতে দুই পক্ষে আইনজীবী থাকলে ন্যায় বিচার নিশ্চিত করা যায়। এর আগে গত বুধবার বিকেলে বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী মিন্নির ৫ দিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করেন। ওইদিন তার পক্ষে কোন আইনজীবী লড়েননি।

এ বিষয়ে মিন্নির বাবা বলেছিলেন, মঙ্গলবার রাতে পুলিশের পক্ষ থেকে মিন্নিকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি আমাকে জানানো হয়। সাক্ষী থেকে আসামি হওয়ার পরই আমি মিন্নির পক্ষে আইনজীবী নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করি। রাতেই পরিচিত ৩ জন আইনজীবীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করি। তারা তিনজনই মিন্নির পক্ষে আদালতে দাঁড়াতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তারা জানিয়েছেন, আইনজীবী সমিতির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তারা মিন্নির পক্ষে আইনি লড়াইয়ে থাকবেন না।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: