সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ইতালির নাগরিকত্ব হারাতে পারেন ৩ হাজার বাংলাদেশি  » «   নবীগঞ্জে আগুনে পুড়ে ছাই ৫টি ঘর, ১২ লাখ টাকার ক্ষতি  » «   ছাত্রলীগের নতুন সভাপতি-সম্পাদকের প্রতিশ্রুতি  » «   শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে রণক্ষেত্র, আহত ৩০  » «   চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর  » «   মাসিক বেতনে চালক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের  » «   কাশ্মিরের মুসলমানদের ওপর নির্যাতন বন্ধের দাবিতে মৌলভীবাজারে বিক্ষোভ মিছিল  » «   হাজিদের দেশে ফেরার শেষ ফ্লাইট আজ  » «   আফগান সীমান্তে ৪ পাকিস্তানি সেনা নিহত  » «   ঈদের খরচ হিসেবে ‘ন্যায্য পাওনা’ চেয়েছিলাম: রাব্বানী  » «   পুলিশ সুপারদের কুচকাওয়াজে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  » «   ছাত্রলীগের নেতৃত্বে জয়-লেখক  » «   হিন্দি চাপিয়ে দিলে ভাষা যুদ্ধের হুমকি, রাজ্যে রাজ্যে প্রতিবাদ  » «   শিক্ষামন্ত্রীর কড়া চিঠি  » «   পরিবহন ধর্মঘটে বিপর্যস্ত প্যারিস; ৩৮০ কিমি ট্র্যাফিক জ্যাম!  » «  

মায়ের কোলে সেই নবজাতক : চিকিৎসক পত্নী জেলহাজতে



মায়ের কোলে সেই নবজাতক : চিকিৎসক পত্নী জেলহাজতে

অবশেষে মায়ের কোলে ফিরল রাজশাহীতে উদ্ধার হওয়া নবজাতক। শনিবার ওই নবজাতককে মা মুক্তি খাতুনের জিম্মায় দেয়া হয়। দুপুরে আদালত এ নির্দেশ দেয়। একই সঙ্গে নবজাতক চুরির সঙ্গে জড়িত চিকিৎসক পত্নী শাহিন আকতার শুভ্রাকে জেলহাজতে পাঠায় আদালত।

এর আগে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসাপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) নিয়ে গর্ভধারণের বিষয়ে নিশ্চিত হয় পুলিশ। পরে তাকে সেখান থেকে আদালতে নেয়া হয়।

নগরীর শাহমখদুম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিল্লুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সকালে রামেক হাসপাতালের ওসিসিতে নিয়ে গ্রেফতার শাহিন আকতার শুভ্রার গর্ভধারণের বিষয়টি পরীক্ষা করানো হয়।

ওসিসির ইনচার্জ ডা. আনোয়ারা বেগম এ পরীক্ষা করেন। ওই নারীর গর্ভে এ সন্তান জন্ম নেয়নি বলে পরে চিকিৎসক প্রতিবেদন দেয়। এরপর পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে নেয়া হয়। তবে রিমান্ড শুনানি না করেই আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠান। রোববার তার রিমান্ড শুনারি হওয়ার কথা রয়েছে।

এ ঘটনায় গ্রেফতার শাহিন আকতার শুভ্রার সহায়তাকারী নগর স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মাঠকর্মী তহুরা বেগমকেও তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। বর্তমানে তিনিও জেলহাজতে রয়েছেন।

গত ১৯ জানুয়ারি বেলা সাড়ে ৩টার দিকে নগরীর নওদাপাড়া নগর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ছেলে সন্তান প্রসব করেন নগরীর চরশ্যামপুর এলাকার বাসিন্দা মুক্তি খাতুন। এর প্রায় ছয় ঘণ্টার মাথায় চুরি হয়ে যায় তার সন্তান। ওই দিনই মুক্তি খাতুনের মা রোজিনা বেগমের দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার হন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মাঠকর্মী তহুরা বেগম।

তবে এর আটদিনের মাথায় শুক্রবার দুপুরে নগরীর টিকাপাড়া বাসার রোডের একটি বাসা থেকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে শাহিন আকতার শুভ্রাকে। এর আগে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তাকে শনাক্ত করে পুলিশ।

শুভ্রা রাজশাহীর নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভর্সিটির সহকারী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হিসেবে কর্মরত। তার স্বামীর ডা. আক্তারুজ্জামান রাজশাহীর বাঘা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসক। এ দম্পতির অহনা নামে চার-পাঁচ বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। ‘সপ্তর্ষি’ নামে ওই বাসার দ্বিতীয় তলায় ভাড়া থাকতেন তারা।

পুলিশ বলছে, ছেলে সন্তান না থাকায় ৬ মাস আগে থেকেই বাচ্চা চুরির পরিকল্পনা করেছিন শুভ্রা। এরপর থেকেই তিনি পেটে কাপড় বেঁধে বাসা থেকে বের হতেন। ২০ জানুয়ারি জন্ম নেবে এমন ছেলে সন্তান চুরির টার্গেটে নগরীর বিভিন্ন ক্লিনিকেও ঘুরেন তিনি। গ্রেফতারের পরও ওই সন্তান তার বলে দাবি করেন ওই নারী।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: